kalerkantho

মঙ্গলবার । ৬ ডিসেম্বর ২০১৬। ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৫ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


চট্টগ্রাম ও সিলেটযাত্রার শুরুতেই ভোগান্তি

কালের কণ্ঠ অনলাইন   

৯ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ১২:১২



চট্টগ্রাম ও সিলেটযাত্রার শুরুতেই ভোগান্তি

File Photo

ঈদের ছুটিতে ঢাকা থেকে সিলেট ও চট্টগ্রামের পথে রওনা দিয়ে মহাসড়কে নামতেই তীব্র যানজটে পড়ছে যানবাহন। নারায়ণগঞ্জের ঢাকা-সিলেট ও ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে শুক্রবার সকাল থেকেই প্রচণ্ড যানজট লেগেছে।

তীব্র যানজট দুই মহাসড়কের অন্যতম পয়েন্ট কাঁচপুর সেতুর উভয় পাশেই।

শুক্রবার থেকে সরকারি ছুটি শুরু হওয়ায় রাস্তায় অতিরিক্ত গণপরিবহন এবং কাঁচপুর সেতু সরু হওয়ায় যানবাহনগুলো ধীরগতিতে চলছে। ফলে যানজট সৃষ্টি হয়েছে বলে জানিয়েছেন কর্তব্য ট্রাফিক কর্মকর্তারা। তবে দুপুরের পর থেকে যানজট কমে আসবে বলেও জানান তারা।

সকাল ১০টায় নারায়ণগঞ্জের শিমরাইল এলাকায় দেখা গেছে, কাঁচপুর সেতু পর্যন্ত বিপুল সংখ্যক যানবাহন ট্রাফিক জ্যামে আটকে আছে। রাজধানীর ঢাকা থেকে শিমরাইল পর্যন্ত আট লেন হওয়ায় ঢাকা থেকে আসা যানবাহনগুলো দ্রুত সময়ের মধ্যে শিমরাইল পৌঁছালেও শিমরাইল থেকে কাঁচপুর পূর্ব ঢাল পর্যন্ত চার লেন থাকায় যানবাহনগুলোকে বেশ ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে। এ ছাড়া শিমরাইল এলাকাতেই রয়েছে বিভিন্ন পরিবহনের অসংখ্য বাসস্ট্যান্ড। এসব বাস কাউন্টার থেকে যাত্রীরা ওঠানামা করায় গণপরিবহনগুলোকে দীর্ঘ সময় দাঁড়িয়ে থাকতে হচ্ছে। ফলে যানজট বেরে চলেছে। যানজট নিরসনে এখানে কর্ত্যবরত ট্রাফিক পুলিশদের হিমশিম খেতে হচ্ছে।

থেমে থেকে মহসড়কে চলছে গাড়িঢাকা-সিলেট ও ঢাকা-চট্রগ্রাম মহাসড়ক দিয়ে দেশের ৩৮টি রুটের যান চলাচল করে। কাঁচপুর সেতুর উত্তর দিকে গেছে ঢাকা-সিলেট মহাসড়ক। সেখানে ভুলতায় গাউছিয়া মার্কেটের সামনে চলছে ফ্লাইওভারের কাজ। ফলে ওই স্থানে সড়ক সরু হয়ে গেছে। তা ছাড়া যাত্রাবাড়ী থেকে ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের রূপসী পর্যন্ত সড়কের গাড়িও মহাসড়কে গিয়ে জড়ো হয়। কিন্তু ফ্লাইওভারের কারণে ঢাকা-সিলেট মহাসড়কে যানজট রয়েছে।

অন্যদিকে, ঢাকা-চট্রগ্রাম মহাসড়কে রয়েছে কয়েকটি বাস স্ট্যান্ড। এর মধ্যে মদনপুর এলাকায় আবার রয়েছে মদনপুর-গাজীপুর এশিয়ান হাইওয়ে। যে কারণে মদনপুরের ওই স্পটে সর্বদা যানজট থাকায় সেটার প্রভাব পড়ে ঢাকা-চট্রগ্রাম মহাসড়কেও। এ মহাসড়কের কাঁচপুর, দড়িকান্দি, মোগরাপাড়া, মেঘনা ও চিপরদী এলাকাতেও গণপরিবহন থামিয়ে যাত্রী ওঠানো নামানো হয়।

কাঁচপুর হাইওয়ে পুলিশের ওসি শেখ শরিফুল আলম জানান, অন্যান্য দিনের তুলনায় শুক্রবার গণপরিবহনের সংখ্যা অনেক বেশি। এ কারণে ভোর থেকেই কাঁচপুর সেতুর আশপাশ এলাকায় প্রচণ্ড যানজট। ট্রাফিক পুলিশ ও হাইওয়ে পুলিশ সকাল থেকে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। এ ছাড়াও কাঁচপুর সেতুটি কিছুটা উঁচু ও সরু থাকায় এ সেতুর ওপর দিয়ে গণপরিবহনগুলো বেশ ধীরগতিতে চলে। এ কারণেই যানজট সৃষ্টি হয়। তা ছাড়া ভুলতা ফ্লাইওভার ব্রিজের কাজ চলমান থাকায় ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের এক পাশ সরু হয়ে গেছে। সে কারণে সেখানেও যানবাহনের চাপ রয়েছে। এ ছাড়া মেঘনা, মেঘনা ও গোমতি সেতুর ওপর যানবাহন বিকল হওয়ার কারণে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের কখনো কখনো যানজটের সৃষ্টি হচ্ছে।


মন্তব্য