kalerkantho


রাজাকার-জঙ্গিদের সঙ্গী এবং পৃষ্ঠপোষকেরাও খারাপ ও পরিত্যাজ্য

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৮ মার্চ, ২০১৮ ২০:২৯



রাজাকার-জঙ্গিদের সঙ্গী এবং পৃষ্ঠপোষকেরাও খারাপ ও পরিত্যাজ্য

তথ্যমন্ত্রী ও জাসদ সভাপতি হাসানুল হক ইনু রাজাকার ও জঙ্গির সঙ্গী এবং পৃষ্ঠপোষকেরা যাতে দেশের ওপর আর ছোবল হানতে না পারে, সেজন্য শিল্পী সমাজকে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করার আহ্বান জানিয়েছেন।

তিনি শিল্পী সমাজের উদ্দেশ্যে বলেন, ‘স্পষ্ট বলতে হবে, রাজাকার ও জঙ্গিরা যদি খারাপ হয়, তাদের সঙ্গী এবং পৃষ্ঠপোষকেরাও খারাপ ও পরিত্যাজ্য।’

বৃহস্পতিবার বিকেলে রাজধানীর বাংলাদেশ চলচ্চিত্র উন্নয়ন কর্পোরেশনের (বিএফডিসি) জহির রায়হান মিলনায়তনে চলচ্চিত্র পরিচালক সমিতি আয়োজিত ‘একুশে পদকপ্রাপ্ত চলচ্চিত্র পরিচালকদের সংবর্ধনা’ সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতা করছিলেন।

তথ্য মন্ত্রী বলেন, ‘বাংলাদেশকে নিজের পথে রাখতে এই অগ্নিঝরা মার্চে বঙ্গবন্ধু যেমন পাকিস্তানকে বিদায় দেন, তেমনি পাকিস্তানের দালাল রাজাকার-জঙ্গিসঙ্গীদেরও আজ রাজনীতি থেকে বিদায় জানাতে হবে। আর একাজে শিল্পীসমাজকে অগ্রণী ভূমিকা পালন করতে হবে।’

হাসানুল হক ইনু বলেন, ‘শেখ হাসিনার সরকারের ছাতার নিচে চলচ্চিত্র-শিল্প-সাহিত্য বিকশিত হচ্ছে। সমগ্র চলচ্চিত্র অঙ্গণ মুক্তিযুদ্ধ ও অসাম্প্রদায়িক চেতনার পক্ষে। এখানে রাজাকার ও জঙ্গিদের কোনো স্থান নেই।’

মন্ত্রী গুণী চলচ্চিত্র পরিচালকদের প্রতি সম্মান জানিয়ে বলেন, ‘সরকার চলচ্চিত্র শিল্পের উন্নয়নে একাগ্রভাবে কাজ করছে। সাভারের কবিরপুরে বঙ্গবন্ধু ফিল্ম সিটি নির্মাণ প্রায়পূর্ণ ও এফডিসিসংলগ্ন স্থানে চলচ্চিত্র কমপ্লেক্স নির্মাণের কাজ শুরু হতে যাচ্ছে। নির্মিত হয়েছে আধুনিক ফিল্ম আর্কাইভ।’

তথ্যমন্ত্রী এসময় কিংবদন্তী চলচ্চিত্রকার হীরালাল সেন ও আব্দুল জব্বার খান স্মরণে ঢাকায় দু’টি সড়কের নামকরণের উদ্যোগ নেবার ঘোষণা দেন এবং বলেন, ‘চলচ্চিত্র বিকাশে বিএফডিসি’র নতুন মুখের সন্ধান কাজেও সহায়তা দেবে তথ্য মন্ত্রণালয়।’ 

সংবর্ধনা সভায় একুশে পদকপ্রাপ্ত একুশজন চলচ্চিত্র পরিচালকের মধ্যে প্রয়াত কলিম শরাফী, জহির রায়হান, ওবায়েদ-উল-হক, সৈয়দ শামসুল হক, হুময়ূন আহমেদ, আলি মনসুর, সুভাষ দত্ত, আব্দুল্লহ আল মামুন, আব্দুল জব্বার খান, সাদেক খান, খান আতাউর রহমান, চাষী নজরুল ইষলাম ও তারেক মাসুদের প্রতিনিধিদের হাতে এবং আমজাদ হোসেন, সৈয়দ হাসান ইমাম, গাজী মাজহারুল আনোয়ার, নাসির উদ্দিন ইউসুফ, ডা. অরূপ রতন চৌধুরী, এটিএম শামসুজ্জামান, তানভীর মোকাম্মেল ও ইলিয়াস কাঞ্চনের মধ্যে উপস্থিতদের হাতে সম্মাননা স্মারক তুলে দেন তথ্যমন্ত্রী।

চলচ্চিত্র পরিচালক সমিতির সভাপতি মুশফিকুর রহমান গুলজারের সভাপতিত্বে প্রখ্যাত অভিনয় শিল্পী সুচন্দা, ইলিয়াস কাঞ্চন, চলচ্চিত্রকার গাজী মাজহারুল আনোয়ার, খোরশেদ আলম খসরু, মেহের আফরোজ শাওনসহ সম্বর্র্ধিত চলচ্চিত্রকারবৃন্দ তাদের অনুভূতি ব্যক্ত করেন।

এর আগে সকালে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে প্রয়াত মুক্তিযোদ্ধা ও ভাস্কর ফেরদৌসি প্রিয়ভাষিণীর মরদেহে ফুলেল শুভেচ্ছা দিয়ে অন্তিম শ্রদ্ধা জানান মন্ত্রী। জাসদের সাধারণ সম্পাদক শিরিন আখতার এমপিসহ দলের নেতাকর্মীরা এসময় উপস্থিত ছিলেন।


মন্তব্য