kalerkantho


'বিএনপি নেতারা হাওরে গিয়েছিলেন ফটোসেশন করতে'

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৮ মে, ২০১৭ ২১:২৫



'বিএনপি নেতারা হাওরে গিয়েছিলেন ফটোসেশন করতে'

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, বিএনপি নেতারা হাওর অঞ্চলের দুর্গত মানুষের পাশে ত্রাণ নিয়ে না দাঁড়িয়ে সরকারের সমালোচনা করছেন। তাদের দলের চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া হাওরে গিয়েছেন? 

তিনি বলেন, বিএনপি নেতারা ঢাকা বসে এতো বড় বড় কথা বলছেন।

তাদের নেত্রী (খালেদা জিয়া) কি একবারো হাওরে গিয়েছেন?

ওবায়দুল কাদের আজ বৃহস্পতিবার বিকেল ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রী হল শাখার ছাত্রলীগ নেতাদের সঙ্গে এক মতবিনিময়ে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন। রাজধানীর ইউরো আসিয়ানো রমনা গ্রিন রেস্তোরাঁয় এ মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়।  

ওবায়দুল কাদের বলেন, বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর একবার হাওর অঞ্চলে গিয়েছিলেন। তিনি দুর্গত মানুষের কোনো সাহায্য দেননি। যারা সেখানে সাহায্য নিতে এসেছিল তারা খালি হাতে ফিরে গেছেন। আসলে তিনি গিয়েছিলেন সেখানে ফটো সেশনের জন্য। এর পর ঢাকায় এসে এটা নিয়ে বড় বড় কথা বলছেন। তাদের নেত্রী কি একবার গিয়েছিলেন? 

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, বিএনপি যে গণতন্ত্রের কথা বলে, আসলে তাদের মুখে গণতন্ত্রের বুলি ‘ভূতের মুখে রাম নাম’। তারা বহুদলীয় গণতন্ত্রের বলে।

তাদের বহুদলীয় গণতন্ত্র ছিলো রাতের বেলায় কারফিউ আর দিনের বেলা খাল কাটা।  

তিনি বলেন, ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারির নির্বাচন তারা বর্জন করল গণতন্ত্র উদ্ধার করবে বলে। তখন তারা কত মানুষ পুড়িয়ে মারল। তারা ১৬৫ জন মানুষকে পুড়িয়ে হত্যা করল। অগ্নিসংযোগ ও ভাঙচুর করে ধ্বংসাত্মক কর্মকান্ড চালালো। এটা কি বিএনপির গণতন্ত্র? পেট্রোল বোমা দিয়ে মানুষ মারা কি তাদের গণতন্ত্র? তাদের গণতন্ত্র আসলে মেজিকের তাস। কথায় কথায় রং বদলায়।  

ছাত্রলীগ নেতাদের উদ্দেশ্যে ওবায়দুল কাদের বলেন, ছাত্রলীগের নেতাদের মেধা, বুদ্ধি, যোগ্যতা, দক্ষতা দিয়ে তাদের আকর্ষণীয় হতে হবে। ছাত্রলীগের নেতাকর্মীদের এমন কিছু করা যাবে না যাতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অর্জন নষ্ট হয়।  

এ মতবিনিময় সভায় আওয়ামী লীগের শিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক সামছুন্নাহার চাপা, কার্যনির্বাহী সদস্য মারুফা আক্তার পপি, ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক এসএম জাকির হোসেন প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।  


মন্তব্য