kalerkantho

মঙ্গলবার । ৬ ডিসেম্বর ২০১৬। ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৫ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


'ট্রাফিক আইনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল হোন, আপনাদের হয়রানি হতে হবে না'

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৬ অক্টোবর, ২০১৬ ১৯:২৪



'ট্রাফিক আইনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল হোন, আপনাদের হয়রানি হতে হবে না'

গাড়ির মালিক ও শ্রমিকদের উদ্দেশে ডিএমপি কমিশনার মো. আছাদুজ্জামান মিয়া বলেছেন, ডিএমপি এলাকায় কোনো গাড়িকে বিনা কারণে রেকারিং করা হবে না। আপনারা ট্রাফিক আইনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল হোন, আমি কথা দিচ্ছি আপনাদের কোনো প্রকার হয়রানি ডিএমপিতে হবে না।

আজ রবিবার রাজধানীর তেজগাঁও ট্রাক স্ট্যান্ডে সড়ক দুর্ঘটনা হ্রাসে জনসচেতনতা মূলক এক আলোচনা সভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

ডিএমপি কমিশনার বলেন, ডিএমপির ট্রাফিক বিভাগ প্রতিনিয়ত হুটার, বিকন লাইট,উল্টা পথে গাড়ি চালানো ও হাইড্রোলিক হর্ন এর বিরুদ্ধে অভিযান অব্যহত রেখেছে। মালিকদের প্রতি আমার আহবান আপনারা লং রোডে প্রতি গাড়িতে দুই জন করে ড্রাইভার দিবেন। যাতে করে দীর্ঘ সময় গাড়ি চালাতে কোন অসুবিধা না হয়। এতে করে দুর্ঘটনা অনেক অংশে হ্রাস পাবে।

ডিএমপি কমিশনার  আরও বলেন, সড়ক দুর্ঘটনা ও সড়কের শৃঙ্খলা এ বিষয়গুলোর তিনটি ডিভিশন আছে। ট্রাফিক ইনফোর্সমেন্ট, ট্রাফিক ইঞ্জিনিয়ারিং ও ট্রাফিক এ্যডুকেশন। ট্রাফিক ইনফোর্সমেন্ট যা আমরা ও বিআরটিএ করে থাকি। আমরা ট্রাফিক ইনফোর্সমেন্ট এর মধ্যে আছি। ট্রাফিক ইঞ্জিনিয়ারিং করে থাকে সড়ক বিভাগ ও যোগাযোগ মন্ত্রণালয় এবং ট্রাফিক এ্যডুকেশন বিশ্বের বিভিন্ন দেশে আছে। কিন্তু আমাদের দেশে ট্রাফিক এডুকেশনের সে রকম অবকাঠামো নেই। বর্তমান ট্রাফিক এডুকেশনের কাজ গুলো মূলত পুলিশ করে থাকে। বিআরটিএ ও যোগাযোগ মন্ত্রনালয় মাঝে মাঝে করে থাকে।

তিনি বলেন, আমরা ট্রাফিক এডুকেশনের আওতায় একটি ট্রাফিক সচেতনতামূলক ডকুমেন্টরি তৈরি করেছি। যা সকল নাইট কোচ, বাস টার্মিনাল, লঞ্চ ঘাট, রেল স্টেশন, শপিং মলসহ বিভিন্ন স্থানে প্রদর্শনের ব্যবস্থা করেছি। এখন স্কুল কলেজে পূজার ছুটি চলছে। এ ছুটি শেষে সকল স্কুল কলেজ ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে এ ডকুমেন্টরি প্রদর্শীত হবে। এতে করে সকলের মাঝে ট্রাফিক আইন সম্পর্কে সচেতনতা সৃষ্টি হবে।

বাংলাদেশের চলমান অর্থনৈতিক উন্নয়নের বিষয়ে তিনি বলেন, আজ বাংলাদেশ এগিয়ে যাচ্ছে দূর্বার গতিতে উন্নয়নের পথ ধরে। বাংলাদেশের জনগনের ঐক্যবদ্ধ সচেতনতায় আজ আমরা জঙ্গিবাদ নির্মূল করতে পেরেছি। জঙ্গি বিরোধী অভিযান চলছে চলবে। এদেশে কোন জঙ্গিবাদের স্থান হবে না। জনগনকে সাথে নিয়ে আমরা জঙ্গিবাদকে সমূলে উৎখাত করবো। পুলিশ সব সময় আপনাদের পাশে থাকবে। আমাদেরকে সহযোগিতা করার জন্য আপনাদের কে আহবান জানাচ্ছি।

বাংলাদেশ ট্রাক-কাভার্ডভ্যান এন্ড ট্রান্সপোর্ট এজেন্সি মালিক -শ্রমিক ঐক্য পরিষদ আয়োজিত উক্ত সচেতনতামূলক অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন বিআরটিএ চেয়ারম্যান নজরুল ইসলাম, অতিরিক্ত কমিশনার (ট্রাফিক) মোসলেহ উদ্দিন আহমেদ, ২৪ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর সফিউল্লাহ সফিসহ পুলিশের উর্ধ্বতন কর্মকর্তাবৃন্দ।


মন্তব্য