kalerkantho


বাংলাদেশের সাফল্যের কথা প্রচার করতে প্রবাসীদের প্রতি আহবান

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২০ সেপ্টেম্বর, ২০১৭ ১৯:০৪



বাংলাদেশের সাফল্যের কথা প্রচার করতে প্রবাসীদের প্রতি আহবান

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যুক্তরাষ্ট্র ও অন্যান্য দেশে বসবাসকারী প্রবাসী বাংলাদেশীদের প্রতি দেশের সাফল্যের কথা ব্যাপকহারে প্রচারের আহ্বান জানিয়েছেন। তিনি তাঁর সম্মানে আওয়ামী লীগ যুক্তরাষ্ট্র শাখা-এর দেয়া সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে এ আহ্বান জানান।

 

তিনি বলেন, ‘অর্থনৈতিক ও সামাজিক প্রতিটি সূচকে বাংলাদেশ আশাপ্রদ অবস্থান বজায় রেখেছে এবং দেশটি এখন বিশ্বে একটা মর্যাদার আসনে রয়েছে। এই বিষয়টি বিদেশে তুলে ধরা প্রয়োজন। ’ 

আওয়ামী লীগ সভানেত্রী একই সঙ্গে দলীয় নেতা-কর্মীদের প্রতি আগামী সাধারণ নির্বাচনে আওয়ামী লীগকে ভোট দেয়ার জন্য জনগণকে উৎসাহিত করারও আহ্বান জানান।  

তিনি বলেন, ‘আপনারা দেশে যান এবং আমাদের উন্নয়নের কথা প্রচার করুন। আগামী নির্বাচনে আওয়ামী লীগকে ভোট দেয়ার জন্য জনগণকে বুঝাতে আমাদের উন্নয়নমূলক কর্মকান্ডের কথা ব্যাপকভাবে প্রচার করতে আপনাদেরকে তাদের কাছে যেতে হবে। ’ 

গতকাল মেরিয়ট মার্কুইস হোটেল বলরুমে আয়োজিত সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে দলীয় নেতা-কর্মী ছাড়াও বিপুলসংখ্যক প্রবাসী বাংলাদেশী এতে অংশ নেন। শেখ হাসিনা এখানে বলেন, ‘তাঁর সরকারের প্রধান শক্তি জনগণের সমর্থন এবং জনগণই আওয়ামী লীগের মূল প্রেরণা। ’

তিনি বলেন, প্রবাসী বাংলাদেশীরা সর্বদা সকল সংকটে তাঁর পাশে দাঁড়িয়েছে। তাছাড়া তারা অর্থনীতির চাকা সচল রাখতে তাদের অবদান অব্যাহত রেখেছে।

৭২তম জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের অধিবেশনে অংশ নিতে তিনি এখন নিউইয়র্ক অবস্থান করছেন।  

শেখ হাসিনা বলেন, ‘তারা (প্রবাসীরা) মুক্তিযুদ্ধকালে এবং দেশের সকল সংকটময় মুহূর্তে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রেখেছেন। ’ এ সময় তিনি সুনির্দিষ্টভাবে ১৯৭১ সালে স্বাধীনতার পক্ষে আন্তর্জাতিক জনমত গড়ে তোলা এবং বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের বিরুদ্ধে আগরতলা ষড়যন্ত্র মামলার চলাকালে তাঁর পাশে অবস্থানের বিষয়ে তাদের ভূমিকার কথা স্মরণ করেন।  

শেখ হাসিনা সাম্প্রদায়িক অতীতে অথ্যাৎ ২০০৭ সালে সেনাবাহিনী কর্তৃক ক্ষমতা দখল এবং বিদেশ থেকে তাঁর স্বদেশ প্রত্যাবর্তন প্রতিরোধ প্রচেষ্টাকালে অনেক প্রবাসী অত্যন্ত সাহসিকতা দেখিয়েছেন।  

তিনি আরো বলেন, ‘আপনাদের অনেকেই শাসকদের রক্তচক্ষু উপেক্ষা করেছেন এবং সে সময় দেশে ফেরার পথে আমার সঙ্গে ছিলেন।  

প্রধানমন্ত্রী জনগণের কল্যাণে অবদান রাখার জন্য তাদের ধন্যবাদ জানান।  

সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন প্রধানমন্ত্রীর ছেলে ও আইসিটি বিষয়ক উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন আওয়ামী লীগ যুক্তরাষ্ট্র শাখার সভাপতি সিদ্দিকুর রহমান।  


মন্তব্য