kalerkantho

রবিবার। ৪ ডিসেম্বর ২০১৬। ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৩ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


কুড়িগ্রাম সরকারি কলেজের সবুজ চত্বরে চিরশায়িত হলেন সৈয়দ শামসুল হক

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ১৭:০৬



কুড়িগ্রাম সরকারি কলেজের সবুজ চত্বরে চিরশায়িত হলেন সৈয়দ শামসুল হক

সব্যসাচী লেখক, কথাসাহিত্যিক, কবি সৈয়দ শামসুল হককে কুড়িগ্রাম সরকারি কলেজ মাঠ চত্বরে সমাহিত করা হয়েছে। বুধবার বিকেল ৪টা ৪৫ মিনিটে দাফন সম্পন্ন হয় বলে জানিয়েছেন কালের কণ্ঠের স্থানীয় প্রতিনিধি আব্দুল খালেক ফারুক।

তিনি জানান,  দাফনের সময় উপস্থিত ছিলেন  সংস্কৃতি মন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর, জেলা পরিষদের প্রশাসক জাফর আলী, কুড়িগ্রামের জেলা প্রশাসক খান মোহাম্মদ নুরুল আমিন, রংপুর অঞ্চলের স্থানীয় কবি সাহিত্যিক ও অনুরাগীরা।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় মসজিদে জানাজা শেষে জন্মস্থান কুড়িগ্রামের উদ্দেশে নেওয়া হয় কবি সৈয়দ শামসুল হকের মরদেহ। বুধবার বাদ জোহর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় মসজিদে জানাজা অনুষ্ঠিত হয়। জানাজা শেষ হওয়ার পর তাঁর কফিনবহনকারী অ্যাম্বুলেন্সটি বেলা পৌনে ২টার দিকে শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমান বন্দরের উদ্দেশে রওয়ানা হয়।   এরপরে সেখান থেকে হেলিকপ্টারযোগে কবির মরদেহ কুড়িগ্রামের উদ্দেশ্যে রওনা হয়।

বিকেল ৩ টা ৫৬ মিনিটে কুড়িগ্রামে  সৈয়দ শামসুল হকের মরদেহ বহনকারী হেলিকপ্টার কুড়িগ্রাম সরকারি কলেজ মাঠে অবতরণ করে। মরদেহ গ্রহণ করেন কুড়িগ্রাম জেলা পরিষদের প্রশাসক জাফর আলী, কুড়িগ্রামের জেলা প্রশাসক খান মোহাম্মদ নুরুল আমিন।   এরপর সেখানে জানাজা শেষে দাফন সম্পন্ন হয়।  

এর আগে শেষ শ্রদ্ধা জানানোর জন্য কবির লাশ কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে রাখা হয়। সেখানে সকাল ১১টার দিকে রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ কবিকে শেষ শ্রদ্ধা জানান। এরপর প্রধানমন্ত্রীর পক্ষ থেকে শ্রদ্ধা জানানো হয়। রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর পর কবিকে শ্রদ্ধা জানানোর জন্য শহীদ মিনার প্রাঙ্গণ সর্বসাধারণের জন্য উন্মুক্ত করা হয়। বিভিন্ন সামাজিক সাংস্কৃতিক, রাজনৈতিক দলের নেতৃবৃন্দ কবিকে শেষ শ্রদ্ধা জানান। মানুষের ভালোবাসায় সিক্ত হন তিনি।

 


মন্তব্য