kalerkantho


বঙ্গবন্ধু মেডিক্যালে চিকুনগুনিয়া ও আর্থাইটিস ক্লিনিক চালু

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৩ আগস্ট, ২০১৭ ২০:১৯



বঙ্গবন্ধু মেডিক্যালে চিকুনগুনিয়া ও আর্থাইটিস ক্লিনিক চালু

চিকুনগুনিয়ায় আক্রান্ত রোগীদের উপযুক্ত ও বিজ্ঞানসম্মত চিকিৎসেবা প্রদানের লক্ষ্যে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ে চালু হলো চিকুনগুনিয়া ও আর্থাইটিস ক্লিনিক। এখন থেকে রিউম্যাটোলজি বিভাগের পরিচালনায় বহির্বিভাগ ভবন-১-এর ৪১০নং কক্ষে প্রতি শনিবার থেকে বৃহস্পতিবার পর্যন্ত প্রতিদিন সকাল ৯টা থেকে দুপর ১টা পর্যন্ত ওই ক্লিনিকে সংশ্লিষ্ট রোগীরা চিকিৎসা সেবা নিতে পারবে।

আজ রবিবার এই ক্লিনিক উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিএসএমএমইউর উপাচার্য অধ্যাপক ডা. কামরুল হাসান খান। অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন উপ-উপাচার্য অধ্যাপক  ডা. মো.  শহীদুল্লাহ সিকদার, অধ্যাপক ডা. মো. শারফুদ্দিন আহমেদ, মেডিসিন অনুষদের ডিন অধ্যাপক  ডা. এবিএম আবদুল্লাহ, মেডিসিন বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক  ডা. মো. আব্দুর রহিম, ভাইরোলজি বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ডা. শাহিনা তাবাসসুম, ফিজিক্যাল মেডিসিন এন্ড রিহ্যাবিলিটেশন বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ডা. শামসুন নাহার, শিশু বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ডা. শাহানা আখতার রহমান  প্রমুখ।

চিকুনগুনিয়ার চিকিৎসা বিষয়ে বিস্তারিত আলোচনা করেন রিউম্যাটোলজি বিভাগের অধ্যাপক ও  এশিয়া প্যাসিফিক লিগ অফ অ্যাসোসিয়েশন ফর রিউম্যাটোলজির (অ্যাপলার) সভাপতি অধ্যাপক ডা. সৈয়দ আতিকুল হক, রিউম্যাটোলজি বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ডা. মিনহাজ রহিম চৌধুরী, বাংলাদেশ রিউম্যাটোলজি সোসাইটির মহাসচিব অধ্যাপক নজরুল ইসলাম প্রমুখ।  

অধ্যাপক ডা. মিনহাজ রহিম চৌধুরী বলেন, চিকুনগুনিয়ায় আক্রান্তদের প্রায় ৮৫ শতাংশই পরবর্তীতে কোনো না কোনো ধরনের আর্থাইটিসে ভোগেন। তাদের উন্নত চিকিৎসা প্রদানে এই ক্লিনিকটি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে।  

অধ্যাপক ডা. কামরুল হাসান খান বলেন, চিকুনগুনিয়া বিষয়ে সচেতনতা সৃষ্টিতে এ বছর গণমাধ্যমগুলো গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখেছে। এ বিষয়ে সংশ্লিষ্ট মাল্টি ডিসিপ্লিনারি বিভাগ, উয়িং-এর সমন্বয়ে প্রয়োজনীয় গবেষণার উদ্যোগ নেয়া হবে। তিনি মশক নিধন কার্যক্রম আরো জোরদার করার আহ্বান জানান।


মন্তব্য