kalerkantho


সরকার বিচার বিভাগের স্বাধীনতা নিশ্চিতকরণে দৃঢ়প্রতিজ্ঞ : আইনমন্ত্রী

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২১ সেপ্টেম্বর, ২০১৭ ২২:১৯



সরকার বিচার বিভাগের স্বাধীনতা নিশ্চিতকরণে দৃঢ়প্রতিজ্ঞ : আইনমন্ত্রী

আইন, বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রী আনিসুল হক বলেছেন, বর্তমান সরকার বিচার বিভাগের স্বাধীনতা নিশ্চিত করতে দৃঢ়প্রতিজ্ঞ। আওয়ামী লীগ আইনের শাসনে বিশ্বাসী।

কোন বিষয়ে দ্বিমত থাকলেও আমরা আইনের শাসনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল।
 
তিনি আজ রংপুর জজ আদালত চত্বরে নবনির্মিত ৫ তলা বিশিষ্ট চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত ভবন উদ্বোধনের পর আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে একথা বলেন।

তিনি বলেন, বাংলাদেশ স্বাধীন হয়েছে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নেতৃত্বে। অথচ সংবিধানের ষোড়শ সংশোধনীর রায় লেখার সময় বঙ্গবন্ধু একক নেতৃত্বের বিষয় লেখা হয়নি।  

আনিসুল হক বলেন, ‘ষোড়শ সংশোধনী বাতিলের রায়ের প্রতিটি শব্দ পরীক্ষা-নিরীক্ষা করা হচ্ছে। যতক্ষণ পর্যন্ত রায় নিয়ে পরীক্ষা-নিরীক্ষা শেষ না হয়- ততক্ষণ আমরা আমাদের পরবর্তী পদক্ষেপের জন্য অপেক্ষা করবো। ৭৯৯ পৃষ্ঠার রায়ে আমরা কী কী পয়েন্টে রিভিউ এবং এক্সপাঞ্জ চাইবো সেগুলো আগে আমাদের বুঝে নিতে হবে। ’

মন্ত্রী বলেন, ‘১৯৭২ সালের সংবিধানে উল্লেখ করা ছিল কিভাবে বিচারক নিয়োগসহ অপসারণ করা যাবে। কিন্তু ১৯৭৭ সালে জিয়াউর রহমান অবৈধভাবে ক্ষমতায় এসে সুপ্রিম জুডিশিয়াল কাউন্সিল গঠন করেন।

তিনি বলেন, আপীল বিভাগের রায়ের প্রতি আমরা শ্রদ্ধাশীল। আমরা কিছু বিষয়ে একমত নই, আমাদের দ্বিমত আছে। সেগুলো আমরা পরিস্কার করতে চাই।

তিনি আরো বলেন, আইনের শাসন সঠিকভাবে পালনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সবসময় অবকাঠামো উন্নয়নে হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন। তাঁর নির্দেশে রংপুরে ৫ তলা বিশিষ্ট চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত ভবন নির্মাণ এবং আইনজীবিদের সেডের ব্যবস্থা করাসহ নানা পদক্ষেপ বাস্তবায়ন করা হচ্ছে।  

রংপুর জেলা ও দায়রা জজ হুমায়ন কবীরের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় প্রতিমন্ত্রী মসিউর রহমান রাঙ্গা, রংপুরের মেয়র সরফুদ্দিন আহমেদ ঝন্টু, এডভোকেট হোসনে আরা লুৎফা ডালিয়া, আইন, বিচার ও সংসদ বিষয়ক সচিব আবু সালেহ শেখ মোঃ জহিরুল হক, অতিরিক্ত সচিব মোস্তাফিজুর রহমান, জেলা প্রশাসক মুহাম্মদ ওয়াহিদুজ্জামান, জেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মমতাজ উদ্দিন আহমেদ, মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি সাফিউর রহমান সফি, রংপুর আইনজীবি সমিতির সভাপতি এডভোকেট আব্দুল কাইউম ও সাধারণ সম্পাদক আব্দুল মালেক।  


মন্তব্য