kalerkantho


অ্যাকর্ডের মেয়াদ বাড়ানোর চুক্তির কার্যক্রম স্থগিত

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১৬ অক্টোবর, ২০১৭ ০৫:০০



অ্যাকর্ডের মেয়াদ বাড়ানোর চুক্তির কার্যক্রম স্থগিত

দেশের তৈরি পোশাক কারখানা পরিদর্শনে ইউরোপীয় ক্রেতাদের জোট অ্যাকর্ডের কার্যক্রমের মেয়াদ আরো তিন বছর বাড়ানোর ঘোষণা সংক্রান্ত ‘অ্যাকর্ড-২০১৮’ চুক্তির কার্যক্রম স্থগিত করেছেন হাইকোর্ট। আগামী বছরের ১৫ মে পর্যন্ত এ স্থগিতাদেশ দেওয়া হয়েছে।

 

বিচারপতি কাজী রেজা-উল হক ও বিচারপতি মোহাম্মদ উল্লাহ’র হাইকোর্ট বেঞ্চ গতকাল রবিবার এ স্থগিতাদেশ দেন। একইসঙ্গে রুল জারি করেন। রুলে সরকার, মালিক ও শ্রমিক পক্ষের অনুমোদন না নিয়ে মেয়াদ বাড়ানোর সিদ্ধান্ত কেন অবৈধ হবে না, তা জানতে চাওয়া হয়েছে। স্টিচিং বাংলাদেশ অ্যাকর্ড ফাউন্ডেশন, শ্রম মন্ত্রণালয়ের কলকারখানা ও প্রতিষ্ঠান পরিদর্শনের প্রধান পরিদর্শককে চার সপ্তাহের মধ্যে রুলের জবাব দিতে বলা হয়েছে।  

বাংলাদেশ ন্যাশনাল গার্মেন্টস ওয়াকার্স এমপ্লয়ীজ লীগের সভাপতি লিমা ফেরদৌসের করা এক আবেদনে এ আদেশ দেন উচ্চ আদালত। আদালতে আবেদনকারী পক্ষে আইনজীবী ছিলেন ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস, ব্যারিস্টার মেহেদী হাসান চৌধুরী ও ব্যারিস্টার ইমতিয়াজ মঈনুল ইসলাম।   

বাংলাদেশের তৈরি পোশাক কারখানা ভবনের কাঠামো, অগ্নি ও বৈদ্যুতিক নিরাপত্তা ব্যবস্থা পরিদর্শন ও সংস্কার কাজ তদারক করে অ্যাকর্ড। ইউরোপীয় ২২৮টি ক্রেতার সংগঠন হলো এই অ্যাকর্ড। যারা পোশকা কারখানার নিরাপত্তা নিয়ে কাজ করে।

আগের চুক্তি অনুযায়ী আগামী বছর মে মাস পর্যন্ত কার্যক্রম চালাতে পারবে অ্যাকর্ড। কিন্তু তারা গত ২১ জুন নতুন চুক্তির মাধ্যমে তাদের বাংলাদেশে অবস্থানের মেয়াদ আরো তিন বছর বাড়িয়ে ২০২১ সালের ৩১ মে পর্যন্ত করে। এই নতুন চুক্তির বৈধতা চ্যালেঞ্জ করা হয় আদালতে।  


মন্তব্য