kalerkantho

রবিবার। ৪ ডিসেম্বর ২০১৬। ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৩ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


প্রযুক্তিগত উদ্ভাবনে দেশকে এগিয়ে নিয়ে যেতে তরুণদের প্রতি আহ্বান

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৮ অক্টোবর, ২০১৬ ২১:৩০



প্রযুক্তিগত উদ্ভাবনে দেশকে এগিয়ে নিয়ে যেতে তরুণদের প্রতি আহ্বান

তথ্য যোগাযোগ ও প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনায়েদ আহমেদ পলক, প্রযুক্তিগত উদ্ভাবনে দেশকে এগিয়ে নিয়ে যেতে তরুণদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন।  
ব্র্যাকের উদ্যোগে এবং ভারতের ডিজিটাল এমপাওয়ারমেন্ট ফাউন্ডেশনের (ডিইএফ) সহযোগিতায় আজ শনিবার ‘ব্র্যাক মন্থন ডিজিটাল ইনোভেশন অ্যাওয়ার্ড’-এর পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ আহবান জানান।


তিনি বলেন, ‘আমাদের সৃজনশীল ও উদ্যমী তরুণরাই বিশ্বমঞ্চে বাংলাদেশের পতাকা সমুন্নত রাখছে। প্রয়োজনীয় পৃষ্ঠপোষকতা পেলে প্রযুক্তিগত উদ্ভাবনেও তারা দেশকে এগিয়ে নিয়ে যাবে’।  
উন্নয়নে প্রযুক্তির ব্যবহার এবং নতুন ডিজিটাল ও মোবাইল ইনোভেশনকে স্বীকৃতি দেয়ার জন্য বাংলাদেশে প্রথমবারের মত ব্র্যাক এই আয়োজন করে।  
রাজধানীর র‌্যাডিসন ব্লু ওয়াটার গার্ডেন হোটেলে আয়োজিত এই অনুষ্ঠান শুরু হয় দুপুর দুইটায়। প্রথম পর্বে চূড়ান্তভাবে মনোনীত ২৯ জন প্রতিযোগীর বিভিন্ন উদ্ভাবন নিয়ে আয়োজিত মেলাটি সকলের জন্য উন্মুক্ত ছিল। এই মেলা চলে সন্ধ্যা সাতটা পর্যন্ত।  
বিকেল চারটায় মেলা পরিদর্শন করেন তথ্য যোগাযোগ ও প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনায়েদ আহমেদ পলক। এসময় তাঁর সঙ্গে ছিলেন ব্র্যাকের নির্বাহী পরিচালক ডা. মুহাম্মাদ মুসা, ডিইএফ-এর প্রতিষ্ঠাতা ওসামা মানজার, ব্র্যাকের স্ট্র্যাটেজি ও কমিউনিকেশনস অ্যান্ড এমপাওয়ারমেন্ট-এর উর্ধ্বতন পরিচালক আসিফ সালেহ ।  
এরপর সংক্ষিপ্ত আলোচনা অনুষ্ঠানের পর বিজয়ীদের নাম ঘোষণা করা হয়। তাদের হাতে ক্রেষ্ট ও সনদপত্র তুলে দেন অতিথিরা। বিজয়ীরা বাংলাদেশের পক্ষ থেকে এবছর সরাসরি ভারতের মন্থন অ্যাওয়ার্ডে অংশগ্রহণ করতে পারবেন।  
ব্র্যাকের এই উদ্যোগের সহযোগিতায় ছিল প্রথম আলো। এ ছাড়াও ডিজিটাল মিডিয়া পার্টনার হিসাবে ছিল ওয়েবেবল। চ্যানেল ২৪ টিভি মিডিয়া পার্টনার এবং এক্সিবিশন পার্টনার ছিল ফ্রেডরিক নোমেন ফাউন্ডেশন ফর ফ্রিডম।  
উল্লেখ্য, গত ১০ এপ্রিল জাতীয় প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে নয়টি ক্যাটাগরিতে এই প্রতিযোগিতার উদ্বোধন করা হয়। সারা দেশ থেকে ১১৩ জন প্রতিযোগী এতে আবেদন করেন। বিষয়বস্তুর মান, সমাধানের প্রভাব, পণ্য/সেবার কার্যকারিতা এবং পণ্য/সেবা ব্যবহারে মানুষের উপকার পাওয়া-এই চারটি বিষয়ের উপর ভিত্তি করে জমাকৃত প্রজেক্টগুলোর মূল্যায়ন করে ১০ সদস্যের জুরিবোর্ড। তারা চূড়ান্ত পর্যায়ে ২৯ জনকে মনোনয়ন দেন। জুরিবোর্ডে ছিলেন প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের পলিসি অ্যাডভাইজার আনির চৌধুরী, দোহাটেক নিউ মিডিয়ার চেয়ারম্যান লুনা শামসুদ্দোহা, প্রথম আলোর ইয়ুথ প্র্গ্রোামের সমন্বয়কারী মুনির হাসান ও ব্র্যাকের পরিচালক কেএএম মোরশেদ।  
প্রতিযোগিতায় এবারের বিজয়ীরা হচ্ছেন- ই-বিজনেস অ্যান্ড ফাইনান্সিয়াল ইনক্লুশান ক্যাটাগরিতে হিউম্যাক ল্যাব লিমিটেড এর সেলিস্কোপ প্রজেক্ট; ই-এডুকেশন লার্নিং অ্যান্ড এমপ্লয়মেন্ট ক্যাটাগরিতে রেপ্টো এডুকেশন সেন্টার এর টেন মিনিটস স্কুল প্রজেক্ট; ই-এগ্রিকালচার অ্যান্ড ইকোলজি ক্যাটাগরিতে কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের কৃষকের জানালা-আপনার ফসলের সমস্যার সমাধান এখানেই প্রজেক্ট; ই-গভর্নেন্স অ্যান্ড ইনস্টিটিউশনস ক্যাটাগরিতে এনামেলবিডি-র ভ্যাট চেকার প্রজেক্ট; ই-হেলথ ক্যাটাগরিতে আরএক্স সেভেনটি ওয়ান লিমিটেডের আরএক্স সেভেনটি ওয়ান প্রজেক্ট; ই-নিউজ, জার্নালিজম অ্যান্ড এন্টারটেইনমেন্ট ক্যাটাগরিতে সফটওয়্যার শপ লিমিটেড-এর ই-টিউনস প্রজেক্ট; ই-কালচার, হেরিটেজ অ্যান্ড টুরিজম ক্যাটাগরিতে আকালিকো রেকর্ডসের ট্রান্সলেশন-অ্যান ইলেকট্রনিক মিউজিক কমপাইলেশন বাই আকালিকো রেকর্ডস প্রজেক্ট। দুইটি ক্যাটাগরিতে (এম-কনটেন্ট এবং ই-ওমেন, ইনক্লুশান অ্যান্ড এম্পাওয়ারমেন্ট ) আশানুরূপ ভাল না করায় কেউ পুরস্কার পায়নি।


মন্তব্য