kalerkantho

বুধবার । ৭ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৬ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


'দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলে জলাবদ্ধতার স্থায়ী সমাধানে গঙ্গা বাঁধ নির্মাণ করতে হবে'

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৯ অক্টোবর, ২০১৬ ১৭:৩১



'দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলে জলাবদ্ধতার স্থায়ী সমাধানে গঙ্গা বাঁধ নির্মাণ করতে হবে'

পানিসম্পদ মন্ত্রী আনিসুল ইসলাম মাহমুদ এমপি বলেছেন, দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চালের জলাবদ্ধতা সমস্যার স্থায়ী সমাধানের জন্য গঙ্গা বাঁধ নির্মাণ করতে হবে।
পানিসম্পদ মন্ত্রী আজ বুধবার দুপুরে রাজধানীর মহাখালীর ব্র্যাক সেন্টার ইন মিলনায়তনে এক গণশুনানী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে একথা বলেন।


অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ইসমাত আরা সাদেক এমপি।
‘অভয়নগর-মনিরামপুর-কেশবপুর-ভবদহ অঞ্চলের জলাবদ্ধতা নিরসনে সরকারি পদক্ষেপ ও জনগণের দাবি’ শীর্ষক এই গণশুনানী যৌথভাবে আয়োজন করে এসোসিয়েশন ফর ল্যান্ড রিফর্ম এন্ড ডেভেলপমেন্ট (এএলআরডি) এবং বেলা।
পানি অধিকার ফোরাম ও কমিউনিটি লিগ্যাল সার্ভিসেস আজকের অনুষ্ঠান আয়োজনে সহায়তা করে।
এএলআরডি’র নির্বাহী পরিচালক শামসুল হুদার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে ভবদহ অঞ্চলের জলাবদ্ধ সমস্যার সমাধানে জনগণের ভাবনা’ শীর্ষক মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন স্থানীয় ভবদহ মহাবিদ্যালয়ের অধ্যক্ষ আ. মতলেব সরদার।
পানিসম্পদ মন্ত্রী বলেন, গঙ্গা বাঁধ নির্মাণ করা সম্ভব হলে দক্ষিণ -পশ্চিমাঞ্চালের জলাবদ্ধতাসহ অন্য সব সমস্যার সমাধান হবে। এসব এলাকায় লবনাক্ততা রোধ, আর্সেনিক নিরোধ, সেচ ব্যবস্থার উন্নতি, কৃষি ফসল ও মৎস্য উৎপাদন বৃদ্ধি করা সম্ভব হবে। এছাড়া এ এলকার আর্থ-সামাজিক উন্নতি হবে।
যশোরের ভবদহ এলাকার জলবদ্ধতা সমস্য নিরসনে সরকার কাজ করছে উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, এ এলাকার জলবদ্ধতা সমস্যার সমাধানে টাইডাল রিভার ম্যানেজমেন্ট (টিআরএম) স্থায়ী কোন সমাধান নয়, এটি একটি আপাতত সমাধান। অন্যকোন উন্নত সমাধান থাকলে তা অনুসন্ধান করতে হবে।
তিনি বলেন, আমডাঙ্গা খাল সংস্কারের ব্যবস্থা করা হবে।
পানিসম্পদ মন্ত্রী বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকার নদ-নদীর নাব্যতা রক্ষার জন্য ড্রেজিং ব্যবস্থাকে অত্যধিক গুরুত্ব দিচ্ছে। ড্রেজিংয়ের মাধ্যমে নদ-নদীর নাব্যতা রক্ষার প্রচেষ্টা চলছে। আপার ভৈরবে ড্রেজিংয়ের কাজ শুরু হয়েছে, এছাড়া আমরা লোয়ার ভৈরবও ড্রেজিং করবো।
তিনি বলেন, পদ্মা থেকে নিম্নগামী প্রবাহিত মাথাভাঙ্গা-গড়াইসহ সকল নদীর নাব্যতা রক্ষার জন্য সংস্কার কাজ করতে হবে
