kalerkantho


ঈদ উপলক্ষে বিশেষ নিরাপত্তামূলক ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২০ আগস্ট, ২০১৭ ২১:১৫



ঈদ উপলক্ষে বিশেষ নিরাপত্তামূলক ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান ঈদের প্রাক্কালে মহাসড়কগুলোতে যানজট এড়াতে ২৮ আগস্ট থেকে কয়েক ধাপে শ্রমিকদের ঈদের ছুটি দেওয়ার জন্য কারখানা মালিকদের পাশাপাশি বিজিএমইএ, বিকেএমইএ ও এফবিসিসিআই নেতৃবৃন্দের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন।

রবিবার ঈদকে সামনে রেখে আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ে ব্যবসায়ী নেতৃবৃন্দ ও কারখানা মালিকদের সঙ্গে বৈঠকের পর স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী তার মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে সাংবাদিকদের বলেন, আমরা তৈরি পোশাক খাতের শ্রমিকদের বেতন-ভাতা নিয়ে কারখানা মালিক ও ব্যবসায়ী নেতৃবৃন্দের সঙ্গে আলোচনা করেছি।

শ্রমিকরা যাতে করে ঈদ উদযাপন করতে পারে সেজন্য ঈদের আগেই তাদের বেতন-ভাতা পরিশোধ করার জন্য আমরা মালিকদের অনুরোধ করেছি।

এ সময় পুলিশের মহাপরিদর্শক একেএম শহীদুল হক, মন্ত্রণালয়ের নিরাপত্তা বিভাগের সচিব ডঃ কামাল উদ্দিন আহমেদ, বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি)’র মহাপরিচালক মেজর জেনারেল আবুল হোসেন, বাংলাদেশ কোস্ট গার্ডের মহাপরিচালক রিয়ার এডমিরাল আওরঙ্গজেব চৌধুরী, বাংলাদেশ আনসার ও ভিডিপি’র মহাপরিচালক মেজর জেনারেল শেখ পাশা হাবিব উদ্দিন, অতিরিক্ত আইজিপি ডঃ জাভেদ পাটোয়ারি, র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব)-এর মহাপরিচালক বেনজির আহমেদ এবং মন্ত্রণালয়ের অন্যান্য কর্মকর্তারা বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন।

মন্ত্রী বলেন, মানুষ যেন নির্বিঘ্নে ও শান্তিপূর্ণভাবে পবিত্র ঈদ-উল-আজহা উদ্যাপন করতে পারে সেজন্য সরকার দেশব্যাপী বিশেষ নিরপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে।

তিনি বলেন, চাঁদাবাজি বন্ধে এবং চামড়া ছিনতাই ও পাচার রোধে প্রয়োজনীয় ওয়াট টাওয়ার, সিসিটিভি ক্যামেরা ও চেক পোস্ট স্থাপন করা হবে। ঈদের সময় সব ধরনের অপরাধমূলক তৎপরতা বন্ধে মহাসড়ক পুলিশ, নৌপুলিশ, কোস্টগার্ড, র‌্যাব ও আনসার তাদের টহল জোরদার করবে।

আসাদুজ্জামান খান বলেন, মহাসড়কগুলোর কাছেই ১৩০টি পশুর হাট ও ২২৬টি ছোট হাট (হাট-বাজার) বসানো হয়েছে। আইন প্রয়োগকারী সংস্থার সদস্যরা মহাসড়কের পাশে কোন ধরনের পশুর হাট বা হাট-বাজার বসতে দেবে না। যানজট এড়াতে ঈদের তিন দিন আগে থেকে ওষুধ, খাবার ও পশুবাহী ট্রাক ছাড়া সড়ক ও মহাসড়কগুলোতে অন্য কোন যানবাহন চলাচল করতে দেয়া হবে না। ওই সময়ে বালুবোঝাই জলযানও চলাচল করতে দেয়া হবে না।

মন্ত্রী বলেন, অজ্ঞানপার্টির সদস্যদের সনাক্ত করতে ও ছিনতাই প্রতিরোধে অস্থায়ী পশুর হাটগুলোতে সিসিটিভি ক্যামেরা বসানো হবে। বাংলাদেশ ব্যাংক পশুর হাটগুলোতে জালনোট সনাক্তকরণ মেশিন সরবরাহ করবে।

রাজধানীতে ঈদ উপলক্ষে ২৩টি অস্থায়ী পশুর হাট বসানো হবে।

মন্ত্রী নিশ্চিত করেন, ঈদে ঘরমুখী মানুষের জন্য লঞ্চ ও বাসগুলোতে অতিরিক্ত যাত্রী বহন করা যাবে না। মুসলমানদের দ্বিতীয় বৃহত্তম ধর্মীয় উৎসব উপলক্ষে ঘরমুখী মানুষের নিরাপদ যাত্রা নিশ্চিত করতে সরকার পদক্ষেপ নিয়েছে। নির্বিঘ্নে ঈদ উদ্যাপনের নিশ্চিত করার জন্য এ সময়ে বাস টার্মিনাল, নৌবন্দর, ফেরীঘাট ও রেলস্টেশনসহ গুরুত্বপূর্ণ স্থানে র‌্যাব, পুলিশ ও বিভিন্ন গোয়েন্দা সংস্থাগুলোর সদস্যরা ইউনিফর্মের পাশাপাশি সাদা পোশাকে মোতায়েন থাকবে বলে উল্লেখ করেন তিনি।


মন্তব্য