kalerkantho


সিপিবি'র সমাবেশে নেতৃবৃন্দ

অযৌক্তিকভাবে বিদ্যুতের মূল্য বৃদ্ধির পাঁয়তারা রুখে দাঁড়ান

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৭ ০১:০৬



অযৌক্তিকভাবে বিদ্যুতের মূল্য বৃদ্ধির পাঁয়তারা রুখে দাঁড়ান

অযৌক্তিভাবে বিদ্যুতের মূল্যবৃদ্ধির পাঁয়তারার প্রতিবাদে সকলকে রুখে দাঁড়ানোর আহ্বান জানিয়েছেন বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি (সিপিবি) নেতৃবৃন্দ। নেতৃবৃন্দ বিদ্যুতের মূল্যবৃদ্ধির জন্য দায়ী রেন্টাল-কুইক রেন্টাল বাতিল করে বিদ্যুতের মূল্য কমানোর জন্য গণশুণানীর আয়োজনের জন্যও সরকারের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন।

 

মঙ্গলবার বিকেলে সিপিবি ঢাকা কমিটি আয়োজিত সমাবেশে নেতৃবৃন্দ এ আহ্বান জানান।

ঢাকা কমিটির সভাপতি মোসলেউদ্দিনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সমাবেশে বক্তৃতা করেন সিপিবি ঢাকা কমিটির সম্পাদকমণ্ডলীর সদস্য কাজী রুহুল আমিন, খান আসাদুজ্জামান মাসুম, সদস্য আখতার হোসেন, জুলফিকার আলী, মুর্শিকুল ইসলাম শিমুল প্রমূখ।

সমাবেশে সিপিবি কেন্দ্রীয় কমিটির সম্পাদক রুহিন হোসেন প্রিন্স বলেন, দাম বাড়ানোর জন্য সরকারকে কমিশন গঠন করে গণশুনানী করে তথ্য-প্রমাণ দিতে হয়। কিন্তু কোন গণশুনানীতেই তারা তথ্যপ্রমাণ হাজির করতে পারেনি। প্রতিবারই গণশুনানীর নামে সরকার নাটক করে চলেছে। বিইআরসিকে ঠুটো জগন্নাথ বানানো হয়েছে।  

তিনি আরও বলেন, গণশুনানীর পূর্বে প্রতিমন্ত্রী কিভাবে দাম বাড়ানোর কথা বলেন? সরকার বিদ্যুৎ বিক্রি করে যে ১০ হাজার কোটি টাকা লাভ করেছে সেই টাকা কোথায় ব্যয় করা হচ্ছে? আন্তর্জাতিক বাজার দরে তেল কিনলে বিদ্যুতের দাম কমানো সম্ভব উল্লেখ করে তিনি বলেন, পিডিবিকে বিপিসি থেকে সরাসরি আন্তর্জাতিক দরে তেল কিনার আহ্বান জানান।  

ঢাকা কমিটির সাধারণ সম্পাদক ডা. সাজেদুল হক রুবেল বলেন, এমনিতেই গ্যাস, বিদ্যুৎ, পানির দাম সাধারণ মানুষের ক্রয়সীমার বাইরে। তার ওপরে আবার সরকার অযৌক্তকভাবে বিদ্যুতের দাম বাড়ানোর পাঁয়তারা চালিয়ে যাচ্ছে।

তিনি আরো বলেন, অচল ৭৫ ভাগ টারবাইন সচল করার মাধ্যমেই বিদ্যুতের দাম কমানো সম্ভব। সব কিছুর দাম বেড়েছে কিন্তু মানুষের মূল্য কমেছে। তিনি বামপন্থীদের নেতৃত্বে পাড়ায়-মহল্লায় এসব অন্যায়ের বিরুদ্ধে তীব্র আন্দোলন গড়ে তোলার আহ্বান জানান। সমাবেশ শেষে বিক্ষোভ মিছিল নগরীর বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে।


মন্তব্য