kalerkantho


কেরানীগঞ্জে সড়কের পাশ থেকে যুবকের লাশ উদ্ধার

কেরানীগঞ্জ (ঢাকা) প্রতিনিধি    

১৮ মার্চ, ২০১৭ ২১:৫৮



কেরানীগঞ্জে সড়কের পাশ থেকে যুবকের লাশ উদ্ধার

কেরানীগঞ্জ-দোহার-নবাবগঞ্জ সড়কের শাক্তা উইনিয়নের রামেরকান্দা প্রহরীভিটা এলাকা থেকে এক যুবকের রক্ত মাখা লাশ উদ্ধার করেছে থানা পুলিশ। নিহতের নাম মোঃ জহুরুল মিয়া (২৮)। পুলিশ নিহতের লাশ উদ্ধার করে সুরতালহাল রিপোর্ট শেষে ময়না তদন্তের জন্য স্যার সলিমুল্লাহ মেডিক্যেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করেছে।

নিহতের বড় ভাই শাহেনুর জানান, নিহত যুবক তার ছোট ভাই মোঃ জহিরুল মিয়া। তাদের  গ্রামের বাড়ি কেরানীগঞ্জ মডেল থানাধীন কলাতিয় ইউনিয়নের দক্ষিণ বেলনা এলাকায়। তার পিতার নাম মোঃ খালেক মিয়া। সে নিজ বাড়ির পাশে চায়না বেগমের ভাড়াটে বাড়িতে স্ত্রী সন্তান নিয়ে বসবাস করতেন।  

গতকাল শুক্রবার একই এলাকার তার ফুপাত ভাইয়ের ছেলে (ভাতিজা) শাহিন এর বিয়ের অনুষ্ঠানে স্ত্রী-সন্তান নিয়ে অংশ গ্রহণ করে জহিরুল। পরে সেখানে থেকে অনুষ্ঠান শেষে বাড়ি চলে আসে। এরপর সন্ধ্যায় বাড়ি থেকে বের হয়ে নিখোঁজ থাকে।  

সে পেশায় একজন দিন মুজুর।

রাজধানীর গুলিস্তান এলাকায় ট্রাকে লেবারের কাজ করতেন। জহিুরুল সাত ভাই বোনের মধ্যে সবার ছোট। নিহতের স্ত্রীর নাম রোজিনা বেগম (২০) তার জুনায়েত নামের ২ বছরের একটি ছেলে রয়েছে।

কেরানীগঞ্জ মডেল থানার উপ পরিদর্শক ইলিয়াস হোসেন জানান, লোক মুখে সংবাদ পেয়ে শনিবার ১২টায় শাক্তা ইউনিয়নের রামেরকান্দা প্রহরীভিটা এলাকায় থেকে প্রথমে আমরা অজ্ঞাত একটি লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের উদ্যোশে থানায় নিয়ে আসি।  

পরে নিহতের বড় ভাই শাহেনুর মিয়াসহ স্বজনরা থানায় এসে জহিরুলের লাশ সনাক্ত করেন। লাশের মুখমণ্ডল রক্তমাখা। লাশের দুটি চোখের উপর ও গালে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। লাশের পাশ থেকে দুই জোরা জুতা ও একটি স্ক্র ড্রাইবার পাওয়া গেছে।

কেরানীগঞ্জ মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সাকের মোঃ জুবায়ের জানান, অজ্ঞাত সন্ত্রাসীরা যুবকটিকে হত্যা করে রামেরকান্দা প্রহরীভিটা নামকস্থানে ফেলে গেছে। কে বা কারা কি কারনে হত্যা হয়েছে এখনো জানা যায়নি। এ ব্যাপারে থানায় হত্যা মামলা দায়ের করার প্রস্তুতি চলছে।  


মন্তব্য