kalerkantho

রবিবার। ৪ ডিসেম্বর ২০১৬। ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৩ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


জলবায়ু ঝুঁকি মোকাবেলায় ২ বিলিয়ন ডলার দেবে বিশ্বব্যাংক

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৮ অক্টোবর, ২০১৬ ২০:৫৬



জলবায়ু ঝুঁকি মোকাবেলায় ২ বিলিয়ন ডলার দেবে বিশ্বব্যাংক

জলবায়ু পরিবর্তনের ঝুঁকি মোকাবেলায় বিশ্বব্যাংক আগামী তিন বছরে বাংলাদেশকে ২ বিলিয়ন মার্কিন ডলার ঋণ সহায়তা দেবে।
সফররত বিশ্বব্যাংক প্রেসিডেন্ট জিম ইয়ং কিম ঢাকা ত্যাগের প্রাক্কালে মঙ্গলবার বিকেলে এক সংবাদ সম্মেলনে এই ঘোষণা দেন।


তিনি বলেন, 'জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাবে সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত দেশের অন্যতম বাংলাদেশ। গরীব মানুষ এর প্রভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে,তাই আমাদের এ বিষয়ে উদ্যোগী হতে হবে। জলবায়ু পরিবর্তনজনিত ঝুঁকি মোকাবেলায় আমরা তহবিল বরাদ্দ নিশ্চিত করতে চাই। '
রাজধানীর আগারগাঁও বিশ্বব্যাংকের আবাসিক কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে সংস্থার দক্ষিণ এশীয় অঞ্চলের ভাইস প্রেসিডেন্ট এ্যানিটি ডিক্সন, ইন্টারন্যাশনাল ফাইন্যান্স করপোরেশনের(আইএফসি) দক্ষিণ এশীয় অঞ্চলের পরিচালক মেনজিসটিউ এ্যলেমাইয়ে,ঢাকা অফিসের প্রধান চিমিয়াও ফান ও যোগাযোগ কর্মকর্তা মেহেরীন মাহবুব উপস্থিত ছিলেন।
তিনদিনের সফরে রোববার ঢাকায় আসেন বিশ্বব্যাংক প্রেসিডেন্ট। সফরের শেষদিনে তিনি আজ জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাবে ক্ষতিগ্রস্ত সাইক্লোনপীড়িত বরিশাল অঞ্চলে বিশ্বব্যাংকের অর্থায়নপুষ্ট একটি প্রকল্প পরিদর্শন করেন। পরে গণভবনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে বৈঠক করেন তিনি।  
এর আগে বিশ্বব্যাংক প্রেসিডেন্ট জিম ইয়ং কিম গতকাল অর্থমন্ত্রী আবুল আব্দুল মুহিতের সাথে যৌথ এক সংবাদ সম্মেলনে বাংলাদেশে শিশু অপুষ্টি নিরসনে অতিরিক্ত এক বিলিয়ন ডলার দেয়ার প্রতিশ্রুতি দেন। পাশাপাশি বাংলাদেশের জন্য ঋণ সহায়তা ৫০ শতাংশ বাড়ানোরও প্রতিশ্রুতি দেন। সবমিলিয়ে কিমের এই সফরকালে বিশ্বব্যাংক বাংলাদেশকে মোট তিন বিলিয়ন ডলার সহায়তা দেয়ার ঘোষণা দিলো।
দূর্যোগ প্রশমন ব্যবস্থাপনা গড়ে তোলার ক্ষেত্রে বাংলাদেশ সামনের কাতারে রয়েছে মন্তব্য করে বিশ্ব ব্যাংক প্রেসিডেন্ট সংবাদ সম্মেলনে বলেন,‘এর ফলে সাম্প্রতিক সময়ে ঝড়, সাইক্লোন ও বন্যার ক্ষতি কমিয়ে আনা সম্ভব হয়েছে। বাংলাদেশ যাতে দুর্যোগ প্রশমনে আরো শক্তিশালী হয়ে উঠতে পারে, সেজন্য বিশ্ব ব্যাংক গ্রুপ সহায়তা করার পরিকল্পনা করেছে। ’ 
বিশ্ব ব্যাংক জলবায়ু পরিবর্তনের ক্ষতি মোকাবেলায় আলাদাভাবে যে তহবিল গঠনের ঘোষণা দিয়েছেন,এর আওতায় এই বরাদ্দ দেওয়া হবে।
এবার ‘আন্তর্জাতিক দারিদ্র বিমোচন দিবস’ কিম ঢাকাতেই পালন করেন এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপস্থিতিতে ‘দারিদ্র্যমুক্ত বিশ্বে বাংলাদেশ’ শীর্ষক এক অনুষ্ঠানে গনবক্তৃতা দেন।
মঙ্গলবার সকালে হেলিকপ্টারে চড়ে কিম বরিশালে যান। সেখানে তিনি বিশ্ব ব্যাংকের আর্থিক সহায়তায় পরিচালিত একটি প্রকল্পের আওতায় ক্ষুদ্রঋণ নিয়ে গাভী পালন বা মাছ চাষ করে ‘স্বাবলম্বী হওয়া’ নারীদের সঙ্গে মত বিনিময় করেন।
সংবাদ সম্মেলনে দারিদ্র বিমোচনে বাংলাদেশের অগ্রগতির ভূযসী প্রশংসা করেন বিশ্বব্যাংক প্রেসিডেন্ট। তিনি বলেন,বাংলাদেশ নারীর ক্ষমতায়ন ও মাতৃস্বাস্থ্য সেবায় অসামাণ্য সাফল্য অর্জন করেছে।
তিনি বাংলাদেশে বেসরকারিখাতে বিনিয়োগ বিশেষ করে বৈদেশিক বিনিয়োগ বাড়াতে বিনিয়োগ পরিবেশের উন্নতির জন্য নীতি সংস্কার, প্রাতিষ্ঠানিক সক্ষমতা বৃদ্ধি এবং সুশাসন জোরদারের পরামর্শ দেন।
উল্লেখ্য, গত ৪৫ বছরে বহুজাতিক ঋণলগ্নিকারী প্রতিষ্ঠান বিশ্বব্যাংক বাংলাদেশকে ২৪ বিলিয়ন ডলার ঋণ সহায়তা প্রদান করেছে।


মন্তব্য