kalerkantho


রাজধানীতে গৃহবধূর হাত-মুখ বাঁধা মরদেহ উদ্ধার

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৯ জুন, ২০১৭ ২২:৪৩



রাজধানীতে গৃহবধূর হাত-মুখ বাঁধা মরদেহ উদ্ধার

রাজধানীর কদমতলী থানার নামা শ্যামপুরের এক বাসা থেকে এক গৃহবধূর হাত-মুখ বাঁধা লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। নিহতের নাম পারুল বেগম (২৬)।

আজ সোমবার দুপুরে নামা শ্যামপুর বড় মসজিদের পাশে ভুট্টুর বাড়ির চতূর্থ তলার ফ্ল্যাট থেকে পারুলের মৃতদেহ উদ্ধার করা হয় বলে জানান কদমতলী থানার পরিদর্শক (অপারেশন্স) মো. সাইফুল ইসলাম।

নিহত পারুলের বাড়ি বাগেরহাটের কচুয়ায়। তার স্বামী বাদল একটি বেরসকারি প্রতিষ্ঠানের গাড়িচালক।

সাইফুল ইসলাম বলেন, “হাত-মুখ ওড়না ও গেঞ্জি দিয়ে বাঁধা অবস্থায় পাওয়া যায় পারুলকে। তাকে শ্বাসরোধে হত্যা করা হয়েছে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে। ”

তিনি আরো বলেন, স্ত্রী মারা যাওয়ার খবর পেয়ে বাসায় ফেরেন বাদল। বাদলকে থানায় নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করছে পুলিশ।

পুলিশ জানায়, ময়নাতদন্তের জন্য পারুলের লাশ স্যার সলিমুল্লাহ মেডিকেল কলেজ মর্গে পাঠানো হয়েছে।

এদিকে পেশার কারণে স্বামী বাদল মাঝে-মধ্যে রাতে বাসায় ফিরতেন না বলে জানান পারুলের বাবা সুলতান খান। তিনি বলেন, ছয় বছর আগে বাদল ও পারুলের বিয়ে হয়। তাদের সংসারে কোনো সন্তান ছিল না। তবে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে কোনো ঝগড়ার কথাও তিনি শোনেননি।

মেয়েকে হত্যার কারণ কী হতে এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, “আমি গ্রামের বাড়ি বাগেরহাটে থাকি। তাই কে হত্যা করতে পারে আমার মেয়েকে, বুঝতে পারছি না। ”


মন্তব্য