kalerkantho

শুক্রবার । ৯ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৮ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


শিক্ষাবিদদের সাথে পরামর্শ করে পরিকল্পনা গ্রহণ করা হবে : বিদ্যুৎ প্রতিমন্ত্রী

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৩ অক্টোবর, ২০১৬ ২২:০৭



শিক্ষাবিদদের সাথে পরামর্শ করে পরিকল্পনা গ্রহণ করা হবে : বিদ্যুৎ প্রতিমন্ত্রী

বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ বলেছেন, উন্নত বাংলাদেশ গড়তে শিক্ষাবিদদের সাথে পরামর্শ ও সমন্বয় করে পরিকল্পনা গ্রহণ করা হবে। পরিবেশ, খনিজ, কয়লা এবং এ সম্পর্কিত বিভিন্ন বিষয় নিয়ে প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়সমূহে পৃথক বিভাগ চালু করার উপর তিনি গুরুত্ব আরোপ করেন।

 
আজ ঢাকায় মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়সমূহের উপাচার্যদের সাথে মতবিনিময়কালে তিনি এসব কথা বলেন।  
নসরুল হামিদ আরো বলেন, হালনাগাদকৃত পাওয়ার সিস্টেম মাস্টার প্ল্যান-২০১৫-এ কয়লাকে প্রধান জ্বালানি হিসেবে চিহ্নিত করা হয়েছে। সে অনুসারে ভবিষ্যতে বিদ্যুৎ উৎপাদনের শতকরা ৫০ ভাগ হবে কয়লা ভিত্তিক উল্লেখ করে তিনি বলেন, ২০২৪ সাল নাগাদ ১২ হাজার মেগাওয়াট, ২০৩০ সাল নাগাদ ২০ হাজার মেগাওয়াট এবং ২০৪১ সাল নাগাদ ৩০ হাজার মেগাওয়াট বিদ্যুৎ অত্যাধুনিক কয়লা ভিত্তিক বিদ্যুৎ কেন্দ্র হতে উৎপাদিত হবে। এ লক্ষ্য অর্জনে কয়লা ভিত্তিক বিদ্যুৎ কেন্দ্রের জন্য বিপুল সংখ্যক দক্ষ প্রকৌশলী প্রয়োজন বলে তিনি উল্লেখ করেন।  
প্রতিমন্ত্রী আরো বলেন, বাংলাদেশের পাশাপাশি বিশ্বের অন্যান্য দেশেও বিশেষ করে যুক্তরাষ্ট্র, চীন, ভারতসহ বিভিন্ন উন্নয়নশীল দেশে কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎ কেন্দ্র রয়েছে। বাংলাদেশেও ভবিষ্যতের চাহিদা বিবেচনা করে নতুন নতুন কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎ কেন্দ্র স্থাপনের উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। ফলে কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎ কেন্দ্রে কাজ করার উপযুক্ত প্রকৌশলীগণ বাংলাদেশের পাশাপাশি বিদেশেও কাজ করার সুযোগ পাবেন। প্রয়োজনবোধে এ প্রকৌশলীদের শিক্ষাবৃত্তি ও চাকরির নিশ্চয়তা দেয়া হবে বলে তিনি মন্তব্য করেন।  
এ সময় বিভিন্ন প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যগণ সংশ্লিষ্ট বিষয়ে তাদের মতামত দেন। তাঁরা স্বল্প সময়ের জন্য নিয়োগ প্রাপ্ত ইঞ্জিনিয়ারদের ৩ মাস বা ৬ মাসের কোর্স বা ডিপ্লোমা প্রশিক্ষণের ওপর গুরুত্ব দেন। তারা আরো বলেন, পাওয়ার স্টেশন কোর্সের বিষয়াবলীর ওপর আরো জোর দিয়ে ভবিষ্যতে পাঠ্যসূচি তৈরি করা হবে এবং বাস্তবধর্মী প্রশিক্ষণ বা ইন্টারনশিপ-এর জন্য বিভিন্ন পাওয়ার স্টেশনে ছাত্রদের পাঠানো হবে। এতে সরকারের সহযোগিতা প্রয়োজন।
আলোচনাকালে অন্যান্যের মধ্যে বিদ্যুৎ সচিব মনোয়ার ইসলাম, পিডিবির চেয়ারম্যান খালেদ মাহমুদ ও পাওয়ার সেলের মহাপরিচালক মোহাম্মদ হোসেন বক্তব্য রাখেন।  


মন্তব্য