kalerkantho


জবিতে শিক্ষার্থীর মৃত্যু

আর কোন বন্ধুর লাশ চাই না!

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি   

২০ সেপ্টেম্বর, ২০১৭ ২১:৫৪



আর কোন বন্ধুর লাশ চাই না!

ছবি : কালের কণ্ঠ

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের একাউন্টিং অ্যান্ড ইনফরমেশন বিভাগের চতুর্থ বর্ষের শিক্ষার্থী মোঃ নাঈম খানের সড়ক দুর্ঘটনায় মৃত্যু মেনে নিতে পারছেনা তার সহপাঠী ও পরিবার। হত্যাকারীর বিচার ও নিরাপদ সড়ক এবং জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনের প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেয়ার দাবিতে আজ সকাল ১০টায় বিশ্ববিদ্যালয় শহীদ মিনারের সামনে মানববন্ধনের আয়োজন করেন শিক্ষার্থীরা।

মানববন্ধন শেষে উপাচার্যের কাছে স্মারকলিপি দেয়া হয়।  

'আর কোন বন্ধুর লাশ চাই না' এই স্লোগানে আয়োজিত মানববন্ধনে নিহতের পরিবারের সদস্যসহ উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের শতাধিক শিক্ষার্থী। মানববন্ধনে এনামুল হামিদ বলেন, নিজের চোখের সামনে দেড় বছর আগে মাসুককে (অন্য বন্ধু) চলে যেতে দেখলাম। এবার নাঈমকেও হারালাম। আর কত বন্ধুকে হারাতে হবে জানি না। তবে কি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের জীবনের কোন মূল্য নেই? আমাদের দেখার জন্য কি কেউ নেই। এর যথাযত ব্যবস্থা নেয়া হোক এই একটাই দাবি।  

দেবরাজ নামে অন্য এক বন্ধু বলেন, আমরা শোকাহত, আমরা চাইনা আর কোন বন্ধু ও ভাইয়ের মৃত্যু হোক। বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন এর জন্য যথাযত পদক্ষেপ নেবে এবং সুষ্ঠু তদন্তের মাধ্যমে সঠিক বিচার হবে এই প্রত্যাশা।

নিরাপদ সড়ক আমাদের সবার চাওয়া। এ ব্যাপারে সরকারের সুদৃষ্টি আশা করছি।  

উল্লেখ্য, নিহত নাঈমের গ্রামের বাড়ী নারায়নগঞ্জ জেলার সোনারগাঁও থানার শেখের হাট। তার পিতার নাম মোঃ আতাউর রহমান খান, মায়ের নাম রোকসানা বেগম। গত মঙ্গলবার বিশ্ববিদ্যালয় আসার পথে নারায়নঞ্জের মদনপুর বাসস্ট্যান্ডের কাছে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে একটি কাভার্ড ভ্যান নাঈমকে বহনকারী সিএনজেকে চাপা দিলে সে নিহত হয়।


মন্তব্য