kalerkantho


দেশের স্বার্থ বিকিয়ে দিয়ে ভারতের সাথে কোনো চুক্তি হবে না : সেতুমন্ত্রী

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১২ মার্চ, ২০১৭ ১৯:৫২



দেশের স্বার্থ বিকিয়ে দিয়ে ভারতের সাথে কোনো চুক্তি হবে না : সেতুমন্ত্রী

দেশের স্বার্থ বিকিয়ে দিয়ে বন্ধুরাষ্ট্র ভারতের সাথে কোনো চুক্তি করা হবে না বলে জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। তিনি বলেন, ‘ভারতের সাথে আমাদের সম্পর্ক ইতিবাচক। সে দেশের সাথে কোন চুক্তি হলে তা জাতীয় স্বার্থেই হবে। দেশের স্বার্থ বিকিয়ে দিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কোনো চুক্তি করবেন না। ’

আজ রবিবার বিকেলে বঙ্গবন্ধু এভিনিউস্থ আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে জাতীয় শ্রমিক লীগ আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন। ঐতিহাসিক ৭ মার্চ উপলক্ষে এই আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়।

ওবায়দুল কাদের বলেন, শেখ হাসিনার ভারত সফরের কথা শুনেই বিএনপি তাদের পুরাতন ভারতবিরোধী ভাঙ্গা রেকর্ড বাজানো শুরু করেছে। শেখ হাসিনাতো ভারতে এখনও যাননি। যাবার আগেই আপনারা বিভিন্ন কথা বলা শুরু করেছেন। আমি স্পষ্টভাবে বলছি, শেখ হাসিনা দেশের স্বার্থ বিকিয়ে দিয়ে কোন চুক্তি করবেন না।

বিএনপি ভেতরে ভেতরে আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনের প্রস্তুতি নিচ্ছে জানিয়ে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, তারা উপরে উপরে বলছে, শেখ হাসিনার অধীনে নির্বাচনে যাবেন না।

কিন্তু তারা তলে তলে নির্বাচনে যাবার প্রস্তুতি শুরু করেছে। আসলে তারা নির্বাচনে যাবে।

আওয়ামী লীগের সহযোগী ও ভ্রাতৃপ্রতিম সংগঠন ছাড়া বঙ্গবন্ধু, বঙ্গবন্ধুর পরিবারের সদস্য এবং আওয়ামী লীগের নামে গড়ে ওঠা বিভিন্ন সংগঠন বন্ধ করার আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, রাজনৈতিক কারণে বিভিন্ন দোকান (সংগঠন) খোলা হয়েছে। এই সকল সংগঠনগুলোর কোন আদর্শ নেই। এদের কাজ চাঁদাবাজি করে বিভিন্ন অনুষ্ঠানের আয়োজন করা এবং টেলিভিশনে চেহারা দেখানো। এইগুলো বন্ধ করতে হবে।

জনগণকে জিম্মি করে কোন ধর্মঘট কাম্য নয় মন্তব্য করে সড়ক পরিবহনমন্ত্রী বলেন, যারা জনগণকে জিম্মি করে ধর্মঘট করে তারা জনগণের বন্ধু হতে পারে না। আন্দোলনের অনেক ভাষা আছে। কর্মসূচি দিলে তা বাস্তবভিত্তিক কর্মসূচি দিতে হবে। শ্রমিকদের নিয়ে অনেক ষড়যন্ত্র হয়। আপনারা কোনো ষড়যন্ত্রে কান দেবেন না।

জাতীয় শ্রমিক লীগের সভাপতি শুক্কুর মাহমুদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় অন্যান্যর মধ্যে বক্তব্য রাখেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর কবির নানক, সাংগঠনিক সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম, শ্রম বিষয়ক সম্পাদক হাবিবুর রহমান সিরাজ এবং শ্রমিক লীগের সাধারণ সম্পাদক সিরাজুল ইসলাম, কার্যকরি সভাপতি ফজলুল হক মন্টু।


মন্তব্য