kalerkantho

সোমবার । ৫ ডিসেম্বর ২০১৬। ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৪ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


বাংলাদেশ বর্তমানে খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণ : মতিয়া চৌধুরী

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ১৮:১৮



বাংলাদেশ বর্তমানে খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণ : মতিয়া চৌধুরী

কৃষিমন্ত্রী বেগম মতিয়া চৌধুরী বলেছেন, সরকার এবং কৃষি বিজ্ঞানীদের অক্লান্ত পরিশ্রমে বাংলাদেশ বর্তমানে খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণ।
তিনি বলেন, ‘যখনই শেখ হাসিনা বা আওয়ামী লীগ সরকার ক্ষমতায় আসে তখনই দেশ খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণ হয়।

’ ৯৮-এর বন্যার পর বিবিসি থেকে বলা হয়েছিল ২ কোটি মানুষ মারা যাবে। কিন্তু আল্লাহর রহমতে দুইটা পিপড়াও মারা যায় নাই । ’
মতিয়া চৌধুরী আজ বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা ইনিস্টিটিউট এর কাজী বদরুদ্দোজা মিলনায়তনে ৯দিন ব্যাপী কেন্দ্রীয় গবেষণা পর্যালোচনা ও কর্মসূচি প্রনয়ন কর্মশালা-২০১৬ এর উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এ কথা বলেন।
কৃষি মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব মো. মোশারফ হোসেনের সভাপতিত্বে এতে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন কৃষি মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি মো. মকবুল হোসেন এমপি ও স্থায়ী কমিটির সদস্য মো. আব্দুল মান্নান এমপি।
বিএআরআই এর গবেষনা কার্যক্রম ও সাফল্যের উপর সংক্ষিপ্ত উপস্থাপনা করেন বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউট এর মহা পরিচালক ড. মো. রফিকুল ইসলাম মণ্ডল। স্বাগত বক্তব্য রাখেন বিএআরআই এর পরিচালক (গবেষনা) ড. মো. জালাল উদ্দিন এবং ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন বিএআরআই এর পরিচালক ড. বীরেশ কুমার গোস্বামী।
সেদিন কৃষকদের পাশে আওয়ামী লীগ সরকার দাঁড়িয়েছিল উল্লেখ করে কৃষিমন্ত্রী বলেন, সেই সময় খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণ হয়েই বন্যায় মানুষের পূর্নবাসনে কাজ করা হয়েছিল।
কৃষি বিভাগের বিভিন্ন প্রকল্পের বৈজ্ঞানিকগণ তাদের স্ব স্ব প্রকল্পের সাফল্য কর্মশালায় তুলে ধরেন। গত অর্থ বছরে যে সকল গবেষনা কর্মসূচী হাতে নেওয়া হয়েছিল সেগুলোর মূল্যায়ন এবং এইসব অভিজ্ঞতার আলোকে আগামী বছরে গবেষনা কর্মসূচী প্রনয়নের উদ্দেশ্য এই কর্মশালার আয়োজন করা হয়।
কর্মশালায় বলা হয় , বাংলাদেশ কৃষি গবেষনা ইনস্টিটিউট এ পর্যন্ত ২০০টিরও বেশি ফসলের ৪৭১টি উচ্চ ফলনশীল (হাইব্রিডসহ) রোগ প্রধিরোধক্ষম ও বিভিন্ন প্রতিকূল পরিবেশ প্রতিরোধীজাত এবং ৪৫২টি অন্যান্য প্রযুক্তিসহ ৯০০টিরও বেশি প্রযুক্তি উদ্ভাবন করেছে। এ সকল প্রযুক্তি উদ্ভাবনের ফলে দেশে গম, তেলবিজ, ডাল শস্য, আলু, সবজি, মসলা এবং ফলের উৎপাদন ব্যাপক ভাবে বৃদ্ধি পেয়েছে।


মন্তব্য