kalerkantho


জঙ্গি ও সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে উদ‌্যোগী হতে হবে: প্রধানমন্ত্রী

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৮ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ১৬:৩৩



জঙ্গি ও সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে উদ‌্যোগী হতে হবে: প্রধানমন্ত্রী

সামাজিক প্রতিরোধ গড়ে তোলার পাশাপাশি সবাইকে যার যার অবস্থান থেকে জঙ্গি ও সন্ত্রাবাদের বিরুদ্ধে উদ‌্যোগী হতে বলেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। জঙ্গি ও সন্ত্রাসবাদকে বিশ্বের একটি নতুন সংকট হিসাবে তুলে ধরে ঢাকার মিরপুর সেনানিবাসে বুধবার এক অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী বলেন, সরকার এ সংকট মোকাবিলায় জনগণকে উদ্বুদ্ধ করছে, সশস্ত্র বাহিনীও এ ব্যাপারে যথেষ্ট পারদর্শিতা অর্জন করেছে। তিনি বলেন, সকলকে স্ব স্ব জায়গা থেকে স্ব স্ব ভূমিকা রাখতে হবে, যাতে সন্ত্রাস ও জঙ্গীবাদের সঙ্গে ছেলে-মেয়েরা সংশ্লিষ্ট না হয়। আমরা চাই বাংলাদেশ দক্ষিণ এশিয়ায় শান্তিপূর্ণ দেশ হবে। অসাম্প্রদায়িক চেতনার উন্নত ও শান্তিপূর্ণ দেশ হিসাবে প্রতিষ্ঠিত হবে।

শেখ হাসিনা বলেন, উন্নয়নে বাধা সৃষ্টি হয়- এমন কিছু ঘটুক তা কখনোই কাম্য নয়। মিরপুর সেনানিবাসের শেখ হাসিনা কমপ্লেক্সে এই অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী সামরিক বাহিনী কমান্ড ও স্টাফ কলেজ থেকে ২০১৬-২০১৭ বর্ষে গ্র্যাজুয়েশন করা অফিসারদের মধ্যে সনদ বিতরণ করেন। তাদের অভিনন্দন জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, দীর্ঘ ১০ মাস অক্লান্ত পরিশ্রমের পর আজ তোমাদের পূর্ণতাপ্রাপ্তি ও আনন্দের দিন। সামরিক বাহিনী কমান্ড ও স্টাফ কলেজকে বাংলাদেশের একটি ঐতিহ্যবাহী এবং স্বনামধন্য প্রতিষ্ঠান হিসেবে বর্ণনা করেন প্রধানমন্ত্রী।

তিনি বলেন, এই বিদ্যাপীঠ থেকে ডিগ্রি অর্জন যে কোনো সামরিক অফিসারের জন্য অত্যন্ত আকাঙ্ক্ষিত ও গৌরবের বিষয়। বর্তমানে আমাদের এই স্টাফ কলেজ দেশের সীমানা ছাড়িয়ে আন্তর্জাতিক পরিমণ্ডলেও অনন্য শিক্ষা প্রতিষ্ঠান হিসেবে পরিচিতি লাভ করেছে; এ জন্য আমরা অত্যন্ত গর্বিত।

শুরু থেকে এ পর্যন্ত স্টাফ কলেজে সেনাবাহিনীর ৪১টি, নৌ-বাহিনীর ৩৫টি এবং বিমান বাহিনীর ৩৭টি স্টাফ কোর্স শেষ হয়েছে। মোট ৪০টি দেশের ৯৯৮ জন অফিসার এ কলেজ থেকে গ্র্যাজুয়েশন করেছেন বলে অনুষ্ঠানে জানানো হয়।  

 


মন্তব্য