kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ৮ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৭ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


২৮ সেপ্টেম্বর আন্তর্জাতিক তথ্য অধিকার দিবস

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২২ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ২০:২৬



২৮ সেপ্টেম্বর আন্তর্জাতিক তথ্য অধিকার দিবস

আগামী ২৮ সেপ্টেম্বর (বুধবার) আন্তর্জাতিক তথ্য অধিকার দিবস।  
বিশ্বের বিভিন্ন দেশের জনগণকে নিজ-নিজ দেশের সব ধরনের তথ্য জানার অধিকারের বিষয়ে তাদের সচেতনতা বাড়াতে প্রতিবছর ২৮ অক্টোবর আন্তর্জাতিকভাবে এ দিবস পালন করা হয়।


পৃথিবীর অন্যান্য দেশের ন্যায় বাংলাদেশেও নানা কর্মসূচির মধ্যদিয়ে সরকারী ও বেসরকারি উদ্যোগে আগামী ২৮ সেপ্টেম্বর ‘আন্তর্জাতিক তথ্য অধিকার দিবস-২০১৬’ পালন কার হবে। এদিকে সরকারিভাবে এদিবস উপলক্ষে ব্যাপক উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে।  
তথ্য মন্ত্রণালয়ের তত্ত্বাবধানে তথ্য কমিশন আয়োজিত দিবসটির মূল অনুষ্ঠানে রাষ্ট্রপতি মোঃ আব্দুল হামিদ প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন।  
আজ তথ্য মন্ত্রণালয়ের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ কথা বলা হয়। এতে জনানো হয়,রাজধানীর ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে ওইদিন (২৮ সেপ্টেম্বর) দুপুরে মূর অনুষ্ঠানে তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু, প্রধান তথ্য কমিশনার ড. মোঃ গোলাম রহমান,তথ্য মন্ত্রণালয়ের সচিব মরতুজা আহমদ ও তথ্য কমিশনারবৃন্দ দিবসটির গুরুত্ব তুলে ধরতে বক্তব্য রাখবেন বলে ।  
অপরদিকে তথ্য অধিকারের বিষয়টিকে জনপ্রিয় করে তোলার লক্ষ্যে অনুষ্ঠানের শেষে একটি মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক পর্ব পরিচালনার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে উল্লেখ করে বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, এজন্য তথ্যমন্ত্রীর নেতৃত্বে উদযাপন পরিষদ গঠিত হয়েছে। আমন্ত্রিত সুধীজনদের অংশগ্রহণে গ্রন্থিত এ অনুষ্ঠানটি বাংলাদেশ টেলিভিশন ও বাংলাদেশ বেতার সরাসরি সম্প্রচার করার প্রস্তুতি নিচ্ছে।  
এছাড়াও দেশের প্রত্যেক জেলায় স্থানীয়ভাবে জেলা-প্রশাসনের উদ্যোগে দবসটি পালিত হবে।
সারাদেশের মানুষকে তথ্যের অধিকার বিষয়ে আরো সচেতন করতে ঢাকাসহ প্রতিটি জেলায় তথ্য অফিসের সহায়তায় আন্তর্জাতিক তথ্য অধিকার দিবস উপলক্ষে ওইদিন র‌্যালি, সমাবেশ, তথ্য অধিকারভিত্তিক প্রামাণ্যচিত্র ও চলচ্চিত্র প্রদর্শনী অনুষ্ঠিত হবে।  
পাশাপাশি দিবস উপলক্ষ্যে রাষ্ট্রপতি, প্রধানমন্ত্রী, তথ্যমন্ত্রী, প্রধান তথ্য কমিশনার ও তথ্য সচিব বাণী প্রদান করবেন।
এছাড়া তথ্য কমিশনারবৃন্দের নিবন্ধ সমৃদ্ধ বিশেষ স্মরণিকা প্রকাশ ও তথ্য অধিকারকে উপজীব্য করে পোস্টার মুদ্রণ এবং গণমাধ্যমে এ দিবস সম্পর্কে প্রচারের উদ্যোগ নিয়েছে তথ্য কমিশন।
তথ্য অধিদফতর এবং চলচ্চিত্র ও প্রকাশনা অধিদপ্তর যথাক্রমে প্রচার ও মুদ্রণের কাজে সহায়তা করছে।  


মন্তব্য