kalerkantho


১৯ দফা বাস্তবায়নে কাজ করছে ঢাবি ছাত্রলীগ

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি   

৭ মার্চ, ২০১৭ ০২:২৭



১৯ দফা বাস্তবায়নে কাজ করছে ঢাবি ছাত্রলীগ

সাধারণ ছাত্রদের অধিকার আদায়ের লক্ষ্যে ঘোষিত ঢাবি ছাত্রলীগের ১৯ দফা বাস্তবায়নে কাজ করে যাচ্ছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগ। এরই অংশ হিসেবে সোমবার রাতে বিশ্ববিদ্যালয়ের সলিমুল্লাহ মুসলিম হলে ছাত্র-শিক্ষক-কর্মচারীদের সঙ্গে মতবিনিমিয় সভা করেছেন তারা।

এর আগেও একই দাবিতে বিশ্ববিদ্যালয়ের মাস্টার দ্য সূর্যসেন, হাজী মোহাম্মদ মহসিন ও সার্জেন্ট জহুরুল হক হলে গিয়ে হল প্রশাসন ও সাধারণ ছাত্রদের সাথে কথা বলেন ছাত্রলীগ নেতারা।

ছাত্রলীগের ১৯ দফা দাবির মধ্যে রয়েছে, হলগুলোতে মানসম্মত খাবার, শ্রেণিকক্ষে ডিজিটাল যন্ত্রপাতি সরবরাহ করা, সুপেয় পানি ও পয়ঃনিষ্কাশন ব্যবস্থার উন্নয়ন, শিক্ষার্থীদের বিনা মূল্যে বা কিস্তিতে ল্যাপটপ প্রদান ও পুরো বিশ্ববিদ্যালয়কে বিনামূল্যে ইন্টারনেট সংযোগের (ওয়াই-ফাই) ব্যবস্থা করা, আবাসন ও পরিবহন নিশ্চিত করা, গবেষণাগারের উন্নয়ন, মাদক নিয়ন্ত্রণ, আবাসিক হলের পরিবেশ উন্নয়ন, খেলার মাঠ ভাড়া না দেওয়া, যৌন নিপীড়ন বিরোধী সেলের ভূমিকা ত্বরান্বিত করা, দূরত্ব অনুযায়ী রিকশা ভাড়া নির্ধারণ করে দেওয়া।

মতবিনিময় সভায় হল শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি তাহসান আহমেদ রাসেলের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক মেহেদী হাসান তাপসের সঞ্চালনায় সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন হলের প্রাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. মাহবুবুল আলম জোয়ার্দার। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ঢাবি শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি আবিদ আল হাসান ও সাধারণ সম্পাদক মোতাহার হোসেন প্রিন্স প্রমুখ।

অনুষ্ঠানের শুরুতে সাধারণ শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে হলের বিভিন্ন সমস্যা সম্পর্কে শোনেন। পরে হলের ক্যান্টিন ও দোকান মালিকদের সাথে কথা বলে সমস্যাগুলো দ্রুত সময়ের সমাধানের জন্য বলেন।

সভায় আবিদ আল হাসান বলেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগ ডাকসুর ভূমিকায় সাধারণ শিক্ষার্থীদের পাশে থেকে কাজ করে যাচ্ছে, ভবিষ্যতেও যাবে। আমরা কথায় নয়, কাজে বিশ্বাসী। ভালো কাজের মাধ্যমে আমরা নেতা নয়, ভাই হয়ে শিক্ষার্থীদের পাশে থাকতে চায়।

তিনি আরও বলেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসকে মাদকমুক্ত ও বহিরাগত মুক্ত করার জন্য ২০১৭ সালকে ‘মাদকমুক্ত বর্ষ’ হিসেবে ঘোষণা করেছে বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগ। এ ঘোষণা অনুযায়ী কেউ যদি মাদক গ্রহণ বা ব্যবসার সাথে জড়িত থাকে তাহলে তাদেরকে প্রশাসনের হাতে তুলে দিয়ে সাহায্য করার জন্য সাধারণ শিক্ষার্থীদের প্রতি আহবান জানান তিনি।

মোতাহার হোসেন প্রিন্স বলেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের মুল কাজ হলো সাধারণ শিক্ষার্থীদের সমস্যার সমাধান করা। এজন্য আমরা কাজ করে যাচ্ছি। খাবারের মানসহ ১৯ দফা দাবি বাস্তবায়ন করে আমরা আমাদের পূর্বসূরীদের মতো ভালো কাজের ধারা অব্যাহত রাখতে চায় বলে জানান তিনি।

হল প্রাধ্যক্ষ মাহবুবুল আলম জোয়ার্দার বলেন, ইতোমধ্যে হল প্রশাসন সমস্যাগুলো চিহ্নিত করেছে। সমস্যার সমাধান করতে সমস্যার গভীরে যেয়ে কাজ করা হবে। আর একাজ সফল করার জন্য হল প্রশাসনের পাশাপাশি  সাধারণ শিক্ষার্থীদেরও সাহায্য করতে আহবান জানান তিনি।


মন্তব্য