kalerkantho


ডান হাত ও ডান পায়েও সাড়া দিচ্ছেন খাদিজা

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৮ অক্টোবর, ২০১৬ ১৪:১২



ডান হাত ও ডান পায়েও সাড়া দিচ্ছেন খাদিজা

ছাত্রলীগ নেতার চাপাতির কোপে গুরুতর আহত খাদিজা বেগম নার্গিসের শারীরিক অবস্থার কিছুটা উন্নতি হয়েছে। তিনি একবার চোখ মেলেছিলেন, ডান হাত ও ডান পায়েও সাড়া দিয়েছেন।

শনিবার দুপুরে রাজধানীর স্কয়ার হাসপাতালে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে হাসপাতালের অ্যাসোসিয়েট মেডিক্যাল ডিরেক্টর মির্জা নাজিম উদ্দিন সাংবাদিকদের এ কথা জানান। মির্জা নাজিম উদ্দিন বলেন, ৯৬ ঘণ্টা পর আমরা একটু বলতে পারি তার (খাদিজা) অবস্থার উন্নতি হয়েছে। আরও দুই থেকে তিন সপ্তাহ পর তার নিউরোলজিক্যাল স্ট্যাটাস বোঝা যাবে। আমরা আশাবাদী, আপনারা জন্য তার দোয়া করবেন। পরে সংবাদ সম্মেলনে খাদিজার শারীরিক অবস্থার বিস্তারিত তুলে ধরেন খাদিজার অপারেশন করা চিকিৎসক নিউরো সার্জন ডা. এ এম রেজাউস সাত্তার। তিনি বলেন, খাদিজার বেঁচে থাকার সম্ভাবনা বেড়েছে। তার শরীর রেসপন্স করছে।

খাদিজার মতো গুরুতর আহত রোগীদের ক্ষেত্রে ৪ ঘণ্টার মধ্যে চিকিৎসা শুরু করতে পারলে ভালো হতো উল্লেখ করে তিনি বলেন, কিন্তু আমরা খাদিজাকে পেয়েছি ১২ থেকে ১৪ ঘণ্টা পর। সময়ের সঙ্গে সঙ্গে তার মস্তিষ্কের অবস্থা বোঝা যাবে। সে গতকাল (শুক্রবার) একবার চোখ খুলেছিল। এ ছাড়া তার ডান হাত ও ডান পা রেসপন্স করেছে। রেজাউস সাত্তার আরও বলেন, আগে খাদিজার বাঁচার সম্ভাবনা ছিল ৫ শতাংশ, এখন সেটা বেড়ে হয়েছে ১০ শতাংশ। তবে তার চেতনাশক্তির উন্নতি হয়নি। সে যখন স্কয়ার হাসপাতালে আসে তখন তার চেতনাশক্তি ছিল ৬, এখনও তাইই আছে।

উল্লেখ্য, গত ৩ অক্টোবর শাবি ছাত্রলীগের সহসম্পাদক বদরুল আলম সিলেট এমসি কলেজের পুকুর পাড়ে সিলেট সরকারি মহিলা কলেজের ছাত্রী খাদিজা আক্তার নার্গিসকে চাপাতি দিয়ে কুপিয়ে জখম করে। প্রথমে তাকে সিলেটে ওসমানী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে মঙ্গলবার (৪ অক্টোবর) ভোরে তাকে ঢাকায় আনা হয়। এ দিন দুপুরে স্কয়ার হাসপাতালে অস্ত্রোপচারের পর চিকিৎসকরা তাকে ৯৬ ঘণ্টা পর্যবেক্ষণে রাখেন।

 


মন্তব্য