kalerkantho


তিস্তা চুক্তি চুড়ান্ত হওয়ার অপেক্ষায় বাংলাদেশ : পানিসম্পদ মন্ত্রী

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৫ মার্চ, ২০১৭ ২২:৪০



তিস্তা চুক্তি চুড়ান্ত হওয়ার অপেক্ষায় বাংলাদেশ : পানিসম্পদ মন্ত্রী

পানিসম্পদ মন্ত্রী ব্যারিস্টার আনিসুল ইসলাম মাহমুদ বলেছেন, তিস্তার পানি বন্টন প্রশ্নে এবার ভারত তার আগের প্রতিশ্রুতি অনুযায়ী চুক্তিটি চুড়ান্ত করবে। তাই বাংলাদেশ চুক্তিটি চুড়ান্ত হওয়ার অপেক্ষায়। এর আগে ভারতের দুই প্রধানমন্ত্রী (মনমোহন সিংহ ও নরেন্দ্র মোদি) বলেছিলেন তিস্তার পানি বন্টন চুক্তিটি খসড়া করা আছে, তা পরবর্তীতে চুড়ান্ত রূপ নেবে। আজ বুধবার রাজধানীর সিরডাপ মিলনায়তনে “ওর্য়াকশপ অন এসেসমেন্ট অব দ্যা স্ট্যাট অফ ওয়াটার রিসোর্সেস” শীর্ষক অনুষ্ঠানে সাংবাদিকদের তিনি এ কথা বলেন।

পানি সম্পদ মন্ত্রী বলেন, এটা ভারতের দুই প্রধানমন্ত্রীর ব্যক্তিগত প্রতিশ্রুতি ছিলো না তা ছিলো জনগণের সামনে প্রদত্ত প্রতিশ্রুতি।

প্রধানমন্ত্রীর আসন্ন ভারত সফরকালে তিস্তা চুক্তির কোন সম্ভাবনা রয়েছে কিনা সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে আনিসুল ইসলাম বলেন, “আমি কোন সময় বেধে দিতে পারি না। তবে আমি বলতে পারি ভারতের কেন্দ্রীয় সরকার তিস্তা চুক্তির ব্যাপারে কাজ করছে ও তারা এ বিষয়ে আন্তরিক। ” 

এ প্রসঙ্গে মন্ত্রী স্বীকার করেন, “যে কোন দেশের অভ্যন্তরীণ রাজনৈতিক পেক্ষাপটে এ ধরনের সমস্যা সৃষ্টি হতে পারে। আমরা সবাই সে সম্পর্কে অবহিত রয়েছি। ”

তিনি আরো বলেন, “অবশ্যই বাংলাদেশ তিস্তার পানির যৌক্তিক ও ন্যায় সঙ্গত দাবির বাস্তবায়ন চায়। এটা আমাদের দেশের কৃষির জন্য শুধু নয়।

নদী রক্ষার জন্য ন্যায্য হিস্যা দরকার। তিস্তা নদীর পানির প্রবাহ বিগত দুই বছর আগে হঠাৎ করে বেশি হ্রাস পেয়েছে। ”

দুই প্রধানমন্ত্রীর বেঠকে তিস্তা ব্যারেজ ইস্যু আলোচনার জন্য কোন এজেন্ডা হিসাবে থাকবে কিনা তা বলতে অস্বীকার করেন পানি সম্পদ মন্ত্রী। তিনি বলেন, “যখন বড় ধরনের কোন আলোচনা দুই দেশের প্রধানমন্ত্রী পর্যায়ে হয়, এজেন্ডার বাইরে অনেক বিষয় সেখানে উঠে আসে। এমনকি সর্বোচ্চ নেতৃত্ব পর্যায়ের আনুষ্ঠানিক বৈঠকের পরেও নিজেদের মধ্যে আলোচনা হয়ে থাকে। ”

কর্মশালায় আইডাব্লিউএম পরিচালক এসএম মাহবুবুর রহমান মূল প্রবন্ধ পাঠ করেন। এতে সভাপতিত্ব করেন ওয়ারপো মহাপরিচালক এমডি সারাফত খান।


মন্তব্য