kalerkantho

শনিবার । ৩ ডিসেম্বর ২০১৬। ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ২ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


আঞ্চলিক বাজার সৃষ্টি করে বিদ্যুতের চাহিদা মেটানো সম্ভব : কর্মশালায় অভিমত

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২১ অক্টোবর, ২০১৬ ১৬:৩৩



আঞ্চলিক বাজার সৃষ্টি করে বিদ্যুতের চাহিদা মেটানো সম্ভব : কর্মশালায় অভিমত

দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলোর ক্রমবর্ধমান বিদ‌্যুৎ চাহিদা মেটাতে আঞ্চলিক সহযোগিতা বৃদ্ধির আহ্বান এসেছে এ অঞ্চলের বিদ্যুৎ ও জ্বালানি খাতের নীতি নির্ধারকদের এক কর্মশালা থেকে।
শুক্রবার ঢাকার একটি পাঁচতারা হোটেলে দুই দিনের এই কর্মশালা শুরু হয়, যাতে সার্কভুক্ত আটটি দেশের বিদ্যুৎ ও জ্বালানি খাত সংশ্লিষ্ট সরকারি কর্মকর্তারা অংশ নিচ্ছেন।


যৌথভাবে ‘পাওয়ার অ্যান্ড এনার্জি ইন সাউথ এশিয়া: কানেকটিভিটি থ্রো কো- অপারেশন’ শীর্ষক এ কর্মশালার আয়োজন করেছে গবেষণা প্রতিষ্ঠান ইনস্টিটিউট ফর পলিসি, অ‌্যাডভোকেসি অ্যান্ড গভর্নেন্স (আইপেগ) এবং এশীয় উন্নয়ন ব্যাংক ইনস্টিটিউট।
প্রধানমন্ত্রীর অর্থ বিষয়ক উপদেষ্টা মশিউর রহমান উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বলেন, জ্বালানি খাতের সাধারণ ভোক্তাদের সাশ্রয়ীমূল্যে নির্ভরযোগ্য ও নিরবচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ সুবিধা দিতে হলে আঞ্চলিক সহযোগিতার একটি বলয় গড়ে তোলা প্রয়োজন। এ ধরনের আঞ্চলিক সহযোগিতা থেকে বড় দেশগুলোর তুলনায় ছোট দেশগুলো বেশি উপকার পাবে।
বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ বিপু বলেন, আর্থ-সামাজিক উন্নয়ন এবং দারিদ্র বিমোচনে বিদ্যুৎ বা সামগ্রিকভাবে জ্বালানি খাতের উন্নয়নের বিকল্প নেই। দক্ষিণ এশিয়া বর্তমানে বিশ্বের অন্যতম গতিশীল অর্থনৈতিক অঞ্চল হওয়ায় এ এলাকার জ্বালানি চাহিদা দিন দিন বাড়ছে।
বিদ্যুৎ ও জ্বালানি খাতের জন্য একটি আঞ্চলিক বাজার সৃষ্টি করে সার্কভুক্ত দেশগুলোর বিদ্যুতের চাহিদা মেটানো যায় বলে মত দেন তিনি।


মন্তব্য