kalerkantho


বন্যার কারণে কুড়িগ্রামের ভোটার নিবন্ধন কার্যক্রম স্থগিত

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২১ আগস্ট, ২০১৭ ১৭:৪৫



বন্যার কারণে কুড়িগ্রামের ভোটার নিবন্ধন কার্যক্রম স্থগিত

বন্যার কারণে কুড়িগ্রাম জেলার ভোটার তালিকা হালনাগাদের নিবন্ধন কার্যক্রম স্থগিত রেখেছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)।

নির্বাচন কমিশন সচিবালয়ের পরিচালক (জনসংযোগ) এস এম আসাদুজ্জামান আরজু বলেন, গতকাল থেকে সারাদেশে নতুন ভোটারদের নিবন্ধন ও ছবি তোলার কার্যক্রম শুরু হয়েছে।

তবে বন্যা কবলিত কুড়িগ্রামে নিবন্ধন কার্যক্রম স্থগিত করা হয়েছে। আগামী ২৫ আগস্ট থেকে সেখানে নিবন্ধন শুরু হবে।  

বন্যা পরিস্থিতির উন্নতি না হলে আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা নতুন তারিখ ঠিক করবেন বলে তিনি জানান।

আসাদুজ্জামান জানান, বাড়ি বাড়ি গিয়ে ভোটার তালিকা হালনাগাদের তথ্য সংগ্রহের কাজ শেষ হওয়ার পর রোববার থেকে প্রথম পর্যায়ে সংশ্লিষ্ট নিবন্ধন কেন্দ্রে নাগরিকদের ভোটার নিবন্ধন কার্যক্রম চলছে। কখন কোন এলাকায় নিবন্ধন কার্যক্রম চলবে তা এলাকায় মাইকিং করে জানানো হচ্ছে। এছাড়া হেল্প লাইন- ১০৫ নম্বরে ফোন করেও এ সংক্রান্ত তথ্য জানা যাবে বলে তিনি জানান।  

তিনি আরো জানান, ২০০০ সালের ১ জানুয়ারি বা তার আগে যাদের জন্ম এবং ভোটারযোগ্য হওয়া সত্ত্বেও যারা ইতোপূর্বে ভোটার হতে পারেননি এবার হালনাগাদে তাদের ভোটার করা হচ্ছে। ভোটার তালিকা হালনাগাদের জন্য ২৫ জুলাই থেকে ৯ আগস্ট পর্যন্ত বাড়ি বাড়ি গিয়ে ভোটার হওয়ার যোগ্য ব্যক্তিদের তথ্য সংগ্রহ করা হয়েছে।

যেসব বাসায় তথ্য সংগ্রহকারী যাননি বা তথ্যসংগ্রহকারী তথ্য সংগ্রহের সময় যারা বাদ পড়েছেন তারাও নিবন্ধন কেন্দ্রে গিয়ে ভোটার হতে পারবেন উল্লেখ করে তিনি বলেন, সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিকে জন্মনিবন্ধন সার্টিফিকেট ও সংশ্লিষ্ট দলিলাদিসহ নিবন্ধন সেন্টারে যেতে হবে।

তিনি জানান, নিবন্ধন সেন্টারে সংশ্লিষ্ট এলাকার তথ্য সংগ্রহকারী ও সুপারভাইজার উপস্থিত থাকবেন। তাদের সাথে সাক্ষাৎ করে ভোটার হওয়ার ২নং ফরম পুরণ করতে হবে।  

নির্বাচন কমিশন সূত্র জানায়, সারাদেশে তিন ধাপে নিবন্ধন কার্যক্রম চলবে। প্রথম পর্যায়ে ২০ আগস্ট থেকে ১৫ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত ১৮৩টি উপজেলায়, দ্বিতীয় পর্যায়ে ১৬ সেপ্টেম্বর থেকে ১৩ অক্টোবর পর্যন্ত ২১৬টি উপজেলায় এবং তৃতীয় ও শেষ পর্যায়ে ১৪ অক্টোবর থেকে ৫ নভেম্বর পর্যন্ত ১১৮টি উপজেলায় নিবন্ধন কাজ চলবে।

ঘোষিত কর্মসূচি অনুযায়ী, ২৫ নভেম্বর থেকে ১৫ ডিসেম্বর পর্যন্ত মৃত ভোটারদের নাম বিদ্যমান তালিকা থেকে বাদ দেয়া হবে। ২ জানুয়ারি খসড়া ভোটার তালিকা প্রকাশের পর দাবি-আপত্তি-নিষ্পত্তি শেষে ৩১ জানুয়ারি চূড়ান্ত ভোটার তালিকা প্রকাশ করবে কমিশন।
ইসির তথ্য মতে, দেশে বর্তমানে প্রায় ১০ কোটি ১৮ লাখ ভোটার রয়েছে। ভোটার তালিকা হালনাগাদে এবার ২৪ লাখ ৩৭ হাজার ৩৩১ জনের তথ্য সংগ্রহ করেছে নির্বাচন কমিশন।


মন্তব্য