kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ৮ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৭ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


ঢাকাকে বাসযোগ্য আধুনিক শহরে পরিণত করা হবে: গৃহায়ন মন্ত্রী

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

২১ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ১৮:১৪



ঢাকাকে বাসযোগ্য আধুনিক শহরে পরিণত করা হবে: গৃহায়ন মন্ত্রী

গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন বলেছেন, রাজধানী ঢাকাকে বাসযোগ্য আধুনিক শহরে পরিণত করা হবে।
তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এমনটিই চান।

আর এ ব্যাপারে তিনি বেশ আন্তরিক ও উদার।
আজ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সিনেট ভবনে দু’দিনব্যাপী ‘চতুর্থ আরবান ডায়লগ ২০১৬’ এর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি এ কথা বলেন।
আরবান এনজিও ফোরাম, বাংলাদেশ এবং ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের দুর্যোগ বিজ্ঞান ও ব্যবস্থাপনা বিভাগ যৌথভাবে এ ডায়লগের আয়োজন করেছে।
ঢাবি উপ-উপাচার্য অধ্যাপক নাছরীন আহমেদের সভাপতিত্বে অনুুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আনিসুল হক ও হেবিটেট ফর হিউমানিটি বাংলাদেশ এর পরিচালক জন আর্মস্ট্রং।
‘টুওয়ার্ডস হেলথি এ্যান্ড রেসিলিয়েন্ট সিটিস’ অর্থাৎ ‘সুস্থ ও প্রাণবন্ত শহর চাই’ শীর্ষক মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন সেন্টার ফর আরবান স্টাডিজের (সিইউএস) চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. নজরুল ইসলাম।
স্বাগত বক্তৃতা প্রদান করেন আয়োজক ঢাবির দুর্যোগ বিজ্ঞান ও ব্যবস্থাপনা বিভাগের প্রধান অধ্যাপক এএসএম মাকসুদ কামাল এবং ওয়ার্ল্ড ভিশন বাংলাদেশের পরিচালক ফ্রেড উইটিভেন।
গৃহায়ন মন্ত্রী বলেন, ঢাকাকে আধুনিক শহরে রূপান্তরিত করতে সরকার বুড়িগঙ্গা, শীতলক্ষা ও বালু নদীর পানি দুষণ মুক্ত করার পরিকল্পনা গ্রহণ করেছে।
তিনি বলেন, সেই সাথে রাজধানীর স্যুয়ারেজের পানি স্ল্যুইফ সিস্টেমের মাধ্যমে পরিশোধন করে নদীতে ফেলার উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে।
মোশাররফ হোসেন বলেন, পূর্বাচল হবে বাংলাদেশের সবচেয়ে স্মার্ট সিটি। এ শহরের পয়ঃনিস্কাশন ও স্যুয়ারেজের লাইনের পানি শুরু থেকেই স্ল্যুইফ সিস্টেমের মাধ্যমে পরিশোধিত হয়ে নদীতে পরবে।
তিনি বলেন, পূর্বাচলে ১৪২ তলা বিশিষ্ট একটি আইকোনিক টাওয়ার নির্মাণের পরিকল্পনাও তার সরকারের রয়েছে।
নগরীতে কোন বস্তি থাকবে না উল্লেখ করে গণপূর্ত মন্ত্রী বলেন, এ লক্ষ্যে বর্তমান সরকার বস্তিবাসীদের পূনরবাসনের জন্য ন্যাশনাল হাউজিং অথোরিটির মাধ্যমে ফ্ল্যাট নির্মাণ করছে। এসব ফ্ল্যাট সহজ শর্তে বস্তিবাসীর মধ্যে বিতরণ করা হবে।
কড়াল বস্তি এলাকার জমি নিয়েও সরকারের মহা পরিকল্পনা রয়েছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, এ বস্তি থাকবে না। এখানকার বাসিন্দাদের পূনরবাসন করে এ জমিতে আইসিটি পার্ক গড়ে তোলা হবে।
মন্ত্রী বলেন, সরকার বস্তিবাসীদের শহরের বাইরে পূনরবাসনের জন্য বিভিন্ন উপজেলায়ও পরিকল্পিকভাবে আবাসিক নগরী গড়ে তুলছে। ইতোমধ্যে ৭০টি উপজেলায় এ কাজ শুরু হয়েছে। পর্যায়ক্রমে সব উপজেলাতেই এ প্রকল্প গ্রহণ করা হবে।
তিনি বলেন, পরিকল্পিত ওইসব নগরীতে স্কুল, খেলার মাঠসহ সব ধরণের নাগরিক সুযোগ-সুবিধা থাকবে।
মেয়র আনিসুল হক বলেন, পরিচ্ছন্ন নগরী উপহার দিতে ঢাকা ও চট্টগ্রামের তিন মেয়র কঠোর পরিশ্রম করে চলেছে।
ফুটপাথ দখলমুক্ত করতে তাদের শক্তিও প্রয়োগ করতে হচ্ছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, মেয়র কোন মাস্তান নয়, কিন্তু প্রয়োজনে তাদের কঠোর হতে হচ্ছে। তবে এখনও যারা ফুটপাথ দখল করে রেখেছেন, তারা তা ছেড়ে দেন। তা না হলে নগরীকে পরিচ্ছন্ন রাখতে আমাদের বুলডোজার চালানো ছাড়া উপায় থাকবে না।
মেয়র বলেন, দায়িত্ব পালন করছি ১ বছর ৩ মাস যাবত। এর মধ্যে সাফল্য যতটুকু এসেছে, তা নগরবাসীর সহায়তায়।
তিনি বলেন, ৩ বছর ৭ মাস পর যখন ক্ষমতা ছেড়ে দেব, আশা করি তখন দেখবেন ঢাকা এখনকার মত আর নেই, এক অন্য শহরে পরিণত হয়েছে।


মন্তব্য