আনিসুল ইসলাম মাহমুদ বলেন, ভবদহের জলবদ্ধ মানুষের সমস্যা সমাধানের লক্ষে পরবর্তী বছর যেন কোন সমস্যা না হয় সেদিকে আমরা খেয়াল রাখবো।
তিনি বলেন, ভবদহ এলাকার মানুষের কষ্ট লাঘবের জন্য সেখানে একটি ড্রেজার ও স্কেলিভেটর দেয়া হয়েছে এবং ওই এলাকার মানুষের সুবিধার্থে তা ওখানে থাকবে।
তিনি আগামী মাসের মাঝামাঝি সময়ে ভবদহ এলাকা সরেজমিনে পরিদর্শন করবেন জানিয়ে অনুষ্ঠানে বলেন, ভবদহ এলাকায় কোন প্রকল্প গ্রহণ ও ক্ষতিগ্রস্ত মানুষের ক্ষতিপূরণ দেয়ার জন্য স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের যৌথভাবে সিদ্ধান্তে আসতে হবে। সেই সিদ্ধান্ত মোতাবেক আমরা পদক্ষেপ গ্রহণ করবো। প্রকল্প চলাকালীন ক্ষতিগ্রস্তদের যথাযথ ক্ষতিপূরণ দেয়া হবে। এই এলাকায় সমস্যা আছে, সমস্যার সমাধানেরও চেষ্টা চলছে। আমাদের সম্পদদের সীমাবদ্ধতা রয়েছে, তবে এই সীমিত সম্পদের মধ্যেই আমাদের কাজগুলো করতে হবে। অনুষ্ঠানের বিশেষ অতিথি ইসমাত আরা সাদেক বলেন, যশোরের ভবদহের জলবদ্ধতা সমস্যা প্রকট। সরকার এই সমস্যা সমাধানের জন্য অত্যন্ত গুরুত্ব দিয়ে কাজ করছে। এই এলাকার জলাবদ্ধতা সমস্যা নিরসনে টিআরএম পদ্ধতি গ্রহণ করতে হবে উল্লেখ করে প্রতিমন্ত্রী বলেন, জলাবদ্ধতা নিরসনে স্থানীয় জনগণের মতামত ও ভূতাত্ত্বিক বিষয়টি বিবেচনায় রাখতে হবে।
প্রতিমন্ত্রী আরও বলেন, ভবদহের জলাবদ্ধতা টেকসই নিরসনে সমীক্ষা করার জন্য আইডব্লিউএমকে নিয়োগ দেয়া হয়েছে। তাদের সেই সমীক্ষায় জলাবদ্ধতা সমস্যার সমাধোন বের হয়ে আসবে বলে দৃড় আমা ব্যক্ত করেন তিনি।
ইসমাত আরা সাদেক বলেন, এই এলাকার ক্ষতিগ্রস্তদের কাগজপত্র দেখে তাৎক্ষণিকভাবে ক্ষতিপূরণ দেয়ার ব্যবস্থা করা হবে।
বেলার প্রধান নির্বাহী সৈয়দা রিজওয়ানা হাসানের সঞ্চালনায় গণশুনানীতে যশোর-৫ আসনের সংসদ সদস্য স্বপন ভট্টাচার্য, বাংলাদেশ পানি উন্নয়ন বোর্ডের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (পরিকল্পনা) মো. মাহফুজুর রহমান, বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) ইনস্টিটিউট অব ওয়াটার এন্ড ফ্লাড ম্যানেজমেন্টের অধ্যাপক ড. এম শাহজাহান মন্ডল, বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদকি ইউনিয়নের কোষাধ্যক্ষ মধুসূদন মন্ডল, অভয়নগরের ৪ নম্বর পায়রা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান বাবু বিষ্ণুপদ দত্ত প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।
মূল প্রবন্ধে বলা হয়, সামনে আগত শুষ্ক মৌসুমে বিল কপালিয়ায় টিআরএম বাস্তবায়ন করতে হবে। এখানে জমির মালিকসহ সকল ধরণের ক্ষতিগ্রস্তদের ক্ষতিপূরণ দেয়া, জোয়ার ধরার জন্য জমি অধিগ্রহণের পরিবর্তে নির্দিষ্ট মেয়াদের জন্য লিজ প্রদান এবং টিআরএম বাস্তবায়নের জন্য মেয়াদ নির্ধারণ করা।
অনুষ্ঠানে ভবদহ এলাকার জলাবদ্ধতার দুর্বিসহ চিত্র তুলে ধরে একটি ভিডিও প্রদর্শনী করা হয়।


মন্তব্য