kalerkantho


অগ্নিঝরা মার্চ : জাতীয় পরিষদের অধিবেশন স্থগিত করলেন ইয়াহিয়া

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১ মার্চ, ২০১৭ ১৭:১৭



অগ্নিঝরা মার্চ : জাতীয় পরিষদের অধিবেশন স্থগিত করলেন ইয়াহিয়া

আজ ১ মার্চ। শুরু হলো স্বাধীনতার মাস। ১৯৭১ সালের মার্চ মাসেই শুরু হয়েছিল স্বাধীনতা অর্জনের চূড়ান্ত লড়াই। আজ থেকে ৪৬ বছর আগে এই দিনে পৃথিবীর মানচিত্রে বাংলাদেশের কোনো অস্তিত্ব ছিল না। তখন এটি ছিল পূর্ব পাকিস্তান। কিন্তু আমাদের লালিত স্বপ্ন ছিল একটি স্বাধীন বাংলাদেশ। দীর্ঘকাল ধরে চলতে থাকা নিগ্রহ, শোষণ, বঞ্চনা ও নিপীড়নের নাগপাশ ছিঁড়ে সগর্বে নিজের পায়ে দাঁড়ানোর দুর্মর আকাঙ্ক্ষা ছিল প্রবল।

স্বৈরাচারী সামরিক শাসক জেনারেল ইয়াহিয়া খান ১৯৭১ সালের ১ মার্চ জাতীয় পরিষদের নির্ধারিত অধিবেশন অনির্দিষ্টকালের জন্য স্থগিত করেন। এটি ছিল বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের হাতে ক্ষমতা হস্তান্তর না করার হীন, কূট ষড়যন্ত্র। ইয়াহিয়া খানের ঘোষণার সঙ্গে সঙ্গে তৎকালীন পূর্ব পাকিস্তানের মানুষ ক্রোধে, ক্ষোভে ফুঁসে ওঠে। বঞ্চিত, লাঞ্ছিত, অধিকারহীন মানুষ ফেটে পড়ে বিক্ষোভে।

সবাই রাস্তায় নেমে আসে। এই ষড়যন্ত্রের তীব্র প্রতিবাদ করে। তখন সবার মুখে মুখে বজ্র কণ্ঠে ধ্বনিত হয়- বীর বাঙালি অস্ত্র ধর/বাংলাদেশ স্বাধীন কর।

আজকের এই দিনে স্বাধীন বাংলা ছাত্র সংগ্রাম পরিষদ গঠিত হয়। শুরু হয়ে যায় অসহযোগ আন্দোলন। ১৯৭১ সালের ১ মার্চ ঘর ছাড়া দেশ স্বাধীন না হওয়া পর্যন্ত আর ঘরে ফেরেনি। বিনিময়ে উৎসর্গ করতে হয়েছে অগণিত প্রাণ, হারাতে হয়েছে মা-বোনের সম্ভ্রম। লাখো মানুষের অপরিসীম ত্যাগের বিনিময়ে স্বাধীন হয়েছে আমাদের প্রিয় মাতৃভূমি বাংলাদেশ।

 


মন্তব্য