kalerkantho


মাদকের দ্বন্দ্বে খুন হয় খোকন

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২৩ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ১২:৪২



মাদকের দ্বন্দ্বে খুন হয় খোকন

শাহবুদ্দিন, সোহেল ও হানিফ চাঁদনী চক মার্কেটের ছাদে বসে ইয়াবা সেবন করছিল। তাদের আরেক সহকর্মী বাবুল মার্কেটের ছাদে নেশা করতে নিষেধ করলে শুরু হয় তাদের মধ্যে দ্বন্দ্ব। সেই দ্বন্দ্ব থেকে শাহবুদ্দিন বাবুলকে ছুরিকাঘাত করে। এ সময় ঘটনাস্থলে উপস্থিত খোকনকেও ছুরিকাঘাত করে সে। শাহবুদ্দিনের ছুরিকাঘাতে আহত বাবুল ব্যাপারী (৩৮) প্রাণে বেঁচে গেলেও নিহত হন খোকন মোল্লা (৩০)। বুধবার বিকেলে রাজধানীর চাঁদনী চক মার্কেটের তৃতীয় তলায় সিজান রেস্টুরেন্টের সামনে বাবুল ও খোকনকে ছুরিকাঘাত করে শাহবুদ্দিন। শাহবুদ্দিন, সোহেল, হানিফ, খোকন, বাবুল প্রত্যেকেই গাউসিয়া মার্কেট এলাকার হকার ব্যবসায়ী। তারা একসঙ্গেই চলাফেরা করতেন।

গাউসিয়া এলাকার ফুটপাতের ব্যবসায়ীরা জানান, সোমবার বিকেলে চাঁদনী চক মার্কেটের ছাদে বসে শাহবুদ্দিন, সোহেল, হানিফসহ কয়েকজন মিলে ইয়াবা সেবন করছিল। এই খবর পেয়ে হকার বাবুল ছাদে গিয়ে তাদেরকে এসব না করার জন্য বলেন। পরে কথা না শুনলে শাহবুদ্দিনকে একটি চড় মারেন বাবুল এবং সেখান থেকে তাদেরকে বের করে দেন।

এদিকে, নিহত খোকনের স্ত্রী মনিরা ঢামেকে জানান, তাদের পিয়া (১২), আছিয়া (৮) ও আনিকা (২) নামে তিন মেয়ে রয়েছে। খোকন তাদের নিয়ে কামরাঙ্গীরচর এলাকায় থাকতেন। কাঁদতে কাঁদতে তিনি বলেন, তিন সন্তানকে নিয়ে আমি কী করব? কই যাব? আমি আমার স্বামীর খুনের বিচার চাই।

ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের ( ডিএমপি) রমনা বিভাগের উপকমিশনার (ডিসি) মারুফ হোসেন সরদার ঘটনাস্থলে বলেন, দোকানের কর্মচারীদের জিজ্ঞাসাবাদের জন্য নিয়ে যাওয়া হয়েছে। সাক্ষী হিসেবে তাদের জবানবন্দি রেকর্ড করা হবে। অভিযুক্ত শাহবুদ্দিনকে আটকের চেষ্টা চলছে বলেও জানান তিনি।

 


মন্তব্য