kalerkantho

সোমবার । ৫ ডিসেম্বর ২০১৬। ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৪ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


রিকশাচালককে গুলি

গুলশানে অস্ত্রসহ যুবলীগ নেতা গ্রেপ্তার

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ২০:৪৫



গুলশানে অস্ত্রসহ যুবলীগ নেতা গ্রেপ্তার

রাজধানীর বনানীতে রিকশাচালককে গুলির ঘটনায় অভিযুক্ত যুবলীগ নেতা ইউসুফ সরদার সোহেলকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। আজ শুক্রবার গুলশানের একটি হোটেল থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।

এ সময় তার বৈধ আগ্নেয়াস্ত্রটিও জব্দ করা হয়।

প্রসঙ্গত, গতকাল বৃহস্পতিবার রাতে ভাড়া নিয়ে বাকবিতণ্ডার জেরে রিকশাচালক কবির উদ্দিনকে গুলি করেন সোহেল। তিনি বনানী থানা যুবলীগের যুগ্ম-আহ্বায়ক।

এ ব্যাপারে বনানী থানার পরিদর্শক (তদন্ত) ওয়াহিদুজ্জামান বলেন, ওই ঘটনার পরপরই পুলিশ জড়িত ব্যক্তিকে ধরতে তৎপর হয়। নাম-পরিচয় নিশ্চিত হওয়ার পর শুক্রবার দুপুরে গুলশানের হোটেল আমরি থেকে সোহেলকে গ্রেপ্তার করা হয়।

পরিদর্শক ওয়াহিদুজ্জামান জানান, গুলিবিদ্ধ রিকশাচালক কবির উদ্দিনকে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হয়। তিনি আরো জানান, বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ১১টার দিকে তিনি গুলশান থেকে দুজন যাত্রী নিয়ে বনানীর দুই নম্বর সড়কে আসেন। এ সময় ভাড়া চাইলে যাত্রীদের একজন তাকে ৩০ টাকা দেন। তিনি ৫০ টাকা ভাড়া দাবি করলে দুই পক্ষে বাকবিতণ্ডা হয়। এক পর্যায়ে উত্তেজিত হয়ে এক যাত্রী পিস্তল বের করে গুলি ছোড়েন। গুলিটি তার পায়ে বিদ্ধ হয়। এ সময় ওই দুই যাত্রী পালিয়ে যান। পরে চান মিয়া নামে পরিচিত এক ব্যক্তি তাকে উদ্ধার করে ঢামেক হাসপাতালে নিয়ে যান।

চিকিৎসকরা জানান, গুলিতে রক্তক্ষরণের ফলে কবির কিছুটা দুর্বল হয়ে পড়েছেন। তবে তিনি শঙ্কামুক্ত।

পুলিশ জানায়, রিকশাচালকের বর্ণনা অনুযায়ী দায়ী ব্যক্তিকে শনাক্ত করতে চেষ্টা চালায় পুলিশ। পাশাপাশি বিভিন্ন সূত্র থেকে তথ্য সংগ্রহ করা হয়। এক পর্যায়ে জানা যায়, যুবলীগ নেতা সোহেল গুলি করেছেন। এরপর তার অবস্থান শনাক্ত করে গ্রেপ্তার অভিযান চালানো হয়। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে তিনি গুলি করার কথা স্বীকার করেছেন। এটাকে ‘ভুল বোঝাবুঝি’ বলে দাবি করেন তিনি। ওই ঘটনার সময় সোহেল নেশাগ্রস্ত ছিলেন কিনা তাও খতিয়ে দেখছে পুলিশ।


মন্তব্য