kalerkantho

সোমবার । ৫ ডিসেম্বর ২০১৬। ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৪ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


পরিসংখ্যান বিভাগের ১০ প্রকল্পের বাস্তবায়ন নিয়ে ক্ষোভ, তদারকি বাড়ানোর সুপারিশ

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১৮ অক্টোবর, ২০১৬ ২০:০৮



পরিসংখ্যান বিভাগের ১০ প্রকল্পের বাস্তবায়ন নিয়ে ক্ষোভ, তদারকি বাড়ানোর সুপারিশ

পরিসংখ্যান ও তথ্য ব্যবস্থাপনা বিভাগ কর্তৃক ২০১৪ সাল থেকে এ পর্যন্ত ১০টি প্রকল্প গ্রহণ করা হয়েছে। কিন্তু এই সকল প্রকল্প যথাযথ ভাবে বাস্তবায়ন হচ্ছে না।

এ নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেছে পরিকল্পনা মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটি। কমিটির বৈঠকে মাঠ পর্যায় থেকে সঠিক ও সুষ্ঠুভাবে তথ্য উপাত্ত সহকারে ডাটা সংগ্রহের জন্য তদারিক বাড়ানোর সুপারিশ করা হয়েছে।

আজ মঙ্গলবার বিকেলে জাতীয় সংসদ ভবনে অনুষ্ঠিত কমিটির বৈঠকে সভাপতিত্ব করেন কমিটির সভাপতি আবুল কালাম আজাদ। বৈঠকে কমিটি সদস্য পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল, মেজর (অব.) রফিকুল ইসলাম (বীর উত্তম), মুহিবুর রহমান মানিক, মো. আব্দুল হাই, মো. তাজুল ইসলাম ও সামশুল হক চৌধুরী এবং সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

কমিটির বৈঠকে উত্থাপিত প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ওই ১০টি প্রকল্পের ২০১৬-১৭ অর্থ বছরে এডিপিতে মোট ২৮৭ কোটি ২৭ লক্ষ টাকা বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে। এর মধ্যে জিওবি ৬৫ কোটি ৯৩ লক্ষ টাকা ও প্রকল্প সাহায্য ২২১ কোটি ৩৪ লক্ষ টাকা। প্রকল্পগুলো বর্তমানে চলমান রয়েছে।

পরিসংখ্যান ও তথ্য ব্যবস্থাপনা বিভাগের সচিব কে এম মোজাম্মেল হক স্বাক্ষরিত প্রতিবেদনে আরো জানানো হয়, ২০২৩ সাল নাগাদ আন্তর্জাতিক মান সম্পন্ন, দক্ষ ও পেশাদারী একটি জাতীয় পরিসংখ্যান ব্যবস্থা প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে মন্ত্রিপরিষদ সভায় জাতীয় পরিসংখ্যান উন্নয়ন কৌশালপত্র অনুমোদন করা হয়েছে।

কমিটি সূত্র জানায়, প্রকল্পগুলো নির্ধারিত সময়ে শেষ হবে বলে দাবি করা হলেও অনেক প্রকল্পের বাস্তবায়ন কাজ ধীর গতিতে চলছে। এমনকি কোন কোন প্রকল্পের মেয়াদ শেষ পর্যায়ে থাকলেও অর্ধেক কাজ বাকী রয়েছে। ২০১৩ সালের জুলাই মাসে শুরু হওয়া ন্যাশনাল হাউজহোল্ড ডাটাবেইজ প্রকল্পের কাজ ২০১৭ সালের ডিসেম্বরে শেষ হওয়ার কথা। কিন্তু গত তিন বছরে মাত্র ২৫ ভাগ অগ্রগতি হয়েছে। এই প্রকল্পে মোট বরাদ্দ ৩২৮ কোটি ৭৭ লাখ টাকা। আগামী ডিসেম্বর পর্যন্ত মেয়াদ থাকলেও ডিজিটালাইজেশন অব বিবিএস পাবলিকেশনস এন্ড অনলাইন সেকেন্ডারী ডাটা কালেকশন প্রকল্পের অগ্রগতি মাত্র ১৮ ভাগ। স্ট্রেনদেনিং এগ্রিকালচার মার্কেট ইনফরমেশন সিস্টেম ইন বাংলাদেশ প্রকল্প আগামী জুনে শেষ হওয়ার কথা রয়েছে। অথচ এই প্রকল্পের মাত্র ৬৭ ভাগ অগ্রগিত হয়েছে।

সূত্র আরো জানায়, বৈঠকে প্রকল্প বাস্তবায়নে ধীরগতির পাশাপাশি নানা অনিয়মের কথাও তুলে ধরেন কমিটির সদস্যরা। এমনকি প্রকল্প প্রণয়নের ক্ষেত্রে নানা ভুল-ত্রুটির কথাও আলোচনায় উঠে আসে। আলোচনা শেষে প্রকল্প বাস্তবায়নের গতি বাড়ানোর পাশাপাশি মাঠ পর্যায়ে পরিসংখ্যান ও তথ্য ব্যবস্থাপনা বিভাগের যে সকল কর্মকর্তা কর্মরত আছেন তাদেরকে আরো বেশী দক্ষ করে গড়ে তোলার সুপারিশ করা হয়।


মন্তব্য