kalerkantho


পরবর্তী পরীক্ষাগুলোতে বড় ধরনের পরিবর্তন আনব : শিক্ষামন্ত্রী

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২৩ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ ১৪:৫২



পরবর্তী পরীক্ষাগুলোতে বড় ধরনের পরিবর্তন আনব : শিক্ষামন্ত্রী

ফাইল ছবি

শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ বলেছেন, প্রশ্নপত্র ফাঁস রোধে আমি শিক্ষক, অভিভাবকসহ সবার সহযোগিতা চাইছি, আপনারা আমাদের সহযোগিতা করেন। এইসব কাজে (পরীক্ষা) যারা বাধার সৃষ্টি করে তাদের চিহ্নিত করে আইনের হাতে সোপর্দ করেন। তবে প্রশ্নপত্র ফাঁসে ইতোমধ্যে ৫২টি মামলা করে ১৫৩ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

আজ শুক্রবার এফডিসি মিলনায়তনে নবম জাতীয় বিতর্ক প্রতিযোগিতা ‘বিতর্ক বিকাশ’ এর গ্র্যান্ড ফাইনাল ও পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠানে মন্ত্রী এসব কথা বলেন।

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, প্রশ্ন ফাঁস ঠেকাতে আমরা চেষ্টা করছি। আগামী এইচএসসি পরীক্ষায় অতি অল্প সময়ে বড় পরিবর্তনে যাব না, সেখানেও কিছু ব্যবস্থা নিচ্ছি যেগুলো আগে নিইনি। এতে আশা করছি বেশি কার্যকর হবে। এর পরবর্তী পরীক্ষাগুলোতে বড় ধরনের পরিবর্তন আনব।

প্রশ্ন ফাঁস রোধে বিভিন্ন প্রস্তাব পাওয়ার কথা জানিয়ে নাহিদ বলেন, প্রতি দিনই নতুন কিছু ব্যবস্থা নেওয়ার চেষ্টা তারা করছেন। তারপরও কোনো না কোনো জায়গা থেকে প্রশ্ন বেরিয়ে যাচ্ছে।

তিনি বলেন, প্রযুক্তি বিরাট সম্পদ এবং আমরা বাধ্যতামূলকভাবে তা ছেলেমেয়েদের শিখাচ্ছি। সেই প্রযুক্তি যেমন সুবিধা দিচ্ছে তেমনি অসুবিধার সৃষ্টি করছে। সেই সুযোগ নিয়ে যা না (প্রশ্ন ফাঁস যতটুকু হয়) তার চেয়ে বেশি প্রচার হয়ে যাচ্ছে।

নাহিদ বলেন, ছেলেমেয়েদের পরীক্ষার হলে ৩০ মিনিট আগে ঢুকিয়ে ফেলছি। প্রশ্নের খাম খোলার সময় নির্ধারণ করে দিয়েছে ৩০ মিনিট আগে। তার পরেও কেউ না কেউ একটা স্টেপ নিয়ে প্রচার করে দিচ্ছে।

এবারের বিতর্ক প্রতিযোগিতার ফাইনালে বরিশালের বাবুগঞ্জের রাশেদ খান মেনন মডেল উচ্চ বিদ্যালয় চ্যাম্পিয়ন হয়েছে; রানারআপ হয়েছে সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুরের ইসহাকপুর পাবলিক হাই স্কুল।



মন্তব্য