kalerkantho


টঙ্গীতে বয়লার বিস্ফোরণে নিহতের সংখ্যা বেড়ে ২৪

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

১০ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ১৮:০১



টঙ্গীতে বয়লার বিস্ফোরণে নিহতের সংখ্যা বেড়ে ২৪

গাজীপুর জেলার টঙ্গীর বিসিক শিল্প নগরী এলাকায় একটি প্যাকেজিং কারখানায় বয়লার বিস্ফোরণ থেকে সৃষ্ট ভয়াবহ আগুনে নিহত বেড়ে ২৪ জনে দাঁড়িয়েছে। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন অর্ধশতাধিক শ্রমিক।


আজ শনিবার ভোর ৬টার দিকে ট্যাম্পাকো ফয়েলস নামক কারখানায় এ অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে।

টঙ্গী ৫০ শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতালে ১৯ জনের এবং ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে (ঢামেকে) পাঁচজনের মরদেহ রাখা হয়েছে।

ঢাকা মেডিক্যালের পাঁচজনের মধ্যে চারজন হলেন- ওহেদুজ্জামান (৪০), অজ্ঞাত নারী (৩০), দেলোয়ার হোসেন (৩৫) ও আনোয়ার হোসেন (২৫)।

আর টঙ্গী ৫০ শয্যা হাসপাতালে সুলায়মান (৩০), ইদ্রিস (৪০), আবদুল হান্নান (৬৫), আল মামুন (৪০), শঙ্কর সরকার (২৫), জাহাঙ্গীর আলম (৫০), সুভাস চন্দ্র (৪০), রফিকুল ইসলাম (২৮), রেদোয়ান (৩৫), জয়নুল (৩৭), আনোয়ার (৪০), প্রকৌশলী আনিসুর রহমান (৪০), রাজেশ (২২), রাশেদ (২৮) ও মাইনুদ্দিনের (৩২)  মরদেহ রয়েছে। বাকি লাশের পরিচয় জানা যায়নি।

গাজীপুর ফায়ার সার্ভিসের উপসহকারী পরিচালক আখতারুজ্জামান জানান, অগ্নিকাণ্ডে পাঁচতলা ভবন পুরোটা ধসে গেছে। এখন পর্যন্ত ২৪ জন নিহত হয়েছেন।

এদের মধ্যে ভবন থেকে ১৯ জনের মরদেহ উদ্ধার করে টঙ্গী ৫০ শয্যার হাসপাতালে রাখা হয়েছে। আর আহত ৩৫ জনকে ঢামেক নেয়া হলে সেখানে আরও পাঁচজনের মৃত্যু হয়।

নিহতদের প্রত‌্যেকের পরিবারকে ২ লাখ টাকা অনুদান দেওয়ার ঘোষণা দিয়েছে শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়। গাজীপুর জেলা প্রশাসন নিহতদের পরিবারকে ২০ হাজার টাকা করে এবং আহতদের ৫ হাজার টাকা করে দিচ্ছে।  

কারখানার মালিক সিলেটের সাবেক বিএনপি সাংসদ সৈয়দ মো. মকবুল হোসেন হতাহত শ্রমিকদের ক্ষতিপূরণ দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন।

এই ঘটনা তদন্তে পাঁচ সদস‌্যের কমিটি গঠন করেছে গাজীপুর জেলা প্রশাসন। কমিটিকে ১৫ দিনের মধ‌্যে প্রতিবেদন দিতে বলা হয়েছে বলে জানান জেলা প্রশাসক এস এম আলম।


মন্তব্য