kalerkantho


পরিচালনা কমিটির নেতৃত্বে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের প্রধানদের চান শিক্ষকরা

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৮ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ১৭:১০



পরিচালনা কমিটির নেতৃত্বে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের প্রধানদের চান শিক্ষকরা

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের প্রধানদের সভাপতি করে পরিচালনা কমিটি গঠনের দাবি জানিয়েছে বাংলাদেশ কলেজ শিক্ষক সমিতি (বাকশিস)। একই সঙ্গে পুরো শিক্ষাব্যবস্থা জাতীয়করণ, সুনির্দিষ্ট নীতিমালার ভিত্তিতে বেসরকারি কলেজ সরকারি করাসহ আরও কিছু দাবি জানিয়েছে সংগঠনটি।

আজ শনিবার রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন মিলনায়তনে বাকশিস এর জাতীয় সম্মেলনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলামের নাহিদের কাছে এই দাবি জানান এ সংগঠনের নেতারা।

উল্লেখ্য, সাধারণত স্থানীয় পর্যায়ের রাজনৈতিক ব্যক্তিরাই বিভিন্ন প্রক্রিয়ায় শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের সভাপতি হন। কিছুদিন আগেও পদাধিকারবলে সর্বোচ্চ চারটি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের সভাপতি হতে পারতেন স্থানীয় সাংসদরা। তবে উচ্চ আদালতের নির্দেশে এই সুযোগ বন্ধ হয়েছে।

শিক্ষক নেতাদের দাবির জবাবে শিক্ষামন্ত্রী বলেন, সম্মেলন থেকে যেসব দাবির সিদ্ধান্ত হবে, সেগুলো তাঁর কাছে দেওয়ার পর তা নিয়ে আলোচনা করবেন।  

শিক্ষকদের জন্য লড়াই করছেন উল্লেখ করে নাহিদ বলেন, তিনি ইচ্ছা করলেই সিদ্ধান্ত নিতে পারেন না। তবে তিনি চেষ্টা করে যাবেন।

প্রধান অতিথির বক্তৃতায় শিক্ষামন্ত্রী আবারও বলেন, তাঁদের সামনে বড় চ্যালেঞ্জ হলো শিক্ষার গুণগত মান অর্জন করা। আর এটা নিশ্চিত করতে পারেন গুণগত মানের শিক্ষকরা।

শিক্ষকদের গুণগত মান বাড়াতে তাঁরা পদক্ষেপ নিয়েছেন।

এ সময় সুনির্দিষ্ট নীতিমালার ভিত্তিতে বেসরকারি কলেজ জাতীয়করণের দাবি জানান সংগঠনটির প্রধান উপদেষ্টা প্রবীণ শিক্ষক নেতা কাজী ফারুক আহমেদ। তিনি বলেন, মন্ত্রণালয় যদি নীতিমালা করেও থাকে, সেটাও শিক্ষকদের জানার অধিকার আছে। তিনি বেসরকারি কলেজ শিক্ষকদের জন্য অধ্যাপক পদ সৃষ্টির দাবি জানান।

সমিতির সভাপতি আসাদুল হক বলেন, যে বৈষম্যের জন্য শিক্ষকরা আন্দোলন করেছেন, এখনো তা দূর হয়নি। এই বৈষম্য দূর করতে পুরো শিক্ষাব্যবস্থা জাতীয়করণ করতে হবে।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য দেন সমিতির সাধারণ সম্পাদক নুরুন নবী সিদ্দিকী, শিক্ষকনেতা আজিজুল ইসলাম, মোহাম্মদ আলী চৌধুরী। সম্মেলনে সারা দেশ থেকে কয়েক হাজার শিক্ষক প্রতিনিধি অংশ নেন।

 


মন্তব্য