kalerkantho

শনিবার । ১০ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৯ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


খাগড়াছড়িতে সশস্ত্র সন্ত্রাসী নিহত, অস্ত্র ও গোলাবারুদ উদ্ধার

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৫ অক্টোবর, ২০১৬ ২০:৪৭



খাগড়াছড়িতে সশস্ত্র সন্ত্রাসী নিহত, অস্ত্র ও গোলাবারুদ উদ্ধার

খাগড়াছড়ি জেলার সদর উপজেলার ভূঁয়াছড়ি এলাকায় শুক্রবার সন্ধ্যায় সেনাবাহিনীর নেতৃত্বে নিরাপত্তা বাহিনীর একটি টহল দলের সাথে ইউপিডিএফ’র সশন্ত্র সন্ত্রাসীদের গুলিবিনিময়কালে একজন ইউনিফর্ম পরিহিত ইউপিডিএফ এর সশস্ত্র সন্ত্রাসী গুলিবিদ্ধ হয়ে নিহত হয়।  
টহল দলটি ঘটনাস্থল থেকে ১টি জি-৩ অটোমেটিক রাইফেল ও ১৯ রাউন্ড গুলি, ১টি চাইনিজ সাব মেশিন গান ও ৪৯ রাউন্ড গুলি এবং ০১টি এইচকে-৩৩ অটোমেটিক রাইফেল ও ৩৮ রাউন্ড গুলি উদ্ধার করে।

 
আন্তঃবাহিনী জনসংযোগ পরিদপ্তরের (আইএসপিআর) এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে আজ এ কথা জানানো হয়।  
বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, গোপন সূত্রে খবর পাওয়া যায়, কুতুকছড়িতে ইউপিডিএফ’র ১৫ থেকে ২০ সদস্যের একটি সশস্ত্র দল দলীয় প্রধানের নেতৃত্বে গোপন বৈঠক করে পার্বত্য চট্টগ্রামের তান্দং, গঙ্গারাম, সাজেক, বঙগাতলী, ভিলাছড়ি, হামুক্কুছড়া, কুতুকছড়ি, মাইলছড়ি, সিদ্ধিরছড়িসহ বিভিন্ন স্থানে নাশকতার পরিকল্পনা করছে। গোপন বৈঠক শেষে ইউপিডিএফ’র সদস্যরা গোপন আস্তানায় চলে যায়।  
এ খবরের ভিত্তিতে, মহলছড়ি জোন সদর থেকে নিরাপত্তা বাহিনীর একটি দল দাতকুপিয়া এবং ভূঁয়াছড়ি মধ্যবর্তী স্থানে গিয়ে ইউপিডিএফ’র সশস্ত্র সন্ত্রাসীদের গোপন আস্তনাটির সন্ধান পেয়ে তা ঘিরে ফেলতে সক্ষম হয়।  
নিরাপত্তা বাহিনীর উপস্থিতি টের পেয়ে অস্ত্রধারী সন্ত্রাসীরা তাদেরকে লক্ষ্য করে গুলি ছুড়তে শুরু করে। নিরাপত্তা বাহিনীর অভিযানের তীব্রতায় একপর্যায়ে সন্ত্রাসী দলটি অন্ধকারে পাহাড়ে পালিয়ে যেতে বাধ্য হয়।
পরে ঘটনাস্থল থেকে ইউনিফর্ম পরিহিত ইউপিডিএফ’র এক সন্ত্রাসীর গুলিবিদ্ধ লাশ এবং তিনটি অস্ত্র ও গোলাবারুদ উদ্ধার করা হয়।


মন্তব্য