kalerkantho


অ্যাটর্নি জেনারেল

খালেদার আইনজীবী অনেক, তাই অভাব সমন্বয়ের

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১ মার্চ, ২০১৮ ০২:৫১



খালেদার আইনজীবী অনেক, তাই অভাব সমন্বয়ের

খালেদা জিয়াকে জেলে থাকতে হচ্ছে সরকারি প্রভাবে- গতকাল সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সভাপতি অ্যাডভোকেট জয়নুল আবেদীনের এমন মন্তব্যের পর অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম বলেছেন, অভিযোগটি দু:খজনক।

বুধবার নিজ কার্যালয়ে অ্যাটর্নি জেনারেল সাংবাদিকদের বলেন, খালেদা জিয়ার জামিন শুনানিতে অনেক আইনজীবী থাকাতে সমন্বয়ের অভাব দেখা গেছে। এ কারণে শুনানি ঠিকমতো হয়নি।

মাহবুবে আলম বলেন, খালেদার আইনজীবীদের ব্যর্থতার দায় আমাদের ওপর চাপাচ্ছেন। আমাদের খামোখা দোষী করছেন। এটা খুব দুঃখজনক। এই মামলায় নিম্ন আদালতের নথি কখন আসবে না আসবে এই ব্যাপারে তো আমরা কিছুই জানি না। এটা আদালতের বিষয়। এ ব্যাপারে আমাদের দোষ দিয়ে কোনো লাভ নেই।

তিনি আরো বলেন, খালেদা জিয়ার মামলায় আইনজীবীরা জামিন চাইতে গিয়েছিলেন, সেখানে যে সমসত্ম বক্তব্য রেখেছি সেটা কোনো রাজনৈতিক বক্তব্য নয়। সবই ছিলো আইনগত বক্তব্য।

মাহবুবে আলম বলেন, ‘সাজা হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে জামিন পেয়ে যাবেন এটা কল্পনা করা ঠিক না। ওনারা আদালতের কাছে এসেছেন, আদালত যখন মনে করেন জামিন দেবেন। তাদের বক্তব্য তারা পেশ করেছেন। আমাদের বক্তব্য আমরা পেশ করেছি।’

খালেদার আইনজীবীদের ব্যর্থতার বিষয়ে তিনি বলেন, ‘এই যে এতিমদের টাকা আত্মসাৎ হয়ে গেছে, এ জিনিসটি বললেই ওনারা রেগে যান। এটা তো এক বড় ব্যর্থতা। আইনজীবীদের সাধারণ চিন্ত্মা চেতনা নিয়ে মক্কেলের পক্ষে কাজ করতে হবে। সেখানে আবেগতাড়িত হলে চলবে না। নিম্ন  আদালত যে রায় দিয়েছেন আপিলে সেটা বহাল থাকবে বলে আমার বিশ্বাস।’

নিম্ন আদালতের থেকে নথি পাঠানো সম্পর্কে অ্যাটর্নি জেনারেল বলেন, নথির প্রতি পৃষ্ঠায় পৃষ্ঠায় স্বাক্ষর করতে হয়। তারপর প্রস্তুত কলে হাইকোর্টে নথি পাঠাতে হয়। এ কারণে কিছুটা বিলম্ব হচ্ছে।


মন্তব্য