kalerkantho

শুক্রবার । ৯ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৮ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


শিশু স্বাস্থ্যের উন্নয়ন স্বাস্থ্য খাতের উন্নয়নের প্রবেশ দ্বার : স্পিকার

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২২ অক্টোবর, ২০১৬ ১৭:০৪



শিশু স্বাস্থ্যের উন্নয়ন স্বাস্থ্য খাতের উন্নয়নের প্রবেশ দ্বার : স্পিকার

জাতীয় সংসদের স্পিকার ও সিপিএ নির্বাহী কমিটির চেয়ারপারসন ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী বলেছেন, শিশু স্বাস্থ্যের উন্নয়ন স্বাস্থ্য খাতের উন্নয়নের প্রবেশদ্বার।  
তিনি গ্রামীণ শিশুদের পরিমিত পুষ্টির চাহিদা মেটাতে সচেতনতামূলক প্রচারণা অব্যাহত রাখার জন্য সংশ্লিষ্ট সকলের প্রতি আহ্বান জানান।

স্পিকার গতকাল শুক্রবার বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয় মিলনায়তনে বাংলাদেশ পেডিয়াট্রিক অ্যাসোসিয়েশন (বিপিএ) কর্তৃক আয়োজিত ১৯তম দ্বিবার্ষিক এবং চতুর্থ আন্তর্জাতিক শিশু বিষয়ক সম্মেলনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এ আহ্বান জানান।

স্পিকার বলেন, ''স্বাস্থ্য ক্ষেত্রে বাংলাদেশ উল্লেখযোগ্য সফলতা অর্জন করেছে। সহস্রাব্দের উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা ৪ ও ৫ নম্বর সূচকে শিশু ও মাতৃ মৃত্যুরোধে বাংলাদেশের অর্জন বিস্ময়কর। '' তিনি বলেন, ''বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা স্বাস্থ্য ক্ষেত্রে এ অনন্য অর্জনের জন্য জাতিসংঘ থেকে বিশেষ পুরস্কারে ভূষিত হয়েছেন। '' সঠিক পরিকল্পনা প্রণয়ন, সম্পদের যথাযথ ব্যবহার এবং সামর্থ্য অনুযায়ী ব্যবস্থা গ্রহণের মাধ্যমে জাতীয় পর্যায়ে স্বাস্থ্য ক্ষেত্রের উন্নয়নকে ত্বরান্বিত করতে হবে বলে তিনি উল্লেখ করেন।

ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী বলেন, তৃণমূল পর্যায়ে গর্ভবতী মায়েদের পরিচর্যা ও নবজাতকের স্বাস্থ্য সুরক্ষা বিষয়ে জনসচেতনতা বৃদ্ধি করা প্রয়োজন। তিনি স্বল্পমূল্যে পাওয়া যায় এমন ধরনের পুষ্টিকর খাবার সম্পর্কে সচেতনতামূলক প্রচারণা চালাতে জনপ্রতিনিধি ও চিকিৎসকদের প্রতি আহ্বান জানান। এ সময় তিনি সরকার কর্তৃক বাস্তবায়নাধীন কমিউনিটি ক্লিনিক, ইপিআই কর্মসূচি, আইএমসিআই কর্মসূচির বিবরণ দিয়ে বলেন, সেবাপ্রত্যাশীদের চাহিদানুসারে সেবাপ্রদানকারী সংস্থাগুলো নিবিড়ভাবে কাজ করায় এমডিজির লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারিত সময়ের আগেই অর্জন করা সম্ভব হয়েছে।  

স্পিকার আরও বলেন, নবজাত শিশুদের স্বাস্থ্য সুরক্ষায় বাংলাদেশ পেডিয়াট্রিক অ্যাসোসিয়েশনের ভূমিকা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। এ ধরনের বিশেষ অনুষ্ঠান আয়োজনের মাধ্যমে বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকগণ তাদের অভিজ্ঞতা বিনিময়ের সুযোগ পাবেন এবং এর ফলে দেশ ও বিদেশে শিশু স্বাস্থ্যের উন্নয়ন ঘটবে। এ সময় তিনি বাংলাদেশে স্বতন্ত্র পেডিয়াট্রিক ফ্যাকাল্টি ঘোষণার আহ্বান জানান।  

প্রফেসর ডা. মোহাম্মদ শহিদুল্লার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বিএসএমএমইউ এর উপাচার্য প্রফেসর ডা. কামরুল হাসান খান, সেভ দ্য চিলড্রেনের জয় রিগস পার্লা, প্রফেসর ডা. হামিদুর রহমান, প্রফেসর ডা. ইয়াকুব জামাল এবং প্রফেসর ডা. এম এ কে আজাদ চৌধুরী বক্তৃতা করেন।  

অনুষ্ঠানে শিশু স্বাস্থ্য উন্নয়নে অসামান্য অবদানের জন্য প্রফেসর এম আর খান এবং প্রফেসর এম কিউ কে তালুকদারকে বাংলাদেশ পেডিয়াট্রিক অ্যাসোসিয়েশনের (বিপিএ) পক্ষ থেকে আজীবন সম্মাননা প্রদান করা হয় এবং শিশু স্বাস্থ্যসহ স্বাস্থ্যক্ষেত্রে তাদের অবদানের প্রশংসা করা হয়।  

জাতীয় সংসদ সচিবালয়ের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে আজ এ কথা বলা হয়।


মন্তব্য