kalerkantho

শুক্রবার । ৯ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৮ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


জঙ্গিবাদের মধ্যদিয়ে ইসলাম কায়েম হয় না : শিক্ষামন্ত্রী

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১ অক্টোবর, ২০১৬ ১৯:৩৭



জঙ্গিবাদের মধ্যদিয়ে ইসলাম কায়েম হয় না : শিক্ষামন্ত্রী

শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ বলেছেন, জঙ্গিবাদের মধ্যদিয়ে ইসলাম কায়েমের কোন পথ নেই। যারা এভাবে ইসলাম কায়েম করতে চায় তারা অন্ধ।


তিনি বলেন, তাদের জন্যই শান্তির ধর্ম ইসলাম নিয়ে বিশ্বজুড়ে এতো বিভ্রান্তি তৈরি হচ্ছে। তারপরও মুসলিম নামধারী একটি গোষ্ঠি দেশের মেধাবী তরুণদের ইসলাম কায়েম এবং বেহেস্ত যাওয়ার বিভ্রান্তিমূলক তথ্য দিয়ে জঙ্গীবাদে লিপ্ত করছে।
আজ সকালে নগরীর সরকারি ব্রজমোহন বিশ্ববিদ্যালয় কলেজের বীরশ্রেষ্ঠ ক্যাপ্টেন মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীর অডিটরিয়ামে ‘শিক্ষার উন্নত পরিবেশ-জঙ্গিবাদ মুক্ত শিক্ষাঙ্গন’ শীর্ষক মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি এ কথা বলেন।
এতে মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ড, বরিশাল এর চেয়ারম্যান প্রফেসর মু. জিয়াউল হক সভাপতিত্ব করেন।
নাহিদ বলেন, জঙ্গিদের ব্যাপারে ছাত্র-শিক্ষক সকলকে সচেতন থাকতে হবে। কারণ, ছাত্র-শিক্ষক কেউই জঙ্গিদের নজরের বাহিরে নয়।
তিনি বলেন, জঙ্গি দমনে সামাজিক সচেতনতা গড়ে তুলতে হবে। সকলকে এক সাথে নিয়ে প্রয়োজনে সামাজিক আন্দোলন গড়ে তুলতে হবে।
মন্ত্রী আরো বলেন, কোন শিক্ষক-শিক্ষার্থী যেন বিপদগামী না হয় সেদিকে সকলকে সজাগ দৃষ্টি রাখতে হবে। যদি ছাত্র কিংবা শিক্ষক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ১০ দিনের বেশি অনুপস্থিত থাকে তাহলে তাদের বিষয়ে খোঁজ নিতে হবে।
শিক্ষক ও অভিবাবকদের প্রতি আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, আপনারা সন্তান বা শিক্ষার্থীর প্রতি আন্তরিক হওয়ার চেষ্টা করুন। মাসে একটি করে নিজ নিজ প্রতিষ্ঠানে জঙ্গিবাদ বিরোধী সভা করুন। খেলাধুলা ও সাংস্কৃতিক কর্মকান্ড বাড়িয়ে শিক্ষার্থীদের তাতে সম্পৃক্ত করুণ।
এ মতবিনিময় সভায় বিশেষ অতিথি ছিলেন জেলা আওয়ামী লীগের সা. সম্পাদক ও বরিশাল-১ আসনের সংসদ সদস্য অ্যাড. তালুকদার মো. ইউনুস, বরিশাল-৫ (সদর) আসনের সংসদ সদস্য জেবুন্নেছা আফরোজ, শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সচিব সোহরাব হোসেন, মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের মহা-পরিচালক (ভারপ্রাপ্ত) শামসুল হুদা, মাদ্রাসা শিক্ষা অধিদপ্তরের মহা-পরিচালক বিল্লাল হোসেন, বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য ড. এস এম ইমামুল হক, বিভাগীয় কমিশনার মো. গাউস, নগর পুলিশের কমিশনার এস এম রুহুল আমিন, জেলা প্রশাসক ড. গাজী মো. সাইফুজ্জামানসহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের উর্দ্ধতন কর্মকর্তা-কর্মচারীবৃন্দ।


মন্তব্য