kalerkantho

শনিবার । ১০ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৯ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


শরীয়তপুর ও টাঙ্গাইলের কিছু জায়গায় কোরবানির ঈদ উদযাপিত

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১২ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ২২:৩৫



শরীয়তপুর ও টাঙ্গাইলের কিছু জায়গায় কোরবানির ঈদ উদযাপিত

শরীয়তপুর জেলার ৪ উপজেলার ৩০টি গ্রামে সোমবার পবিত্র ঈদুল আজহা উদযাপিত হচ্ছে। এই গ্রামের মানুষেরা সুরেশ্বর পীরের অনুসারীরা।

গ্রামগুলোতে অন্তত ১০ হাজার মানুষ বাস করেন।
সৌদি আরবের সঙ্গে মিল রেখে বাংলাদেশে একদিন আগেই সুরেশ্বর দরবার পীরের ভক্ত ও মুরিদানরা ঈদ ও রোজা পালন করে থাকেন। শত বছরেরও বেশি সময় ধরে এমন রেওয়াজই চলে আসছে।
সোমবার সকাল সাড়ে ১০টায় সুরেশ্বর দরবার শরীফে ঈদের প্রধান জামাতে অনুষ্ঠিত হয়। নামাজে ইমামতি করেন সুরেশ্বর দরবার শরীফের গদিনীশীন মুত্তাওয়ালী মাওলানা সৈয়দ মোঃ বেলাল নূরী। নামাজ শেষে সকলেই কোলাকুলি করেন এবং সেমাই ও পোলাও খেয়ে ঈদের আনন্দ ভাগাভাগি করে নেন।
সুরেশ্বর দরবার শরীফের গদিনীশীন মুত্তাওয়ালী মাওলানা সৈয়দ মোঃ কামাল নুরী বলেন, সৌদি আরবসহ আরব দেশ সমূহের সাথে মিল রেখে প্রায় শত বছরের ও বেশী দিন ধরে সুরেশ্বর দরবার শরীফের মুরিদান ও ভক্তরা ঈদ উৎসব পালন করে আসছে। সেই ধারাবাহিকতায় সোমবার আমরা ঈদুল আজহা পালন করছি।
এদিকে সৌদি আরবের সাথে মিল রেখে সোমবার টাঙ্গাইল জেলার দেলদুয়ার উপজেলার লাউহাটী ইউনয়িনের শশীনাড়া গ্রামে ঈদুল আজহা পালিত হচ্ছে। সকাল ৮টায় স্থানীয় মসজিদে ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হয়। শতাধিক মুসুল্লী জামাতে ঈদের নামাজ আদায় করেন। নামাজে ইমামতি করনে হাফেজ মো. শামীম। নামাজ শেষে দেশ ও জাতির কল্যাণে মোনাজাত করা হয়। পরে মহান আল্লাহতায়ালার সন্তুষ্টি লাভের জন্য পশু কোরবানি করা হয়।
এলাকাবাসীরা জানান, ইসলামের তীর্থভূমি হচ্ছে সৌদি আরব। তাই সৌদির সঙ্গে মিল রেখেই ঈদ উদযাপন করেন তারা।
উপোরক্ত স্থানগুলো ছাড়াও চাঁদপুরের ৪০টি গ্রামে, লক্ষ্মীপুরের ১০ গ্রামে এবং মাদারীপুরের ২০টি গ্রামের মানুষ বরাবরের মতো এবারও সৌদি আরবের সঙ্গে মিল রেখে বাংলাদেশে একদিন আগেই ঈদুল আজহা পালন করছে বলে জানিয়েছেন আমাদের প্রতিনিধিরা।


মন্তব্য