kalerkantho


বিশ্ব ইজতেমা : ১৯টি ট্রেন ও দুই শতাধিক বাসের বিশেষ ব্যবস্থা

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৪ জানুয়ারি, ২০১৮ ০৯:৫৮



বিশ্ব ইজতেমা : ১৯টি ট্রেন ও দুই শতাধিক বাসের বিশেষ ব্যবস্থা

আজ সকাল ১১টায় বিশ্ব ইজতেমার প্রথম ধাপের আখেরি মোনাজাত। এই মোনাজাতের মাধ্যমে তাবলিগ জামাতের ৫৩তম বিশ্ব ইজতেমার প্রথম ধাপ শেষ হবে। ধারণা করা হচ্ছে, ২৫ থেকে ৩০ লাখ দেশি-বিদেশি মুসল্লি ইজতেমায় অংশ নেবেন বলে আশা করা হচ্ছে। আখেরি মোনাজাত মোনাজাত ও হেদায়েতি বয়ান দুটোই বাংলায় হবে বলে নিশ্চিত করেছেন টঙ্গীর তাবলিগের মুরব্বী গিয়াসউদ্দিন। সেই সঙ্গে আগতদের পরিবহনেও বিশেষ বাস ও ট্রেন সার্ভিসের ব্যবস্থা করা হয়েছে। 

জেলা তথ্য কর্মকর্তা মো. রাহাত হাসনাত জানান, আখেরি মোনাজাতের দিন মুসল্লিদের সুবিধার্থে ১৯টি বিশেষ ট্রেন চলাচল করবে। এ ছাড়া সব আন্তঃনগর ট্রেন টঙ্গীতে যাত্রাবিরতি করবে। বিআরটিসি দুই শতাধিক বিশেষ বাস সার্ভিস চালু করেছে। আখেরি মোনাজাতের দিন ছাড়াও ইজতেমা চলাকালীন টঙ্গী স্টেশনে দ্রুতযানসহ প্রতিটি ট্রেন যাত্রাবিরতি করবে। এতে মানুষের আসা-যাওয়া বিঘ্নিত হবে না। 

আরো পড়ুন : ইজতেমা অভিমুখে ধর্মপ্রাণ মুসল্লিদের ঢল

এর আগে বুধবার রেলপথ মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র তথ্য অফিসার মো. শরিফুল আলম স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, বিশ্ব ইজতেমা উপলক্ষে বাংলাদেশ রেলওয়ে ১২ থেকে ১৪ জানুয়ারি পর্যন্ত বিভিন্ন গন্তব্যে বিশেষ ট্রেনের ব্যবস্থা করেছে। এই সুবিধা পেতে সবাইকে টিকিট সংগ্রহের জন্য বলা হয়েছে। ১৪ জানুয়ারি আখেরি মোনাজাতের আগ পর্যন্ত ঢাকা অভিমুখী সব ট্রেন টঙ্গী স্টেশনে দুই মিনিট বিরতিতে থাকবে। ১৪ জানুয়ারি সুবর্ণ এক্সপ্রেস, মহুয়া এক্সপ্রেস ও তুরাগ-১, ২ ,৩, ৪ ঢাকা-কুমিল্লা, ঢাকা-টঙ্গী, ঢাকা-জয়দেবপুর ও ঢাকা-নারায়ণগঞ্জের মধ্যে ডেমু (কমিউটার) ট্রেন চলাচল করবে না। এ ছাড়া ১২, ১৩ ও ১৪ জানুয়ারি ২৫১/২৫২ (লোকাল ট্রেন) আর ১৩ ও ১৪ জানুয়ারি কুশিয়ারা এক্সপ্রেস ট্রেন বন্ধ থাকবে। ১৪ জানুয়ারি সাপ্তাহিক বন্ধের দিনও চলাচল করবে মহানগর এক্সপ্রেস।

আজ সকাল থেকেই তীব্র শীত আর কুয়াশা উপেক্ষা করে বিশ্ব ইজতেমার প্রথম ধাপের আখেরি মোনাজাতে অংশ নিতে টঙ্গী তুরাগ তীরের ইজতেমা ময়দানের দিকে ছুটছেন ধর্মপ্রাণ মানুষজন। অনেক মানুষ নিজস্ব পরিবহণের ব্যবস্থা করে নিয়েছেন। বেশ কয়েকজন জড়ো হয়ে হয়তো কোনো পিকআপ ভাড়া করেছেন। আবার কেউ নিজের মতো করে রিক্সা, বাস বা অন্য যানে চড়ে রওনা দিচ্ছেন। 

আরো পড়ুন: কাঁঠালবাড়ী-শিমুলিয়ায় নৌযান চলাচল বন্ধ

উল্লেখ্য, গত শুক্রবার আম বয়ানে শুরু হয় এবারের ইজতেমা। এরপর থেকে সেখানে অবস্থান করা মুসল্লিরা তাবলিগের মুরুব্বিদের মুখে ইসলামের আমল, আক্বীদা ও দাওয়াত বিষয়ে বয়ান শুনছেন। মুসল্লিরা বলছেন, ইজতেমায় অংশ নিয়ে তারা গোনাহ মাপের জন্য আল্লাহর কাছে প্রার্থনা করবেন। দেশ ও মুসলিম উম্মাহর কল্যাণ কামনায় দোয়া করবেন। আখেরি মোনাজাত শেষে মুসল্লিমরা দাওয়াতি কাজে বেরিয়ে পড়বেন।



মন্তব্য