kalerkantho

রবিবার। ৪ ডিসেম্বর ২০১৬। ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৩ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


'জঙ্গিদের সঙ্গে সম্পৃক্ততা প্রকাশের ভয়ে ক্রসফায়ার'

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৮ অক্টোবর, ২০১৬ ১৪:৪৪



'জঙ্গিদের সঙ্গে সম্পৃক্ততা প্রকাশের ভয়ে ক্রসফায়ার'

নিজেদের সম্পৃক্ততার কথা প্রকাশ হয়ে যাওয়ার ভয়ে সরকার বিচারের সম্মুখীন না করে জঙ্গিদের ক্রসফারের মাধ্যমে হত্যা করছে বলে অভিযোগ করেছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান। তিনি বলেন, আওয়ামী লীগের আমলে দেশে জঙ্গিবাদের উত্থান ঘটেছে।

আর বিএনপি সব সময় জঙ্গিবাদ দমন করেছে। তাই ক্ষমতাসীনদের বলবো জঙ্গি সন্দেহে ক্রসফায়ার নয়, জঙ্গিবাদ সমূলে উৎখাতের ব্যবস্থা করুন। বিএনপি যদি ক্ষমতায় আসে তাহলে জঙ্গিবাদ সমূলে নির্মূল করার চেষ্টা করবে। আজ শনিবার সকালে জাতীয় প্রেসক্লাবে এক প্রতিবাদ সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ সব কথা বলেন। বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা ও গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারির প্রতিবাদে দেশনেত্রী ফোরাম নামক একটি সংগঠন এ সভার আয়োজন করে।

নজরুল ইসলাম বলেন, তথাকথিত ১/১১ সরকারের সঙ্গে আঁতাতের নির্বাচন করে ষড়যন্ত্রের মাধ্যমে ক্ষমতায় আসা আওয়ামী লীগ সরকার জনগণের কাঠগড়ায় দাঁড়াতে হবে বলে ক্ষমতা ছাড়তে ভয় পাচ্ছে। তিনি বলেন, সরকার ও তার দলের নেতাকর্মীরা এখন বেপরোয়া। তারা মনে করে তাদের বিচার হবে না। বাস্তবেও তাই হচ্ছে। যার প্রমাণ, আওয়ামী লীগের হলে আত্মসমর্পণ না করেও রাষ্ট্রপতির ক্ষমা পাওয়া যেতে দেখা যায়। তিনি বলেন, বর্তমান সরকার স্বাভাবিকভাবেই ক্রমাগত অন্যায়, অপরাধ করে চলেছে। তাই বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া এবং সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানের বিরুদ্ধে একের পর এক মিথ্যা মামলা দায়ের করাটা অস্বাভাবিক নয়। মামলা হবে না বরং এটাই অস্বাভাবিক।

রামপালে কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎকেন্দ্র স্থাপনে কিছু মানুষের ব্যক্তিগত লাভের বিষয় রয়েছে উল্লেখ করে নজরুল ইসলাম খান বলেন, যারা সরকারের লুটপাটের ভাগ পায়, যারা দেশের স্বার্থ বিকিয়ে দিতে প্রস্তুত কেবল তারাই চায় রামপালে বিদ্যুৎকেন্দ্র স্থাপন করা হোক। আলোচনায় অংশ নিয়ে বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল বলেন, হজ পালনের সময় বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানের সঙ্গে কথা হয়েছে। তিনি এখন অনেকটা সুস্থ হয়ে উঠেছেন। প্রয়োজনে যেকোনো সময় তিনি দেশে ফিরতে পারেন। তার জন্য অপেক্ষা করার প্রয়োজন নেই। যার যতটুকু দায়িত্ব ততটকু পালন করে যান।

 


মন্তব্য