kalerkantho


আবারো ফিরে এলো ‘জয়বাংলা কনসার্ট’

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২৮ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ২৩:২৪



আবারো ফিরে এলো ‘জয়বাংলা কনসার্ট’

আবারো ফিরে এলো তারুণ্যের জয়গানে মুখর ‘জয় বাংলা কনসার্ট’। গত দুই বছরের মত এবারো ৭ মার্চ রাজধানীর আর্মি স্টেডিয়াম মেতে উঠবে তারুণ্যের জয় গানে।
সেন্টার ফর রিসার্চের (সিআরআই) অঙ্গ প্রতিষ্ঠান দেশের সবচাইতে বড় ইয়ুথ প্লাটফর্ম ‘ইয়ং বাংলা’র আয়োজনে এবারো ৬০ হাজারের বেশি তরুণ-তরুণী মাতবে জয় বাংলা কনসার্টে।
জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ঐতিহাসিক ৭ মার্চের ভাষণের দিনটিকে স্মরণ করে বিগত দুই বছর ধরে এই কনসার্টের আয়োজন করে আসছে ইয়ং বাংলা। কনসার্টের টিকেট এবারো ফ্রি পাওয়া যাচ্ছে এই লিংকে- যঃঃঢ়://ঃরপশবঃ.ুড়ঁহমনধহমষধ.ড়ৎম/
সিআরআই জানিয়েছে, বরাবরের মতই এবারের কনসার্ট মাতাতে মঞ্চে থাকছে দেশের বিখ্যাত ব্যান্ড ওয়ারফেজ, চিরকুট, আর্বোভাইরাস, লালন, ক্রিপটিক ফেট, নেমেসিস, শিরোনামহীন এবং শূন্য।
গত বছর স্টেডিয়ামে এই কনসার্ট উপভোগ করেছে ৬০ হাজার দর্শক। লাইভ টেলিভিশনে কনসার্টটি দেখেছে আরো ৯০ হাজার মানুষ।
বাংলাদেশের ঐতিহাসিক এই দিনটি উদযাপনে হাজার হাজার তরুণ এ বছরও দিনটি উদযাপন করবে বলে এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ করা হয়েছে।
কনসার্টের পাশাপাশি ইয়ং বাংলা দেশের তরুণ সমাজকে সংগঠিত করতে আরো বেশ কিছু উদ্যোগ গ্রহণ করেছে উল্লেখ করে বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ করা হয়, এর মধ্যে একটি উল্লেখযোগ্য উদ্যোগ হলো ‘জয় বাংলা ইয়ুথ অ্যাওয়ার্ড’।
২০১৫ সাল থেকে ইয়ং বাংলার সঙ্গে সম্পৃক্ত তরুণদের দেশের প্রতি আত্মত্যাগের নিরিখে প্রদান করা হচ্ছে এই অ্যাওয়ার্ড। এখন পর্যন্ত ৩০ জন এই অ্যাওয়ার্ড গ্রহণ করেছে।

সেই সঙ্গে এই অ্যাওয়ার্ডের জন্য দেড় হাজার আবেদনের মধ্য থেকে ১৭০ জনকে বিশেষ অবদান রাখার জন্য প্রদান করা হয়েছে সার্টিফিকেট।
এ বছর দ্বিতীয়বারের মত এই অ্যাওয়ার্ড প্রদান করতে যাচ্ছে ইয়ং বাংলা। শিগগিরি ইয়ং বাংলার সদস্যদের কাছ থেকে এ বিষয়ে আবেদন সংগ্রহ করা শুরু হবে বলে সংশ্লিষ্টরা জানিয়েছে।
সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে আরও জানানো হয়েছে, ভিশন ২০২১ ইন্টার্নশিপ স্কিমের অধীনে প্রথমবারের মত ইয়ং বাংলা সুযোগ করে দিয়েছে বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ের অধীনে ইন্টার্নশিপ করার। ২০১৬ সালে এই স্কিম চালুর পর থেকে এখন পর্যন্ত ৫ হাজার জন তরুণ-তরুণীকে বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ের অধীনে ইন্টার্নশিপের মাধ্যমে সরকারি কাজ সম্পর্কে ধারণা প্রদান করতে সক্ষম হয়েছে ইয়ং বাংলা।
বর্তমানে সরকারি মন্ত্রণালয় ছাড়াও মাইক্রোসফটের মত প্রাইভেট প্রতিষ্ঠানেও ইন্টার্ন হিসেবে কাজ করার সুযোগ পেয়েছে ৩৫০ শিক্ষার্থী।
ইয়ং বাংলা এই সব কার্যক্রমের পাশাপাশি ২ লাখ শিক্ষার্থীকে আইটি ক্ষেত্রে দক্ষ করে গড়ে তোলার জন্য কাজ করছে। সরকারের আইসিটি বিভাগকে সঙ্গে নিয়ে দেশব্যাপী ২ লাখ ১০ হাজার স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীদের আইটি ক্ষেত্রে দক্ষ কর্মী হিসেবে গড়ে তোলার কাজ চলছে।
শেখ রাসেল ডিজিটাল ল্যাবের মাধ্যমে দেশের ২০০১টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের প্রত্যেকটিতে দুইজন কো-অর্ডিনেটর এবং ১০ জন স্বেচ্ছাসেবক প্রদানের মাধ্যমে এই কার্যক্রম পরিচালনা করবে ইয়ং বাংলা। আইসিটি বিভাগের সহায়তায় ২৪ হাজার এমন স্বেচ্ছাসেবকদের ল্যাব পরিচালনার জন্য ২০১৮ সাল পর্যন্ত প্রশিক্ষণ প্রদান করবে ইয়ং বাংলা।
সিআরআই জানায়, জেলা পর্যায় থেকে শুরু করে বিভিন্ন সিটি কর্পোরেশন পর্যায়ে আগামী জুনের মধ্যে কো-অর্ডিনেটর ও স্বেচ্ছাসেবকদের এই ট্রেনিং প্রদান করা হবে।


মন্তব্য