kalerkantho

মঙ্গলবার । ৬ ডিসেম্বর ২০১৬। ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৫ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


ইবিতে শিক্ষক নিয়োগে লিখিত পরীক্ষা নেওয়ার সিদ্ধান্ত

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৬ অক্টোবর, ২০১৬ ১৮:৪৫



ইবিতে শিক্ষক নিয়োগে লিখিত পরীক্ষা নেওয়ার সিদ্ধান্ত

ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রভাষক ও সহকারী অধ্যাপক পদে নিয়োগ লিখিত পরীক্ষা নেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন।
লিখিত, মৌখিক পরীক্ষাসহ মোট তিনটি ধাপের মাধ্যমে এই দুই পদে নিয়োগ দেওয়া হবে বলে বিশ্ববিদ্যালয়ের সিন্ডিকেট সভায় এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।


এ ব্যাপারে বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত রেজিস্ট্রার এস এম আবদুল লতিফ সাংবাদিকদের বলেন, প্রভাষক, সহকারী অধ্যাপক ও কর্মকর্তা নিয়োগের ক্ষেত্রে একই পদ্ধতি অনুসরণ করা হবে। শিক্ষক নিয়োগ নির্বাচনী বোর্ড লিখিত পরীক্ষার প্রশ্নপত্র প্রণয়ন ও নম্বর বণ্টনের বিষয়টি চূড়ান্ত করবে। কর্মকর্তা নিয়োগের ক্ষেত্রে কর্মকর্তা নিয়োগ নির্বাচনী বোর্ড একই কাজ করবে।  
বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য রাশিদ আসকারী বলেন, লিখিত পরীক্ষার মাধ্যমে শিক্ষক নিয়োগ দেওয়ার জন্য শিক্ষা মন্ত্রণালয় ও বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন (ইউজিসি) থেকে নির্দেশনা রয়েছে। বিষয়টিকে বাস্তবায়নের লক্ষ্যে সিন্ডিকেটের মাধ্যমে এ সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়েছে। এর ফলে নিয়োগ-প্রক্রিয়ায় স্বচ্ছতা আসবে এবং যোগ্য ও মেধাবীরা নিয়োগ পাবেন। ইবিতে শিক্ষক নিয়োগে লিখিত পরীক্ষা নেওয়ার সিদ্ধান্ত
ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রভাষক ও সহকারী অধ্যাপক পদে নিয়োগ লিখিত পরীক্ষা নেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন।
লিখিত, মৌখিক পরীক্ষাসহ মোট তিনটি ধাপের মাধ্যমে এই দুই পদে নিয়োগ দেওয়া হবে বলে বিশ্ববিদ্যালয়ের সিন্ডিকেট সভায় এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।
এ ব্যাপারে বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত রেজিস্ট্রার এস এম আবদুল লতিফ সাংবাদিকদের বলেন, প্রভাষক, সহকারী অধ্যাপক ও কর্মকর্তা নিয়োগের ক্ষেত্রে একই পদ্ধতি অনুসরণ করা হবে। শিক্ষক নিয়োগ নির্বাচনী বোর্ড লিখিত পরীক্ষার প্রশ্নপত্র প্রণয়ন ও নম্বর বণ্টনের বিষয়টি চূড়ান্ত করবে। কর্মকর্তা নিয়োগের ক্ষেত্রে কর্মকর্তা নিয়োগ নির্বাচনী বোর্ড একই কাজ করবে।  
বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য রাশিদ আসকারী বলেন, লিখিত পরীক্ষার মাধ্যমে শিক্ষক নিয়োগ দেওয়ার জন্য শিক্ষা মন্ত্রণালয় ও বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন (ইউজিসি) থেকে নির্দেশনা রয়েছে। বিষয়টিকে বাস্তবায়নের লক্ষ্যে সিন্ডিকেটের মাধ্যমে এ সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়েছে। এর ফলে নিয়োগ-প্রক্রিয়ায় স্বচ্ছতা আসবে এবং যোগ্য ও মেধাবীরা নিয়োগ পাবেন।


মন্তব্য