kalerkantho

শুক্রবার । ৯ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৮ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


অভিবাসনে রূপরেখা প্রণয়নে আগ্রহী বাংলাদেশ

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২২ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ১০:৩৪



অভিবাসনে রূপরেখা প্রণয়নে আগ্রহী বাংলাদেশ

বাংলাদেশ নিরাপদ, সুশৃঙ্খল ও নিয়মিত অভিবাসনসংক্রান্ত গ্লোবাল কমপ্যাক্ট রূপরেখা প্রণয়নে সহযোগিতা করতে বাংলাদেশ আগ্রহী বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। নিউ ইয়র্কে জাতিসংঘের সদর দপ্তরে স্থানীয় সময় বুধবার বিকেলে সাধারণ পরিষদে দেওয়া ভাষণে তিনি এ আগ্রহের কথা জানান।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, বাংলাদেশ নিরাপদ, সুশৃঙ্খল ও নিয়মিত অভিবাসনসংক্রান্ত গ্লোবাল কমপ্যাক্ট রূপরেখা প্রণয়নে সহযোগিতা করতে আগ্রহী। আসছে ডিসেম্বরে গ্লোবাল ফোরাম অন মাইগ্রেশন অ্যান্ড ডেভলপমেন্ট আয়োজন যাচ্ছি। এখানে আমরা অভিবাসনবিষয়ক গঠনমূলক সংলাপের প্রত্যাশা করছি।

জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদের ৭১তম অধিবেশনে দেওয়া প্রায় ১৯ মিনিটের ভাষণে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বাংলাদেশের উন্নয়ন, জলবায়ু, নারীর ক্ষমতায়নসহ নানা বিষয় তুলে ধরেন। একই সঙ্গে জাতিসংঘের বিদায়ী মহাসচিব বান কি-মুনকে বাংলাদেশের বন্ধু উল্লেখ করে শেখ হাসিনা বলেন, তিনি সব সময় বাংলাদেশের উন্নয়নের অর্জনগুলোকে বিশ্বের অন্যান্য দেশের জন্য রোল মডেল হিসেবে তুলে ধরেছেন। নারী ক্ষমতায়নে তিনি বলেন, নারীর অংশগ্রহণ ছাড়া টেকসই উন্নয়ন সম্ভব নয়। প্রায় অর্ধ দশক পূর্বে নারীর শিক্ষার বাড়ানোর বিভিন্ন পদক্ষেপের ফল আমরা পেতে শুরু করেছি। বাংলাদেশের নারীরা এখন উন্নয়নের অবিচ্ছেদ্য অংশীদার।

প্রায় ৩.৫ মিলিয়ন নারী এখন আমাদের প্রধানতম রপ্তানি খাত তৈরি পোশাকশিল্পে কর্মরত। সব পেশায় নারীর অংশগ্রহণ বাড়ছে। সম্ভবত বাংলাদেশ পৃথিবীর একমাত্র দেশ যেখানে প্রধানমন্ত্রী ও সংসদ নেতা, বিরোধদলীয় নেতা, স্পিকার, সংসদ উপনেতা সকলেই নারী। চলমান জাতীয় সংসদের আমাদের ৭০ নারী সংসদ সদস্য রয়েছেন বলেও উল্লেখ করেন তিনি। মানবতার কল্যাণে বিশ্ব সম্প্রদায়কে এগিয়ে আসার আহ্বান জানিয়ে শেখ হাসিনা বলেন, বিশ্বায়নের এই যুগে নানা চ্যালেঞ্জ রয়েছে। তবে আমরা যদি সঠিক পন্থা অবলম্বন করি- তাহলে এখানে সম্ভাবনা ও সুযোগও রয়েছে প্রচুর। এক মানবতার জন্য কাজ করার উদ্দেশ্যে আমরা সকলে এখানে সমবেত হয়েছি।

 


মন্তব্য