kalerkantho

রবিবার। ৪ ডিসেম্বর ২০১৬। ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৩ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


চট্টগ্রামের ৬০ গ্রামে পালিত হচ্ছে কোরবানির ঈদ

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১২ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ২০:২৬



চট্টগ্রামের ৬০ গ্রামে পালিত হচ্ছে কোরবানির ঈদ

সৌদি আরবের সঙ্গে মিল রেখে চট্টগ্রামের ৬০টি গ্রামে সোমবার উদযাপিত হচ্ছে পবিত্র ঈদুল আজহা। সকালে ঈদের নামাজ শেষে পশু কোরবানি করেছেন এসব গ্রামের মানুষ।


মূলত চট্টগ্রামের চন্দনাইশ উপজেলার জাহাঁগিরিয়া শাহ্সুফি মমতাজিয়া দরবার শরীফ ও সাতকানিয়ার মির্জারখীল দরবার শরীফের অনুসারীরা প্রতি বছর সৌদি আরবের সঙ্গে মিল রেখে দেশের অন্যান্য অঞ্চলের চেয়ে একদিন আগেই ঈদ উদযাপন করে থাকেন। সৌদি আরবে হজ পালনের পরের দিন এই দরবারের অনুসারীরা বিগত আড়াইশত বছরের অধিক সময় ধরে ঈদুল আজহা উদযাপন করে আসছেন।
মির্জারখীল দরবার শরীফের মুরিদ ও মির্জারখীল আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়ের সাবেক প্রধান শিক্ষক বজলুল করিম চৌধুরী জানান, মির্জারখীলে পুরো গ্রামের মানুষ সোমবার ঈদুল আজহা পালন করছেন। প্রায় দুই শতাধিক বছর ধরে মির্জারখীল দরবার শরীফের মুরিদরা সৌদি আরবের সাথে মিল রেখে দেশের অন্যান্য স্থানের একদিন আগে ঈদুল আজহা উদযাপন করেন। একই ভাবে রোজা পালন ও ঈদুল ফিতর উদযাপনও সৌদি আরবের সাথে সঙ্গতি বজায় রাখে এখানকার মানুষ।
তিনি আরো জানান, চট্টগ্রাম ছাড়াও দেশের বিভিন্ন স্থানে মির্জারখীল দরবার শরীফের মুরিদ রয়েছে। যেসব এলাকায় ভক্তের সংখ্যা বেশি সেসব এলাকায় তারা নিজেরাই ঈদের নামাজের আয়োজন করেন। আর যেসব এলাকায় মুরিদ কম তারা মির্জারখীল দরবার শরীফে এসে ঈদের নামাজ আদায় করেন। ঈদের নামাজ আদায়ের জন্য দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে প্রায় শতাধিক মুরিদ দরবার শরীফ এলাকায় এসেছেন।
জেলার চন্দনাইশের পশ্চিম এলাহাবাদ, কাঞ্চননগর, মাইজপাড়া, জুনিঘোনা, আব্বাস পাড়া, সৈয়দাবাদ, দক্ষিণ কাঞ্চননগর, খুনিয়ার পাড়া, হাশিমপুর, কেশুয়া, সাতবাড়িয়া, মোহাম্মদপুর, হারালা, বাশঁখালীর জলদি, কালিপুর, গুনাগড়ি, গন্ডামারার মিঞ্জিরিতলা, সনুয়া, সাধনপুর, আনোয়ারার তৈলার দ্বীপ, বাথুয়া, বারখাইন, বোয়ালখালির চরনদ্বীপ, খরনদ্বীপ, লোহাগাড়ার আমিরাবাদ, চুনতি, বরহাতিয়া, পুটিবিলা, উত্তর সুখছড়ি, আদুনগর, সাতকানিয়ার মির্জারখীল, বাংলাবাজার, মইশামুড়া, খোয়াছপাড়া, বাজালিয়া, কাঞ্চনা, গাঠিয়াডাঙ্গা, পুরাণগর, মলেয়াবাদ গ্রামসহ দক্ষিণ চট্টগ্রামের ৬০টি গ্রামে ঈদুল আজহা পালিত হচ্ছে সোমবার।
দক্ষিণ চট্টগ্রাম ছাড়াও জেলার সীতাকুণ্ড, সন্দ্বীপ, মীরসরাই, হাটহাজারী, রাঙ্গুনিয়া, উখিয়া, বান্দরবান, আলী কদম এলাকায় সকালে ঈদের জামায়াত অনুষ্ঠিত হয়েছে। পশু কোনবানীও দেওয়া হয়েছে।


মন্তব্য