kalerkantho


পল্লীকবি জসীমউদ্‌দীনের মৃত্যুবার্ষিকী পালিত

নিজস্ব প্রতিবেদক, ফরিদপুর    

১৪ মার্চ, ২০১৮ ১১:৫০



পল্লীকবি জসীমউদ্‌দীনের মৃত্যুবার্ষিকী পালিত

ফরিদপুরে নানা আয়োজনে পল্লীকবি জসীমউদ্‌দীনের ৪২তম মৃত্যুবার্ষিকী পালিত হয়েছে। সংস্কৃতি মন্ত্রণালয়ের সহযোগিতায় জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে আজ বুধবার নানা কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়।

সকাল সাড়ে ৮টায় সদর উপজেলার অম্বিকাপুর ইউনিয়নের গোবিন্দপুর গ্রামে পৈত্রিক বাড়ির  প্রিয় ডালিম গাছের তলায় শায়িত পল্লীকবির সমাধিতে জেলা প্রশাসন, পুলিশ বিভাগ আনছারউদ্দিন উচ্চ বিদ্যালয়, সাহিত্য পত্রিকা উঠোন, কাঁশফুল সাহিত্য সংগঠনসহ বিভিন্ন সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠন পুষ্পমাল্য অর্পণ করে।

পরে কবির বাড়ির আঙিনায় আয়োজিত আলোচনাসভায় সভাপতিত্ব করেন ফরিদপুরের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মো. এরাদুল হক। এতে প্রধান অতিথি ছিলেন জেলা প্রশাসক উম্মে সালমা তানজিয়া।

অন্যদের মধ্যে বক্তব্য দেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার জামাল পাশা, কবিপুত্র ড. জামাল আনোয়ার, উঠোন সম্পাদক মফিজ ইমাম মিলন প্রমুখ।

বক্তারা বলেন, মাটি ও মানুষের কবি জসীমউদ্‌দীন ছিলেন বাংলা সাহিত্যের অমর এক দিকপাল। তার লেখায় পল্লী বাংলার প্রকৃতির অপরূপ রূপ যেমন ফুটে উঠেছে, তেমনি গ্রাম বাংলার মানুষের আশা-আকাঙ্খা, সুখ-দুঃখ, আনন্দ-বেদনা ও সংগ্রামের চিত্র তাঁর লেখায় আমরা  দেখতে পাই। তাঁর মতো করে আর কেউ পল্লীর মানুষের কথা লেখেননি। তিনি পল্লী বাংলার মানুষের মনে অমর হয়ে আছেন। তার লেখনি থেকে আমরা মানুষের প্রতি ভালোবাসা ও দেশপ্রেমের শিক্ষা নিতে পারি, অনুপ্রাণিত হতে পারি। 

প্রসঙ্গত, একুশে পদকপ্রাপ্ত পল্লীকবি জসীমউদ্‌দীন ৭৩ বছর বয়সে ১৯৭৬ সালের ১৪ মার্চ ঢাকায় মারা যান। পরে তাঁকে ফরিদপুর সদর উপজেলার অম্বিকাপুর ইউনিয়নের গোবিন্দপুর পৈত্রিক বাড়ির তাঁর প্রিয় ডালিম গাছের তলায় সমাহিত করা হয়।

বাংলা সাহিত্যের অন্যতম জনপ্রিয় ও শক্তিশালী এ কবির লেখা গ্রন্থ বেঁদের মেয়ে, সোজন বাদিয়ার ঘাট, নকশী কাঁথার মাঠ উল্লেখযোগ্য। তাঁর কবর, নিমন্ত্রণ ও আসমানী কবিতা আজও পাঠকের মনে নাড়া দেয়।



মন্তব্য