kalerkantho


যেভাবে আগুন লাগে কড়াইল বস্তিতে

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৭ মার্চ, ২০১৭ ০৩:৩৫



যেভাবে আগুন লাগে কড়াইল বস্তিতে

ধ্বংসস্তূপে পরিণত হয়েছে রাজধানীর কড়াইল বস্তির বৌ-বাজার এলাকা। আগুনে পুড়ে ছাই হয়ে গেছে দুই হাজারের বেশি ঘর।

সব হারিয়ে নিঃস্ব এখন কড়াইল বস্তিবাসী। পরনের কাপড়টুকুই তাদের সম্বল। তিলে তিলে গড়ে তোলা তাদের এসব বাড়ি-ঘর, দোকান, আসবাবপত্র ও জমানো টাকা-পয়সা কোনো কিছুই আগুনের হাত থেকে বাঁচাতে পারেননি।

স্থানীয়দের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, দোতলা বাড়ির রান্নাঘর থেকেই এই আগুন লাগে। ওই দোতলা বাড়ির মালিকের নাম আব্দুল মান্নান। বাড়িটির নিচতলা ইট সিমেন্টের এবং তার উপরে টিনশেডের ঘর। পুরো বাড়িতে ঘর রয়েছে ১৩টি।

সরেজমিনে ঘুরে ও বস্তির একাধিক বাসিন্দার সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, আব্দুল মান্নানের বাড়ির দোতলা থেকে আগুনের সূত্রপাত ঘটে। এদিকে, রুহুল আমিন নামে এক বাস্তিন্দা জানান, ওই ঘরের দোতলায় রাতে মশার কয়েল জ্বালানো ছিল।

সেখান থেকে আগুন লেগে থাকতে পারে।

জানা গেছে, বেশ কিছুদিন আগেই বাড়ির মালিক আব্দুল মান্নান ও তার স্ত্রী খাদিজা বেড়াতে গিয়েছিলেন লক্ষ্মীপুরের রামগঞ্জে। আর বাড়িতে ছিল তাদের বড় মেয়ে। রাতে মোবাইল ফোনে আগুনের খবর পান তিনি। আগুনে পুরে ছাই হয়ে যাওয়া নিজের বাড়িটি দেখে আহাজারি করতে থাকেন তিনি।

এই অগ্নিকাণ্ডের ঘটনার প্রকৃত কারণ খুঁজতে ফায়ার সার্ভিস অ্যান্ড সিভিল ডিফেন্স কর্তৃপক্ষ তিন সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি করেছে। খুব শিগগিরই এই কমিটিকে তদন্ত প্রতিবেদন জমা দিতে বলা হয়েছে।


মন্তব্য