kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ৮ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৭ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


ছুরি নিষিদ্ধ তাই ব্লেড দিয়েই ক্ষতবিক্ষত বুক

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১২ অক্টোবর, ২০১৬ ১৪:৪৫



ছুরি নিষিদ্ধ তাই ব্লেড দিয়েই ক্ষতবিক্ষত বুক

পবিত্র আশুরা উপলক্ষে শিয়া সম্প্রদায়ের ধর্মীয় উৎসব তাজিয়া মিছিলে এবার কোনো ছুরি বা অস্ত্র নিয়ে না আসলেও ব্লেড দিয়ে বুক ক্ষতবিক্ষত করেছেন অনুসারীরা। আজ বুধবার বেলা ১০টার সময় রাজধানীর পুরান ঢাকার হোসেনি দালান ইমামবাড়া থেকে এ মিছিল শুরু হয়।

এবার পুলিশের অনুরোধে ছুরি দিয়ে অনুসারীদের মাতম করতে দেখা যায়নি। তবে বুক চাপড়ে হায় হোসেন হায় হোসেন করে মাতম করছেন।

কোথাও কোথাও ব্লেড ব্যবহার করে বুক ক্ষতবিক্ষত করতে দেখা গেছে অনুসারীদের। গত বৃহস্পতিবার ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ (ডিএমপি) কমিশনার আছাদুজ্জামান মিয়া জানিয়েছিলেন, এ বছর তাজিয়া মিছিলে ধারালো অস্ত্র নিয়ে (ছুরি, কাঁচি) নিয়ে বের হওয়া যাবে না।  

হিজরির সাল অনুসারে ১০ মহররম কারবালায় হজরত মুহাম্মদ (সা.) এর দৌহিত্র ইমাম হোসেনের মৃত্যুর দিনটি সারাবিশ্বে মুসলমানরা পালন করেন। তাজিয়া মিছিলে অংশগ্রহণকারীরা মহানবী হযরত মুহাম্মদ (সা.) এর দৌহিত্র হযরত ইমাম হোসাইন ইবনে আলী (রা.) হিজরি ৬১ সনের ১০ মহররম কারবালার ফোরাত নদীর তীরে ইয়াজিদ বাহিনীর হাতে শাহাদৎ বরণ করেন। এই শোক ও স্মৃতিকে স্মরণ করে সারাবিশ্বে মুসলিমরা আশুরাকে ত্যাগ ও শোকের দিন হিসেবে পালন করেন।

তাজিয়া মিছিলে অংশগ্রহণকারীরা বাংলাদেশে যথাযোগ্য মর্যাদা ও ধর্মীয় ভাবগাম্ভীর্যের মধ্য দিয়ে পালিত হচ্ছে আশুরা। দিবসটি উপলক্ষে নানা কর্মসূচি পালিত হচ্ছে। দেশে শিয়া সম্প্রদায় মহররম মাসের প্রথম ১০ দিন শোক স্মরণে নানা কর্মসূচি পালন করে। আশুরার দিনে তাজিয়া বের করা হয় শোকের আবহে। মূলত ইমাম হোসেন (রা.) এর সমাধির প্রতিকৃতি নিয়ে এই মিছিলটি বের করা হয়।


মন্তব্য