kalerkantho


স্বাধীনতাবিরোধীদের লেখা বই নিষিদ্ধ করবে সরকার

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১২ মার্চ, ২০১৭ ০৫:৪৭



স্বাধীনতাবিরোধীদের লেখা বই নিষিদ্ধ করবে সরকার

মুক্তিযুদ্ধের বিরোধিতাকারী ও আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালে সাজাপ্রাপ্তদের রচিত সব ধরণের প্রকাশনা নিষিদ্ধ করার পরিকল্পনা করছে সরকার। ‘সমাজে শান্তিভঙ্গ, ধর্ম অবমাননা, মুক্তিযুদ্ধ ও দেশের ইতিহাস বিকৃতি’সহ বেশ কিছু অভিযোগ এনে এক বছরের মধ্যে দেশের স্বাধীনতাবিরোধীদের রচিত বইয়ের প্রকাশনা ও বাজারজাত বন্ধের চিন্তা-ভাবনা শুরু হয়েছে সরকারের উচ্চপর্যায়ে। তবে এ সিদ্ধান্তের পূর্ণ-বাস্তবায়ন আগামী মেয়াদ নাগাদ দেখা যাবে। সরকারের উচ্চপর্যায়ের ঘনিষ্ঠ একাধিক দায়িত্বশীল ব্যক্তি ও গোয়েন্দা সংস্থা সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

স্বাধীনতাবিরোধী লেখকদের বইসূত্র জানায়, সরকারের এই পরিকল্পনা বাস্তবায়িত হলে জামায়াত-শিবিরের পাঠ্যতালিকা, বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে মুক্তিযুদ্ধের বিরোধীতাকারী কবি-সাহিত্যিক-বুদ্ধিজীবীদের রচিত বইও নিষিদ্ধ হয়ে যাবে। পাশাপাশি সংশ্লিষ্ট প্রকাশনা প্রতিষ্ঠানগুলোকেও বাজার থেকে তুলে নিতে হবে অভিযুক্ত গ্রন্থগুলো। জামায়াত-শিবিরসহ উগ্রপন্থী সংগঠনগুলো স্বাধীনতাবিরোধীদের লেখা পড়েই মানসিকভাবে প্রস্তুত হয়। এতে প্রজন্মের পর প্রজন্ম তাদের ভুল ও বিভ্রান্তিমূলক রচনা পড়ে মুক্তিযুদ্ধের বিরুদ্ধে অবস্থান নেয়। এসব বিবেচনা করে স্বাধীনতাবিরোধীদের লেখা নিষিদ্ধ করবে সরকার।

মানবতাবিরোধী অপরাধের দায়ে দণ্ডপ্রাপ্তদের লেখা গ্রন্থ সহজে খুঁজে বের করা গেলেও একাত্তরের বিতর্কিত লেখক-কবি-সাহিত্যিক-বুদ্ধিজীবীদের রচিত গ্রন্থ-লেখা চিহ্নিত করা খানিকটা কঠিন হবে বলে মনে করছে একটি সূত্র। এক্ষেত্রে মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস-সম্পর্কিত গ্রন্থের সাহায্য নেওয়ার চিন্তা-ভাবনা চলছে।

পাশাপাশি মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের লেখক-কবি-বুদ্ধিজীবীদের সমন্বয়ে একটি বিশেষ কমিটি করারও পরিকল্পনা করছে সরকার। এই কমিটি মুক্তিযুদ্ধবিরোধী লেখক, বুদ্ধিজীবী, কবি-সাহিত্যিকদের লেখা বের করবেন। এরপর উচ্চপর্যায়ের আরও একটি কমিটি যাছাই-বাছাই করে নিষিদ্ধের সুপারিশ করবে।


মন্তব্য